মেঘলা, তাপমাত্রা ৩১.১ °C
 
২০ সেপ্টেম্বর ২০১৭, ৫ আশ্বিন ১৪২৪, বুধবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
সর্বশেষ

ছাত্রীকে উত্যক্ত ও তার বাবাকে মারধর করায় ছাত্রের জেল

প্রকাশিত : ৭ সেপ্টেম্বর ২০১৫, ১১:২০ এ. এম.

নিজস্ব সংবাদদাতা,আমতলী (বরগুনা)॥ রবিবার রাতে তালতলীর বগীর হাট মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ৭ম শ্রেনীর ছাত্রীকে উত্যক্ত ও তার বাবাকে মারধরের ঘটনা ঘটেছে। এ অপরাধে ইউএনও (ভারপ্রাপ্ত)ও ভ্রাম্যমান আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ মিজানুর রহমান একই বিদ্যালয়ের দশম শ্রেনীর ছাত্র শাহিন বিশ্বাসকে এক বছর বিনাশ্রম কারাদন্ড দিয়েছেন।

জানাগেছে, বগীরহাট মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ৭ম শ্রেনীর এক ছাত্রীকে একই বিদ্যালয়ের দশম শ্রেনীর ছাত্র শাহিন বিশ্বাস দীর্ঘদিন ধরে উত্যক্ত করে আসছিল। এ ঘটনা বহুবার ছাত্রীর বাবা বখাটে শাহীনের বাবা নজরুল বিশ্বাসকে অবগত করে। কিন্তু সে কোন কর্ণপাত করেনি। রবিবার দুপুরে স্কুল বিরতির সময় ছাত্রী বাড়ী যাচ্ছিল। এ সময় পথিমধ্যে বখাটে শাহিন ওই ছাত্রীকে একা পেয়ে উত্যক্ত করে। এ ঘটনা মেয়েটি তার বাবাকে জানায়। ছাত্রীর বাবা বখাটে শাহিনকে এ বিষয়ে জিজ্ঞাসা করে। এতে বখাটে ক্ষীপ্ত হয় মেয়ের বাবাকে লাঠি দিয়ে মারধর করে। স্থানীয়রা ছাত্রীর বাবাকে উদ্ধার করে এবং বখাটে শাহীন পালিয়ে যায়। এ ঘটনা ছাত্রীর বাবা বরগুনা পুলিশ সুপার বিজয় বসাককে অবহিত করেন। তাৎক্ষনিক পুলিশ সুপার বখাটে শাহীনকে আটকের জন্য তালতলী থানার ভারপ্রাপ্ত পুলিশ কর্মকর্তা বাবুল আখতারকে নির্দেশ দেন। বখাটে শাহিনকে বিকেলে বগীর বাজার থেকে পুলিশ গ্রেফতার করে। ওই দিন সন্ধ্যায় তালতলী ইউএনও (ভারপ্রাপ্ত) মোঃ মিজানুর রহমান খবর পেয়ে বগীর হাট মাধ্যমিক বিদ্যালয় যায়। পরে পুলিশ বখাটে শাহিনকে ভ্রাম্যমান আদালতে সোপর্দ করেন। ভ্রাম্যমান আদালত নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট রাত সারে সাতটার দিকে শাহিনকে এক বছর বিনাশ্রম কারাদন্ডের আদেশ দিয়েছেন। এদিকে বিদ্যালয় ব্যাবস্থাপনা কমিটি বখাটে শাহীনকে বিদ্যালয় থেকে বহিস্কার করেছে।

ব্যাবস্থাপনা কমিটির অভিভাবক সদস্য হাসান কাজী জানান শাহীনকে বিদ্যালয় থেকে বহিস্কার করা হয়েছে।

তালতলী ইউএনও (ভারপ্রাপ্ত) ও ভ্রাম্যমান আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. মিজানুর রহমান জানান বখাটে শাহীনকে এক বছরের বিনাশ্রম কারাদন্ড দেয়া হয়েছে।

প্রকাশিত : ৭ সেপ্টেম্বর ২০১৫, ১১:২০ এ. এম.

০৭/০৯/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


শীর্ষ সংবাদ: