২১ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

বরিশালে যুবদল নেতাকে কুপিয়ে, গফরগাঁওয়ে গলা কেটে ও চোখ তুলে যুবক হত্যা


জনকণ্ঠ ডেস্ক ॥ জমি-জমা সংক্রান্ত বিরোধের জেরে বরিশালে শনিবার রাতে খুন হয়েছেন যুবদল নেতা মোঃ আলআমিন হাওলাদার। এছাড়া গফরগাঁওয়ে চোখ উৎপাটন ও কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে এক যুবককে। অন্যদিকে চট্টগ্রামের মীরসরাইয়ে দুর্বৃত্তদের হাতে নিহত হয়েছেন এক ব্যবসায়ী। খবর স্টাফ রিপোর্টার, নিজস্ব সংবাদদাতার।

বরিশাল ॥ বরিশালের মেহেন্দিগঞ্জ উপজেলার কাজীরহাট থানার পশ্চিম রত্তনপুর গ্রামে জমি-জমা সংক্রান্ত বিরোধে ইউনিয়ন যুবদলের সভাপতি মোঃ আল আমিন হাওলাদারকে (৩৩) কুপিয়ে হত্যা করেছে প্রতিপক্ষের লোকজন। শনিবার রাতে মুমূর্ষু অবস্থায় তাকে শেবাচিম হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

থানার ওসি এম আর শওকত আনোয়ার জানান, ওই গ্রামের ছালাম হাওলাদারের পুত্র ও বিদ্যানন্দনপুর ইউনিয়ন যুবদলের সভাপতি আল আমিন হাওলাদারের সঙ্গে দীর্ঘদিন থেকে একই বাড়ির চাচাত ভাইদের সঙ্গে জমি-জমা নিয়ে বিরোধ চলছিল। তারই ধারাবাহিকতায় শনিবার দুপুরে চাচাত ভাই মঞ্জুর ইসলামের নেতৃত্বে ৩-৪ জন ধারালো অস্ত্র দিয়ে আল আমিনকে কুপিয়ে গুরুতর আহত করে। আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাকে শেবাচিম হাসপাতালে নেয়া হলে রাতে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। এ ঘটনায় থানায় হত্যা মামলা দায়েরের পর পুলিশ মঞ্জুর স্ত্রী রুমা বেগমকে গ্রেফতার করেছে।

গফরগাঁও ॥ ময়মনসিংহের গফরগাঁওয়ে চোখ উৎপাটন করে সারাশরীরে কুপিয়ে এক যুবককে হত্যা করেছে অজ্ঞাত পরিচয় দুর্বৃত্তরা। শনিবার গভীর রাতে উপজেলার পাইথল পশ্চিমপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। নিহত আজিজুল হক ফালান (২২) পাইথল পশ্চিমপাড়া গ্রামের সুলতান মিয়ার ছেলে। ঘটনাস্থল থেকে হত্যাকা-ে ব্যবহৃত রক্তমাখা চাপাতি উদ্ধার করেছে পুলিশ।

পরিবার ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, শনিবার রাতে আজিজুল হক ফালান রাত সাড়ে ১০টার দিকে বাড়িসংলগ্ন মানিকের দোকান থেকে বের হয়ে রাত ১২টা পর্যন্ত বাড়ি ফিরে না আসায় পরিবারের লোকজন রাতভর খোঁজ করেও কোথাও পায়নি। এ অবস্থায় গতকাল রবিবার সকালে বাড়ি থেকে আধা কিলোমিটার দূরে একটি রাস্তার পাশে নিহত ফালানের ক্ষতবিক্ষত লাশ খুঁজে পায় পরিবারের লোকজন। খবর পেয়ে গফরগাঁওয়ের পাগলা থানা পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠায়। নিহতের মা লাইলী বেগম (৫৫) জানান, ‘আমার ছেলের বউ সুমি বাড়ি থেকে রাগ করে যাওয়ার পর থেকে অজ্ঞাত লোকজন ছেলেকে বিভিন্নভাবে হুমকি দিয়ে আসছিল। কয়েক দিন পূর্বেও আমার ছেলেকে স্থানীয় কিছু লোকজন শ্বশুরবাড়ির বিষয়টি ফয়সালা করার জন্য চাপ সৃষ্টি করেছিল।’

চট্টগ্রাম ॥ মীরসরাইয়ে মেজবাহ উদ্দিন (৩২) নামের এক ব্যবসায়ীকে গুলি করে ও কুপিয়ে হত্যা করেছে দৃর্বৃত্তরা। শনিবার রাতে উপজেলার মিঠানালা ইউনিয়নের মলিয়াইশ গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। রবিবার ভোরে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে।

শনিবার রাত ১১টার দিকে তিনি উপজেলার সাধুর বাজার ট্যাক্সি স্ট্যান্ডে তার ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বন্ধ করে প্রতিদিনের মতো বাড়ির উদ্দেশে রওনা দেন। কিন্তু গভীর রাত পর্যন্ত মেজবাহ বাড়ি না ফেরায় বিষয়টি তার স্ত্রী মেজবার মাকে জানান। এরপর তার ভাইয়েরা খোঁজ করলে বাড়ির অদূরে লাশ পাওয়া যায়। মেজবার বুকে গুলি ও শরীরে ধারালো অস্ত্রের আঘাতের চিহ্ন রয়েছে।

জানা গেছে, কয়েক বছর ধরে একটি রাস্তা নিয়ে স্থানীয় অহিদের সঙ্গে তার দ্বন্দ্ব চলে আসছিল। এছাড়া কয়েক দিন পূর্বে কিছু সন্ত্রাসী তার কাছে চাঁদা দাবি করেছিল। অন্যথায় তাকে কেবল নেটওয়ার্কের ব্যবসা বন্ধ করে দেয়ার হুমকি দেয় সন্ত্রাসীরা। নিহত মেজবাহ উপজেলার মিঠানালা ইউনিয়নের মলিয়াইশ গ্রামের আজিজ উল্লাহ ভূঁইয়া বাড়ির জামাল উল্লাহর পুত্র। তার স্ত্রী ও একটি শিশুকন্যা রয়েছে।

সম্পর্কিত:
পাতা থেকে: