২৫ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট ৮ ঘন্টা পূর্বে  
Login   Register        
ADS

হিংসা হানাহানি বন্ধ করে ভ্রাতৃত্ববোধ প্রতিষ্ঠা জরুরী ॥ বিচারপতি শামসুদ্দিন


স্টাফ রিপোর্টার, মুন্সীগঞ্জ ॥ আপীল বিভাগের বিচারপতি এএইচএম শামসুদ্দিন চৌধুরী মানিক বলেছেন, হিংসা হানাহানি বন্ধ রেখে ভ্রাতৃত্ববোধ প্রতিষ্ঠা করা জরুরী। অস্ত্রখাতে ব্যয় না বাড়িয়ে মানবতায় হাত বাড়িয়ে দেয়া বেশি প্রয়োজন। তিনি বলেন, ধর্মের মূল বিষয় না বুঝে মানুষ হত্যা করা হচ্ছে নির্বিচারে। সিরিয়ার শিশু আইলানের নিথর দেহ পাওয়া গেল তুরস্কের সাগর তীরে। এটি মানবতার বিপর্যয়ের একটি দৃষ্টান্ত। সাম্প্রতিক মুক্তমনা ব্লগারদের একের পর এক হত্যার ঘটনাও নিন্দনীয়। গ্লোবাল ওয়ার্মিং পরিবেশ বিপর্যয়ের হাত সভ্যতাকে রক্ষার জন্য কাজ করতে হবে। ’৭৫ সালে বঙ্গবন্ধুকে হত্যার পর স্বাধীনতার চেতনাকে হত্যা এবং মৌলবাদী উত্থান হয়েছে এদেশে। এগুলো প্রতিরোধ করতে হবে। তবে এতসব প্রতিকূলতার পরও দেশ নিম্ন আয়ের দেশ থেকে মধ্য আয়ের দেশে উন্নীত হয়েছে। আমাদের অনেক অর্জনও রয়েছে। তাই হিংসা বিদ্বেষ বন্ধ করে মানবতাবোধে উজ্জীবিত হয়ে দেশ গঠনে কাজ করা প্রয়োজন।

তিনি শনিবার রাতে ধানম-ির ম্যারিয়ট কনভেনশন সেন্টারে আন্তর্জাতিক সেবা সংগঠন এপেক্স বাংলাদেশের ৫৪তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে প্রধান অতিথির ভাষণে এসব কথা বলেন। বিশেষ অতিথির ভাষণ দেন সংগঠনটির জাতীয় সভাপতি এ্যাডভোকেট নুরুর রহমান, সহসভাপতি এ্যাডভোকেট রেজাউল করিম, ফাউন্ডেশনের সভাপতি টিবে বাড়ৈ তুরুন। এনওয়াইসিডি আব্দুল মতিন এতে সভাপতিত্ব করেন। অনুষ্ঠানে বিজিএমইএর সভাপতি আতিকুল ইসলামকে সম্মাননা দেয়া হয়। এই অনুষ্ঠানে বাংলাদেশের সকল জেলা থেকে পাঁচ শাতাধিক এপেক্সিয়ান অংশ নেন।