১৮ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট ৬ ঘন্টা পূর্বে  
Login   Register        
ADS

হবিগঞ্জে দুই প্রতারক আটক ॥ গণধোলাই


নিজস্ব সংবাদদাতা, হবিগঞ্জ, ৭ সেপ্টেম্বর ॥ জাল নোট লেনদেনকালে সোমবার অপরাহ্ণে হবিগঞ্জ পৌর বাস টার্মিনাল এলাকা থেকে ২৫০ সৌদি রিয়ালসহ প্রতারককে জনতার সহায়তায় আটক করেছে পুলিশ। আটককৃতরা হলো গোপালগঞ্জ জেলার মুকসেদপুর উপজেলার আরব আলীর ছেলে সেজনুর শেখ এবং একই উপজেলার মনিকান্দি গ্রামের আফজল শেখের ছেলে সোরাব শেখ।

পুলিশ জানায়, আটক সেজনুর ও সোরাব হবিগঞ্জ শহরের বিভিন্ন এলাকায় বাসা ভাড়া নিয়ে সৌদি রিয়াল, আমেরিকান ডলার ও ইংল্যান্ডের বিক্রির নামে লোকজনের সঙ্গে প্রতারণা করে আসছিল। এদিকে গেল বৃহস্পতিবার বিকেলে হবিগঞ্জ শহরের বগলাবাজার এলাকাস্থ ইসকন মন্দিরের সেবায়েত রাজগোবিন্দকে বাংলাদেশী ১২ লাখ টাকার সৌদি রিয়াল, ৬ লাখ টাকায় বিক্রির প্রস্তাব দেয় ওই চক্রটি।

বাউফলে কলেজ শিক্ষককে নির্যাতন

নিজস্ব সংবাদদাতা, বাউফল, ৭ সেপ্টেম্বর ॥ বাউফলে এক কলেজ শিক্ষককের ওপর পৈশাচিক কায়দায় নির্যাতন চালিয়েছে এক ইউপি সদস্য ও তার সাঙ্গোপাঙ্গরা। খালাকে মারধর করার প্রতিবাদ করায় ওই শিক্ষককের ওপর এ নির্যাতন চালানো হয়। সোমবার সকাল ১০টায় বাউফল রিপোর্টার্স ইউনিটিতে সংবাদ সম্মেলন করে ওই শিক্ষক তার ওপর নির্যাতনের বর্ণনা দেন। ওই শিক্ষকের নাম সাইদুর রহমান জুয়েল। তিনি নুরাইনপুর কলেজের গণিত বিভাগের শিক্ষক। সংবাদ সম্মেলনে জুয়েল অভিযোগ করেন, ধূলিয়া ইউপির এক নম্বর ওয়ার্ড সদস্য মনির হাওলাদার তার খালা কহিনুর বেগমকে কয়েক দিন পূর্বে মারধর করে। গত শনিবার তিনি এ বিষয়টি নিয়ে প্রতিবাদ করলে ইউপি সদস্য মনির ও তার সাঙ্গোপাঙ্গরা তাকে লাঠি দিয়ে পিটিয়ে শরীরের বিভিন্ন জায়গায় জখম করে। একপর্যায়ে শরীর থেকে কাপড় খুলে তাকে মারধর করে এবং একটি সুচারু গাছের ডাল তার বাম পায়ের হাঁটুর নিচের মাংসে ঢুকিয়ে দেয়। ওই সময় তার ডাক চিৎকার শুনে স্থানীয় লোকজন এসে তাকে উদ্ধার করে। সংবাদ সম্মেলনে জুয়েল উপস্থিত সাংবাদিকদের তার শরীরের বিভিন্ন স্থানে নির্যাতনের চিহ্নগুলো দেখান। শিক্ষক জুয়েল বর্তমানে বাউফল স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। জুয়েলের বাড়ি ওই উপজেলার সূর্যমনি ইউনিয়নের শ্বানেশ্বর গ্রামে, সে ওই উপজেলার নুরাইনপুর কলেজের গণিত বিভাগের শিক্ষক।