২১ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট ৮ ঘন্টা পূর্বে  
Login   Register        
ADS

৩০৫ জন পাচ্ছেন পরিচয়পত্র নবেম্বরে ভারত যাচ্ছেন বিলুপ্ত ছিটবাসীরা


স্টাফ রিপোর্টার, কুড়িগ্রাম ॥ ভারতের নাগরিকত্ব বহাল রাখতে বাংলাদেশের অভ্যন্তরে থাকা ৯শ’ ৮৭ সাবেক ছিটবাসী নিবন্ধিত হয়েছে। তাদের অপেক্ষার প্রহর শেষ হতে চলেছে। ১ নবেম্বর থেকে ৩০ নবেম্বরের মধ্যে নির্ধারিত সীমান্ত চেকপোস্ট অতিক্রম করে ভারতে যেতে হবে তাদের। আজ সোম ও মঙ্গলবার ২ দিন ভারতীয় কর্তৃপক্ষ তাদের হাতে তুলে দেবেন ‘ট্রাভেল কাম আইডেনটিটি পাস’।

কুড়িগ্রাম জেলার অভ্যন্তরে অবস্থিত বিলুপ্ত ১২টি ছিটমহলের মধ্যে ফুলবাড়ীর ‘দাশিয়ারছড়া’ ও ভুরুঙ্গামারীর ‘গোড়লঝাড়া’ থেকে ৩ শ’ ৫ জন ভারতে যাবেন। এজন্য ভারতীয় কর্মকর্তা তিমির ঘোষের নেতৃত্বে ৫ সদস্যের একটি প্রতিনিধি দল রবিবার কুড়িগ্রাম পৌঁছে। অন্য সদস্যরা হলেন শৌলেন্দর কিশোর, তাপস ভট্টাচার্য, দীপক দেবনাথ ও অসীম বড়ুয়া। সোমবার ৩ সদস্যের একটি টিম দাশিয়ারছড়ার অস্থায়ী পুলিশ ক্যাম্পের পাশে এবং অপর ২ সদস্যের টিমটি ভুরুঙ্গামারী ইউএনও কার্যালয়ে বসে ভারতীয় পরিচয়পত্র প্রদান কার্যক্রম শুরু করবেন। মঙ্গলবার পর্যন্ত এ কার্যক্রম চলবে সকাল ১০টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত। বাংলাদেশের অভ্যন্তরে অবস্থিত ১শ’ ১১টি বিলুপ্ত ছিটমহলের মধ্যে ১৯টি ছিটমহল থেকে ৯শ’ ৮৭ ভারতীয় নাগরিকত্ব বহাল রাখার পক্ষে নিবন্ধন করেছেন। এর মধ্যে পঞ্চগড় জেলার ১০টি ছিটমহল, লালমনিরহাট জেলার ৭টি ও কুড়িগ্রাম জেলার অভ্যন্তরের ২টি ছিটমহল থেকে এসব মানুষ ভারতে যাবার ইচ্ছা প্রকাশ করেছেন।

জেলা প্রশাসক খান মোঃ নুরুল আমিন জানান, বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যকার ১শ’ ৬২টি ছিটমহলের মধ্যে বাংলাদেশের অভ্যন্তরে ১শ’ ১১টি ছিটমহলে হেড কাউন্টিংয়ের পর জনসংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৪১ হাজার ৪শ‘ ৪৯ জন। এরমধ্যে ভারত যেতে নিবন্ধন করেছে ৯শ’ ৮৭জন। অপরদিকে ভারতে অবস্থিত বাংলাদেশী ৫১টি ছিটমহলের প্রায় ১৪ হাজার মানুষের কেউ বাংলাদেশে আসতে আগ্রহ দেখায়নি। কুড়িগ্রাম জেলার দাশিয়ারছড়া থেকে ভারতে যাবে ২শ‘ ৮১জন এবং ভুরুঙ্গমারীর গোড়লঝাড়া থেকে ২৪জন। এছাড়া জেলার অভ্যন্তরের বিলুপ্ত ১২টি ছিটমহলের ৭হাজার ৮শ’ ২৭জন বাংলাদেশের নাগরিকত্ব গ্রহণ করেছেন।

সম্পর্কিত:
পাতা থেকে: