১৯ ফেব্রুয়ারী ২০১৮, ৭ ফাল্গুন ১৪২৪, সোমবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
 

শাহজালালে ১০ কোটি টাকার ভিওআইপি সরঞ্জাম জব্দ

প্রকাশিত : ৮ সেপ্টেম্বর ২০১৫

স্টাফ রিপোর্টার ॥ হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে ১০ কোটি টাকা মূল্যের ১১৮ কার্টন ভিওআইপি সরঞ্জাম জব্দ করেছে শুল্ক গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদফতর। বিমানবন্দরের এয়ারফ্লাইট ইউনিট থেকে সোমবার সকালে এ সব সরঞ্জাম জব্দ করা হয়। শুল্ক গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদফতর কার্যালয়ে সোমবার বিকেলে এক সংবাদ সম্মেলনে মহাপরিচালক ড. মঈনুল খান এ তথ্য জানান। তিনি বলেন, পণ্যগুলো দীর্ঘদিন ধরে এয়ারফ্লাইট ইউনিটে পড়ে ছিল এবং বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশনের (বিটিআরসি) অনুমোদন ছাড়াই বের করে নেয়ার চেষ্টা চলছিল। সাধারণত কোন পণ্য এয়ারফ্লাইট ইউনিটে আসার পর ২১ দিন সময় পাওয়া যায় খালাস করার জন্য। এই সময় পার হওয়ার পরই এগুলো জব্দ করা হয়েছে।

ড. মঈনুল খান আরও বলেন, ভিওআইপি সরঞ্জাম নিষিদ্ধ পণ্য। এর জন্য নিরাপত্তা বিঘিœত হচ্ছে এবং সরকার রাজস্ব থেকে বঞ্চিত হচ্ছে। সন্ত্রাসী কর্মকা-ের জন্য এ নম্বরগুলো বেশি ব্যবহার হয়ে থাকে। এ সরঞ্জামগুলো দেশে তৈরি হয় না। সাধারণত বিদেশ থেকে আনা হয়। এগুলো গত ১০ আগস্ট হংকং থেকে ঢাকার ২৮/বি টয়েনবি সার্কুলার রোডের সাদিয়া ট্রেডিং করপোরেশনের নামে এসেছে। তবে অনুসন্ধানে জানা যায় ওই ঠিকানায় এমন কোন প্রতিষ্ঠান নেই। জব্দ করা ভিওআইপি সরঞ্জামের মধ্যে ৩২ ধরনের পণ্য ছিল। এর মধ্যে ইথারনেট মিডিয়া কনভার্টার, সুইচ গেটওয়ে ও ৬ ধরনের রাউটার অন্যতম প্রধান পণ্য। এগুলোর কোন ধরনের রেকর্ড খুঁজে পাওয়া যায়নি। ধারণা করা হচ্ছে, চোরাচালানের জন্য সরঞ্জামগুলো আনা হয়েছে।

শুল্ক গোয়েন্দা অধিদফতরের মহাপরিচালক বলেন, পণ্যগুলো তো নিশ্চয়ই কোন ব্যক্তি অথবা প্রতিষ্ঠানের সহযোগিতায় এখানে এসেছে। এর সঙ্গে কারা জড়িত তা তদন্ত করে দেখা হচ্ছে। এজন্য তিন সদস্যবিশিষ্ট একটি তদন্ত কমিটিও গঠন করা হয়েছে। জড়িতদের কয়েকজনকে অবশ্য এর আগে গ্রেফতার করে রিমান্ডেও নেয়া হয়েছে।

প্রকাশিত : ৮ সেপ্টেম্বর ২০১৫

০৮/০৯/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

প্রথম পাতা



শীর্ষ সংবাদ: