মেঘলা, তাপমাত্রা ৩১.১ °C
 
২২ সেপ্টেম্বর ২০১৭, ৭ আশ্বিন ১৪২৪, শুক্রবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
সর্বশেষ

সাতছড়ির জঙ্গলে মেধাবী ছাত্রী শ্লীলতাহানির শিকার

প্রকাশিত : ৭ সেপ্টেম্বর ২০১৫

নিজস্ব সংবাদদাতা, হবিগঞ্জ, ৬ সেপ্টেম্বর ॥ প্রাকৃতিক সৌন্দর্য উপভোগের কথা বলে হবিগঞ্জের সাতছড়ি জাতীয় উদ্যানের গভীর জঙ্গলে নিয়ে কলেজর মেধাবী ছাত্রী আছমা আক্তারের শ্লীলতাহানির পর হত্যার চেষ্টা করেছে পাষন্ড স্বামী ও তার লম্পট বন্ধুরা। চিকিৎসাধীন অবস্থায় আছমা এখন হবিগঞ্জ সদর আধুনিক হাসপাতালে মৃত্যুর সঙ্গে লড়ছেন। পারিবারিক সূত্র জানায়, প্রেমের সর্ম্পক ধরে দেড় বছর আগে জেলার চুনারুঘাট উপজেলাধীন পাকুরিয়া গ্রামের নুরুল ইসলামের মেয়ে সিলেট এমসি কলেজের ২য় বর্ষের মেধাবী ছাত্রী আছমাকে বিয়ে করে একই উপজেলার হাতুন্ডা গ্রামের নিম্বর আলীর ছেলে রমজান আলী। বিয়ের পর থেকে নানা বিষয় নিয়ে উভয়ের মাঝে চলছিল মনোমালিন্য। ইদানিং তা তিক্ততায় রূপ নেয়। এরই জের ধরে শনিবার সন্ধ্যায় প্রাকৃতিক সৌন্দর্য উপভোগের কথা বলে আছমাকে তার স্বামী রমজান নিয়ে যায় গভীর জঙ্গলে। এদিকে আগে থেকেই ওই জঙ্গলে ওৎ পেতে ছিল স্বামীর বন্ধুরা। রমজানসহ তার বন্ধুরা আছমার শ্লীলতাহানি করে। এক পর্যায়ে তাকে হত্যার চেষ্টা করে লম্পটের দল। এ সময় আছমার চিৎকারে বনকর্মীরা দৌড়ে এলে লম্পটের দল পালিয়ে যায়।

পরে গুরুতর অবস্থায় রাতেই আছমাকে হবিগঞ্জ সদর আধুনিক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। ডাক্তার বলেছেন, আছমার দেহে নির্যাতনের চিহ্ন রয়েছে। এছাড়া অতিরিক্ত রক্তক্ষরণে তার অবস্থা আশঙ্কাজনক। এদিকে এই ঘটনায় আছমার পরিবার বিচার দাবি করেছে।

প্রকাশিত : ৭ সেপ্টেম্বর ২০১৫

০৭/০৯/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

দেশের খবর



শীর্ষ সংবাদ: