১৯ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

মির্জাপুরে ভারতেশ্বরী হোমসের ছাত্রী নিখোঁজ


নিজস্ব সংবাদদাতা, মির্জাপুর, ৫ সেপ্টেম্বর ॥ মির্জাপুরে ভারতেশ্বরী হোমসের দ্বাদশ শ্রেণীর এক ছাত্রী নিখোঁজ হয়েছে বলে জানা গেছে। শুক্রবার বিকেল থেকে শিলা আহমেদ শিখা নামে ওই ছাত্রীকে পাওয়া যাচ্ছে না বলে হোমস কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে। এ ব্যাপারে শুক্রবার রাতে ভারতেশ্বরী হোমসের অধ্যক্ষা প্রতিভা রানী হালদার মির্জাপুর থানায় সাধারণ ডায়েরি করেছেন। তার বাবার নাম সিদ্দিকুর রহমান। বাড়ি ধামরাই উপজেলার বালিয়া গ্রামে।

জানা গেছে, শুক্রবার ছিল ভারতেশ্বরী হোমসে মাসিক সাক্ষাতের দিন (প্যারেন্টস ডে)। শিলার পিতা সিদ্দিকুর রহমান ও মা রেবেকা সুলতানা শুক্রবার সকালে হোমসে মেয়ের সঙ্গে সাক্ষাত করেন এবং দুপুর একটার দিকে মেয়ের জন্য খাবারসহ প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র কিনে দিয়ে বাড়ি চলে যান। সন্ধা ৬ টার দিকে ভারতেশ্বরী হোমস থেকে তাকে মুঠোফোনে জানানো হয় শিলাকে পাওয়া যাচ্ছে না। খবর শুনে রাতেই শিলার পিতা-মাতা ও ভাই হোমসে চলে আসেন। ভারতেশ্বরী হোমসের অধ্যক্ষা এটিকে স্বাভাবিক ঘটনা উল্লেখ করে বলেন, হোমস থেকে শিলাকে পাওয়া না গেলেও পিতা-মাতার সঙ্গে শিলার যোগাযোগ হয়েছে বলে শনিবার সকালে শিলার বাবা সিদ্দিকুর রহমান তাকে অবহিত করেছেন। তবে শিলার বাবা সিদ্দিকুর রহমান বলেন, শনিবার বেলা ১টা পর্যন্ত মেয়ের কোন খোঁজ পাননি।

ময়মনসিংহে ডাকঘরে

একই পদে দুই

দাবিদার

স্টাফ রিপোর্টার,ময়মনসিংহ ॥ প্রধান ডাকঘর ময়মনসিংহ শাখায় পোস্টম্যান পদে দুই দাবিদার হওয়ায় এই পদে নিয়োগ নিয়ে সৃষ্টি হয়েছে জটিলতা। বিষয়টি নিয়ে তদন্ত শুরু হয়েছে। প্রশ্ন উঠেছে কার দাবি সঠিক?

স্থানীয় সূত্র জানায়, প্রায় এক দশক আগের আবেদনের প্রেক্ষিতে ডাকঘর কেন্দ্রীয় সার্কেল-ঢাকা থেকে পোস্টম্যান, রানার ও এমএলএসএস পদে নিয়োগের জন্য সম্প্রতি একটি প্রিন্ট কপি ময়মনসিংহ প্রধান ডাকঘরে আসে। এতে মাস্টার রোলের ৩৯ জনের নাম-পরিচয় প্রকাশ করা হয়েছে। প্রকাশিত তালিকার সূত্র ধরে ময়মনসিংহ সদর উপজেলার মধ্য দাপুনিয়া গ্রামের মৃত হয়রত আলীর পুত্র শহিদুল ইসলাম প্রধান ডাকঘরে যোগাযোগ করেন। শহিদুলের দাবি, ডাক অধিদফতরের অনুমোদিত বালাম বইয়ের ৮০ নম্বর ক্রমিকে এবং ময়মনসিংহ প্রধান ডাকঘরের বালাম বইয়ের ১০ নম্বর ক্রমিকে তার নাম ও জন্মতারিখ লিপিবদ্ধ রয়েছে। অথচ শহিদুলকে এই ডাকঘর কর্তৃপক্ষ জানায়, এই পদে শহিদুল ইসলাম নামে আরও একজন দাবিদার রয়েছে। তবে তার জন্ম তারিখ ও ঠিকানা ভিন্ন। ময়মনসিংহ প্রধান ডাকঘরের ভারপ্রাপ্ত ডেপুটি পোস্ট মাস্টার আমিনুল ইসলাম জনকণ্ঠকে জানান, একই পদে দুই দাবিদার হওয়ায় আপাতত কেউ নিয়োগ পাচ্ছে না। বিষয়টি উর্ধতন কর্তৃপক্ষ তদন্ত করছে বলে উল্লেখ করে তিনি জানান, তদন্তেই বিষয়টির সমাধান হবে।

না’গঞ্জে ত্বকী হত্যার বিচার দাবিতে ১৯ বুদ্ধিজীবীর

বিবৃতি

নিজস্ব সংবাদদাতা, সিদ্ধিরগঞ্জ, নারায়ণগঞ্জ, ৫ সেপ্টেম্বর ॥ নারায়ণগঞ্জের মেধাবী ছাত্র তানভীর মুহাম্মদ ত্বকী হত্যার দ্রুত অভিযোগপত্র প্রদান ও সকল অপরাধীকে গ্রেফতারে প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করে বিবৃতি দিয়েছেন দেশের ঊনিশ বুদ্ধিজীবী। তাঁরা আড়াই বছরেও ত্বকী হত্যার অভিযোগপত্র প্রদান না করায় উদ্বেগ প্রকাশ করেন।

শনিবার দুপুরে সন্ত্রাস নির্মূল ত্বকী মঞ্চের সদস্য সচিব হালিম আজাদ স্বাক্ষরিত বিজ্ঞপ্তি সংযুক্ত করে পাঠানো বিবৃতিতে এই তথ্য জানানো হয়। বিবৃতিতে স্বাক্ষর করেন, অধ্যাপক আনিসুজ্জামান, অধ্যাপক সিরাজুল ইসলাম চৌধুরী, কামাল লোহানী, আহমদ রফিক, অধ্যাপক হাসান আজিজুল হক, অধ্যাপক যতীন সরকার, অধ্যাপক সৈয়দ আনোয়ার হোসেন, সৈয়দ আবুল মকসুদ, এ্যাডভোকেট সুলতানা কামাল, ড. হায়াৎ মামুদ, অধ্যাপক সৈয়দ মনজুরুল ইসলাম, ড. সফিউদ্দিন আহমদ, ডা. সারোয়ার আলী, ড. মালেকা বেগম, আয়েশা খানম, অধ্যাপক শফি আহমেদ, অধ্যাপক আনু মুহাম্মদ, অধ্যাপক এম এম আকাশ ও শিশির ভট্টাচার্য।

সীতাকু-ে জাহাজভাঙ্গা

চাতালে সিলিন্ডার

বিস্ফোরণ ॥ দগ্ধ

চায় শ্রমিক

নিজস্ব সংবাদদাতা,সীতাকু- (চট্টগ্রাম), ৫ সেপ্টেম্বর ॥ সীতাকু-ে শিপ ইয়ার্ডের স্টোররুমে গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণে চার শ্রমিক দগ্ধ হয়েছেন। শনিবার সকাল ৮ টায় উপজেলার বড় কুমিরা শীতল শিপব্রেকিং ইয়ার্ডে এ দুর্ঘটনা ঘটে। দুর্ঘটনায় দগ্ধরা হলেন খুলনা জেলার দিঘলীয়া উপজেলার হাশেম শেখের পুত্র নাদিম, আবদুল হাই শেখের পুত্র আলামীন, কুড়িগ্রাম জেলার রৌমারী উপজেলার হাসেমের পুত্র শাহাজাহান ও মতিউর রহমানের পুত্র মোকছেদুল। জানা যায়,শনিবার সকালে জাহাজে ওঠার আগে পোশাক পরিবর্তনের জন্য স্টোর রুমে প্রবেশ করেন চার শ্রমিক। এ সময় শ্রমিকরা সিগারেট খাওয়ার জন্য দিয়াশলাই ধরালে তাতে সিলিন্ডার বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে। বিস্ফোরণে স্টোর রুমে থাকা ৪ শ্রমিকের পুরো শরীর ঝলসে যায়। এদিকে বিস্ফোরণের পর ইয়ার্ড শ্রমিকরা দগ্ধ চার শ্রমিককে উদ্ধার করে চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে প্রেরণ করেন। হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে চিকিৎসাধীন দগ্ধ চার শ্রমিকের মধ্যে নাদিম ও শাহাজাহানের অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে চিকিৎসক সূত্রে জানা গেছে।