১৯ ফেব্রুয়ারী ২০১৮, ৭ ফাল্গুন ১৪২৪, সোমবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
 
সর্বশেষ

নতুন পে-স্কেলে বেসরকারী স্কুল কলেজের এমপিও ভুক্তদের অন্তর্ভুক্ত করায় শিক্ষক

প্রকাশিত : ৮ সেপ্টেম্বর ২০১৫

স্টাফ রিপোর্টার ॥ নতুন বেতন স্কেলে অন্তর্ভুক্ত করায় খুশি দেশের বেসরকারী স্কুল-কলেজের এমপিওভুক্ত শিক্ষক-কর্মচারীরা। সরকারের এ ঘোষণায় প্রধানমন্ত্রী, শিক্ষামন্ত্রী ও অর্থমন্ত্রীকে অভিনন্দন জানিয়েছে শিক্ষক-কর্মচারীদের সংগঠনগুলো। সংগঠনের নেতৃবৃন্দ বলেছেন, সফল রাষ্ট্রনায়ক প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে অভিনন্দন ও শুভেচ্ছা। বাংলাদেশে কলেজ বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির নেতৃবৃন্দ সরকারকে অভিনন্দন জানিয়ে বলেছেন, আমরা শিক্ষক সমাজের পক্ষ থেকে প্রধানমন্ত্রী, শিক্ষামন্ত্রী ও অর্থমন্ত্রীকে অভিনন্দন জানাই। অভিনন্দন বার্তায় সংগঠনটির সভাপতি অধ্যাপক ড. মোঃ আখতারুজ্জামান, নির্বাহী সভাপতি অধ্যক্ষ মোঃ আবদুর রশীদ ও সাধারণ সম্পাদক সিরাজুল হক আলো এক অভিনন্দন বার্তায় বলেছেন, আগেও শেখ হাসিনার সরকার বেসরকারী শিক্ষকদের পে-স্কেলে অন্তর্ভুক্ত করেছেন; এবারও তাই করেছেন। শিক্ষক নেতারা বার্তায় একই সঙ্গে বলেছেন, পে-স্কেল নিয়ে যারা বেসরকারী শিক্ষক সমাজের মাঝে বিভ্রান্তি ছড়াচ্ছে তাদের বিষয়ে সতর্ক থাকতে হবে। সরকারকে অভিনন্দন জানিয়েছে জাতীয় শিক্ষক কর্মচারী ফ্রন্ট। সংগঠনের প্রধান সমন্বয়কারী অধ্যক্ষ কাজী ফারুক আহমেদ এক বিবৃতিতে প্রধানমন্ত্রী, শিক্ষামন্ত্রী ও অর্থমন্ত্রীকে অভিনন্দন জানিয়েছেন। নতুন বেতন স্কেলে বেসরকারী শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের এমপিওভুক্ত শিক্ষক-কর্মচারীদের অন্তর্ভুক্ত করায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদকে ধন্যবাদ জনিয়েছে বাংলাদেশ শিক্ষক সমিতির সভাপতি সৈয়দ জুলফিকার আলম চৌধুরী ও মহাসচিব মোঃ ইয়াদ আলী খান। একই সঙ্গে তারা আশা প্রকাশ করে বলেছেন, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান দেশের প্রাথমিক শিক্ষাকে জাতীয়করণ করে যেমন ইতিহাস গড়েছেন, তেমনি তাঁরই সুযোগ্য কন্য বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী ও জননেত্রী শেখ হাসিনা দেশের মাধ্যমিক স্তরের শিক্ষাকেও জাতীয়করণ করে বঙ্গবন্ধুর মতোই দৃষ্টান্ত স্থাপন করবেন। পে-স্কেলে এমপিওভুক্ত শিক্ষক সমাজকে অন্তর্ভুক্ত করায় প্রধানমন্ত্রীকে অভিনন্দন জানিয়েছে বাংলাদেশ শিক্ষক সমিতির (নজরুল) সভাপতি মোঃ নজরুল ইসলাম রনি ও মহাসচিব মোঃ রিয়াজ উদ্দিন। এক যৌথ বিবৃতিতে তারা বলেছেন, সফল রাষ্ট্রনায়ক প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে অভিনন্দন ও শুভেচ্ছা। বর্তমান প্রধানমন্ত্রীর সরাসরি হস্তক্ষেপে ও আন্তরিকতায় বেসরকারী ৫ লাখ এমপিওভুক্ত শিক্ষক-কর্মচারী অতীতের মতো জাতীয় পে-স্কেলে অন্তর্ভুক্ত হয়েছে। এ বিজয় শিক্ষক সমাজের ও বর্তমান সরকারের। শিক্ষক সমাজ মনে করে এতে শিক্ষকদের বেতন বৈষম্য কিছুটা হলেও দূর হবে এবং শিক্ষার মান উন্নয়ন ত্বরান্বিত হবে। বিবৃতিতে শিক্ষক নেতৃবৃন্দ অবিলম্বে প্রজ্ঞাপন জারি করে অষ্টম জাতীয় পে-স্কেল দ্রুত কার্যকর করার জোর দাবি জানান।

পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষকদের কর্মসূচী চলবে ॥ সিলেকশন গ্রেড ও টাইম স্কেল বাদ দিয়ে সোমবার অষ্টম পে-স্কেল মন্ত্রিসভায় অনুমোদনের পরও পূর্ব ঘোষণা অনুযায়ী আজ পূর্ণ কর্মবিরতি পালন করবেন পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকরা। সোমবার বিকেলে বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি ফেডারেশনের সভাপতি অধ্যাপক ফরিদ উদ্দিন সাংবাদিকদের এ কথা জানিয়েছেন। তিনি বলেন, পূর্ব ঘোষণা অনুযায়ী আমাদের মঙ্গলবারের কর্মসূচী চলবে। অধ্যাপক ফরিদ বলেন, অষ্টম পে-স্কেল মন্ত্রিসভায় অনুমোদনের পরও আমাদের দাবির ব্যাপারটি সরকার পর্যালোচনা করবে বলে শুনেছি। যদি ইতিবাচক সিদ্ধান্ত আসে তবে আমরা কর্মসূচী প্রত্যাহার করব। কিন্তু নেতিবাচক সিদ্ধান্ত এলে আমরা লাগাতার কর্মবিরতিতে যেতে বাধ্য হব। কারণ এটা গোটা শিক্ষক সমাজের মর্যাদার প্রশ্ন। তাই দেয়ালে পিঠ ঠেকে যাওয়ায় আমাদের কঠোর হওয়া ছাড়া উপায় নেই।

প্রকাশিত : ৮ সেপ্টেম্বর ২০১৫

০৮/০৯/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

শেষের পাতা



শীর্ষ সংবাদ: