২৩ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

বাঁশখালীতে জঙ্গি অর্থায়নের দায়ে আটক ব্যবসায়ীকে রিমান্ডে


নিজস্ব সংবদদাতা, বাঁশখালী॥ চট্টগ্রাম ভিত্তিক জঙ্গি সংগঠন ‘হামজা বিগ্রেড’কে অর্থদানের অভিযোগে ঢাকার তুরাগ থেকে আটক ব্যবসায়ী এনামকে রবিবার দুপুরে বাঁশখালী সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে হাজির করেছে র‌্যাব-৭। সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট মোঃ সাজ্জাদ হোসেনের আদালতে হাজির করে ৭ দিনের রিমান্ড আবেদন জানায় র‌্যাব। রিমান্ড শুনানী শেষে বিজ্ঞ আদালত অভিযুক্ত আসামীর বিরুদ্ধে ৫ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করে। রিমান্ড শুনানীতে সরকার পক্ষে কৌশুলী অতিরিক্ত পিপি এ্যাড. বিকাশ রঞ্জন ধর ও বাঁশখালী আদালতের বার কাউন্সিলের সাধারণ সম্পাদক এ্যাড.আ.ন.ম শাহাদত আলম অংশ নেন। অপরদিকে আসামীপক্ষে কোন আইনজীবি নিয়োগ হয়নি। আটক ব্যবসায়ী যশোর জেলার কোতোয়ালী থানার জয়ান্তা গ্রামের মতিউর রহমানের পুত্র। এদিকে জঙ্গি অর্থায়নে অভিযুক্ত মোঃ এনামুল হক নিজেই আদালতকে স্বাীকারোক্তি প্রদান করে বলেন, ২০১৪ সালে ১৬ আগস্ট গোল্ডেন টার্চ এপ্যারেল্স গার্মেন্টসের মালামাল ক্রয়ের জন্য ১৬ লাখ টাকা মনিরুজ্জমান ডনের একাউন্টে প্রদান করেন। বিষয়টি স্পর্শকাতর বিধায় বিজ্ঞ আদালত তার বক্তব্য আমলে না নিয়ে সুষ্ঠ তদন্তের জন্য রিমান্ড প্রয়োজন মনে করে আসামীর বিরুদ্ধে ৫ দিনের রিমান্ড প্রদান করেন। রাষ্ট্রপক্ষের কৌশুলী অতিরিক্ত পিপি এ্যাড. বিকাশ রঞ্জন ধর জানান, জঙ্গি সংগঠন ‘শহীদ হামজা ব্রিগ্রেড’এর অন্যতম পরিচালক মনিরুজ্জমান ডনের পরিচালিত জঙ্গি সংগঠনটি চট্টগ্রামের বিভিন্ন এলাকায় ঘাটি করেছে। এর অর্থায়নে রয়েছে অনেক রাঘববোয়াল। সুপ্রিম কোর্টের তিন আইনজীবি গ্রেফতার হওয়ার পর আস্তে আস্তে বেড়িয়ে আসছে থলের বিড়াল। মনিরুজ্জমান ডনকে জঙ্গি কর্মকান্ড সংগঠনের উদ্দেশ্যেই এ ব্যবসায়ী অর্থায়ন করেছে বলে পিপির দাবী। তাছাড়া সে গার্মেন্টসের মালামাল ক্রয়ের জন্য যে বক্তব্য প্রদান করেছে তা ভিত্তিহীন। রিমান্ড শেষে বেরিয়ে আসবে আসল তথ্য। বিজ্ঞ আদালত আমাদের আবেদন আমলে নিয়ে ৫ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছে।