১৮ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

গ্রামে গিয়ে মানুষকে সেবা দিন ॥ বিশেষজ্ঞ ডাক্তারদের স্বাস্থ্যমন্ত্রী


স্টাফ রিপোর্টার ॥ বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকদের গ্রামে গিয়ে সেবা দেয়ার আহ্বান জানিয়েছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম। তিনি বলেন, রাজধানী ঢাকাসহ বিভাগীয় শহরগুলোতে প্রয়োজনের তুলনায় বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের সংখ্যা বেশি। ঢাকায় এমন হাসপাতালও আছে যেখানে রোগীর তুলনায় চিকিৎসক বেশি। অথচ দেশের জেলা ও উপজেলা পর্যায়ের সাধারণ মানুষ বিশেষজ্ঞদের হাতের নাগালে পান না। বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকরা স্বেচ্ছায় ঢাকার বাইরে বদলি হয়ে গেলে জেলা হাসপাতালগুলো সমৃদ্ধ হতো। আর দরিদ্র মানুষের কাছে উন্নত স্বাস্থ্যসেবা পৌঁছে দেয়ার উদ্যোগও পরিপূর্ণতা পেতো।

রবিবার ঢাকায় ‘বাংলাদেশ কলেজ অব ফিজিশিয়ান্স এ্যান্ড সার্জন্স’ (বিসিপিএস) মিলনায়তনে ২০১৫ সালের জুলাই সেশনে এফসিপিএস এবং এমসিপিএস উত্তীর্ণ চিকিৎসকদের মধ্যে সনদ বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে স্বাস্থ্যমন্ত্রী এ কথা বলেন। বিসিপিএস সভাপতি অধ্যাপক ডাঃ সানোয়ার হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে প্রতিষ্ঠানের সহসভাপতি অধ্যাপক ডাঃ কনক কান্তি বড়ুয়া বক্তৃতা করেন।

এমবিবিএস ও বিডিএস ভর্তি পরীক্ষায় ন্যূনতম পাস নম্বর না কমানোর সরকারী সিদ্ধান্তের কথা উল্লেখ করে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, মেডিক্যাল কলেজে ভর্তি পরীক্ষা নিয়ে কোন আপোস করা হবে না। এ ক্ষেত্রে কোন বিক্ষোভ বা চাপ সরকারকে পিছু হটাতে পারবে না। তিনি বলেন, সরকার বেসরকারী খাতকে সব সময় উৎসাহ যোগাতে চায়। কিন্তু চিকিৎসা সেবা নিয়ে কোন ব্যবসা চলে না। এ ক্ষেত্রে ন্যূনতম মান বজায় রাখতেই হবে। যারা নির্ধারিত ন্যূনতম পাস নম্বর অর্জন করতে পারে না, তারা চিকিৎসক না হয়ে কসাই হবে। তাদের কোনভাবে প্রশ্রয় দেয়া উচিত না।

অনুষ্ঠানে মোহাম্মদ নাসিম ২০১৫ সালে এফসিপিএস ও এমসিপিএস পাস করা ২১২ জন ফেলো চিকিৎসকের মাঝে সনদপত্র বিতরণ করেন। এর মধ্যে ১৮৮ জন এফসিপিএস পাস করেছেন। বিসিপিএস সভাপতি নতুন বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকদের শপথ পাঠ করান।

এদিকে বিকেলে স্বাস্থ্যমন্ত্রী সচিবালয়ে ‘বার্ন ইনস্টিটিউট স্থাপনের লক্ষ্যে জমি অবমুক্তকরণ’ সংক্রান্ত এক আন্তঃমন্ত্রণালয় সভায় সভাপতিত্বকালে রাজধানীর চানখাঁরপুলে টিবি হাসপাতাল সংলগ্ন জমিতে বার্ন ইনস্টিটিউট স্থাপনের লক্ষ্যে কাজ শুরু করতে সংশ্লিষ্টদের নির্দেশ দিয়েছেন। তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রীর আন্তরিক সদিচ্ছা ও নির্দেশনা অনুযায়ী এই জায়গায় বার্ন ইনস্টিটিউট তৈরি করতে হবে। তিনি দ্রুত সেখানে পরিচ্ছন্নতা অভিযান শুরু করে ইনস্টিটিউট নির্মাণের উপযোগী পরিবেশ সৃষ্টি করার নির্দেশ দেন।

সভায় জানানো হয়, রাজধানীর চানখাঁরপুলের টিবি হাসপাতাল ও এর সংলগ্ন জমি স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের অধীনে এবং এখানে বার্ন ইনস্টিটিউট নির্মাণে আইনগত কোন সমস্যা নেই। এ সময় পূর্তমন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন, স্বাস্থ্য সচিব সৈয়দ মন্জুরুল ইসলাম, পূর্ত সচিব মঈনুদ্দীন আবদুল্লাহ, ঢাকা বিভাগীয় কমিশনার জিল্লার রহমান, স্বাস্থ্য অধিদফতরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডাঃ দীন মোঃ নুরুল হক, ডাঃ সামন্ত লাল সেন, বার্ন ইউনিটের পরিচালক অধ্যাপক ডাঃ আবুল কালাম আজাদসহ স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়, পূর্ত মন্ত্রণালয়, স্বাস্থ্য অধিদফতর, পূর্ত বিভাগের উর্ধতন কর্মকর্তাবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।