মেঘলা, তাপমাত্রা ৩১.১ °C
 
২২ সেপ্টেম্বর ২০১৭, ৭ আশ্বিন ১৪২৪, শুক্রবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
সর্বশেষ

বাউফলে পরিবেশ বান্ধব অর্ধশত গাছ মেরে ফেলা হয়েছে

প্রকাশিত : ৭ সেপ্টেম্বর ২০১৫, ০৩:২৩ পি. এম.

নিজস্ব সংবাদদাতা, বাউফল ॥ সুকৌশলে মেরে ফেলা হয়েছে বাউফল উপজেলা পরিষদ চত্বরের পরিবেশ বান্ধব বিভিন্ন প্রজাতির অর্ধশত গাছ। যুগযুগ ধরে উপজেলা পরিষদের সৌন্দর্য বহন করা গাছগুলো মেরে ফেলায় সাধারণ মানুষের মধ্যে তীব্র ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। আজ সোমবার বাউফল উপজেলা পরিষদ চত্বরে গিয়ে দেখা যায়, আকাশমণি, মেহগণি, রেইনট্রি ও চাম্বলসহ বিভিন্ন প্রজাতির অর্ধশত মরা বৃক্ষ দাড়িয়ে আছে। যে কোন সময় মরা ওই গাছগুলো হেলে পড়ে দূর্ঘটনা ঘটতে পারে। কয়েক মাস আগে বাউফল উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান শ্রমিক দিয়ে শতাধিক গাছের ডালপালা কেটে ফেলেন। পরিবেশ বিশেষজ্ঞরা বলেন, ডালপালা কেটে ফেলায় পরিমিত নাইট্রোজেন গ্রহন করতে পারেনি গাছগুলো। ফলে একে একে অর্ধশত গাছ মরে গেছে। সংশ্লিষ্ট একটি সূত্র জানায়, কয়েকবছর আগে উর্দ্ধতন কতৃপক্ষের অনুমতি ছাড়াই উপজেলা পরিষদের দুই শতাধিক মূল্যবান গাছ কাটার উদ্যোগ নেন বাউফল উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ইঞ্জিনিয়ার মজিবর রহমান মুন্সি। তিনি বেছে বেছে পুরানো প্রতিটি গাছে মার্কিং করেন। ওই সময় বিভিন্ন পত্রিকায় এ বিষয় নিয়ে খবর প্রকাশ হওয়ায় তোলপাড় শুরু হয়। তখন তিনি গাছ কাটার সিদ্ধান্ত থেকে পিছু হটেন। পরে তিনি উপজেলা পরিষদের ভবন সু রক্ষার নামে কৌশলে শতাধিক গাছের ডালপালা কেটে ফেলেন। এর পর থেকে গাছগুলো মরে যাওয়ায় উপজেলার প্রকৃতি প্রেমী মানুষ ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন। পরিবেশবাদীরাও নিন্দা জানিয়ে এ ঘটনার বিচার দাবী করেছেন। বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা আরডিএস এর নির্বাহী পরিচালক একেএম খালেক বলেন, সরকার যেখানে বনায়নের জন্য মরিয়া সেখানে এভাবে গাছগুলো মেরে ফেলার বিষয়টি মেনে নেয়া যায় না।

প্রকাশিত : ৭ সেপ্টেম্বর ২০১৫, ০৩:২৩ পি. এম.

০৭/০৯/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


শীর্ষ সংবাদ: