মেঘলা, তাপমাত্রা ৩১.১ °C
 
২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৭, ১০ আশ্বিন ১৪২৪, সোমবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
সর্বশেষ

বার কাউন্সিল নির্বাচনে বিজয়ীদের সংবর্ধনা

প্রকাশিত : ৬ সেপ্টেম্বর ২০১৫
বার কাউন্সিল নির্বাচনে বিজয়ীদের সংবর্ধনা

স্টাফ রিপোর্টার ॥ আইনজীবীদের নিয়ন্ত্রণ ও তদারক সংস্থা বাংলাদেশ বার কাউন্সিলের নব নির্বাচিত সরকার সমর্থক সদস্যদের সংবর্ধনা দেয়া হয়েছে। সংবর্ধনা সভায় বলা হয়, এবার নির্বাচনে আইনজীবী সমাজ ঐক্যবদ্ধ হয়েছিল বলেই আইনজীবী সমন্বয় পরিষদের নিরঙ্কুশ বিজয় অর্জন হয়েছে। এই বিজয়কে আমাদের ধরে রাখতে হবে। সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে বক্তারা আরও বলেন, সারাদেশের সাধারণ আইনজীবীরা এবারের বার কাউন্সিল নির্বাচনে মুক্তিযুদ্ধের সপক্ষের সম্মিলিত আইনজীবী সমন্বয় পরিষদকে ভোট দিয়ে বিজয়ী করেছে। একই সঙ্গে তারা স্বাধীনতা বিরোধী প্রতিক্রিয়াশীল বিএনপি-জামায়াত সমর্থিত প্যানেলকে প্রত্যাখ্যান করেছে। শনিবার সুপ্রীমকোর্ট আইনজীবী সমিতির ভবনের ২ নং হল রুমে এ সংবর্ধনা অনুষ্ঠানের আয়োজন করে আওয়ামী সমর্থক আইনজীবীদের মোর্চা সম্মিলিত আইনজীবী সমন্বয় পরিষদের অংশীদার গণতান্ত্রিক আইনজীবী সমিতি।

সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন গণতান্ত্রিক আইনজীবী সমিতির ভারপ্রাপ্ত সহ-সভাপতি শেখ আখতারুল ইসলাম। অনুষ্ঠানে বিজয়ী নেতাদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, ব্যারিস্টার আমীর-উল ইসলাম, এ্যাডভোকেট আব্দুল বাসেত মজুমদার, এ্যাডভোকেট আব্দুল মতিন খসরু, এ্যাডভোকেট জেড আই খান পান্না, শ ম রেজাউল করিম, এ্যাডভোকেট মোহাম্মদ ইয়াহিয়া এবং এ্যাডভোকেট নজিবুল্লাহ হিরু। গণতান্ত্রিক আইনজীবী সমিতির পক্ষ থেকে বিজয়ী নেতাদের ফুল দিয়ে সংবর্ধনা জানানো হয়।

বাংলাদেশ বার কাউন্সিলের এবারের নির্বাচনে আওয়ামী সমর্থক আইনজীবীদের মোর্চা সম্মিলিত আইনজীবী সমন্বয় পরিষদ ১৪ পদের মধ্যে এগারোটি পেয়ে সংখ্যা গরিষ্ঠতা লাভ করেছে। এছাড়া বিএনপি জামায়াত নেতৃত্বাধীন প্যানেল পেয়েছে তিনটি পদ। তিনবছর পর পর বার কাউন্সিলের নির্বাচন হয়। সারাদেশের আইনজীবীরা মোট ১৪ জনকে ভোটের মাধ্যমে সদস্য নির্বাচিত করেন। এর মধ্যে সাধারণ আসনে সাত এবং সাতটি অঞ্চলভিত্তিক আইনজীবী সমিতির সদস্যদের মধ্য থেকে একজন করে আরও সাতজন নির্বাচিত হন। পরে নিজেদের মধ্যে ভোটাভুটি করে বার কাউন্সিলের ভাইস-চেয়ারম্যান নির্বাচন করা হয়। আর এ্যাটর্নি জেনারেল পদাধিকার বলে কাউন্সিলের চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পালন করেন।

এবার নির্বাচনে ব্যারিস্টার এম আমীর-উল- ইসলামের নেতৃত্বে থাকা সমন্বয় পরিষদের সাধারণ আসনে নির্বাচিত অন্য সদস্যরা হলেন, আবদুল বাসেত মজুমদার, আবদুল মতিন খসরু, জেড আই খান পান্না এবং শ ম রেজাউল করিম। গ্রুপ আসনে নির্বাচিতরা হলেন, কাজী মোঃ নজীবুল্লাহ হিরু (গ্রুপ-এ), এইচ আর জাহিদ আনোয়ার (গ্রুপ-বি), মোঃ ইব্রাহীম হোসেন চৌধুরী (গ্রুপ-সি), পারভেজ আলম খান (গ্রুপ-ই), মোঃ ইয়াহিয়া (গ্রুপ-এফ) ও মোঃ রেজাউল করিম-১ (গ্রুপ-জি)। উল্লেখ্য সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে ব্যারিস্টার এম আমিরুল ইসলাম ও আব্দুল বাসেত মজুমদারের সমর্থকদের মধ্য পাল্টাপল্টি সেøাগান দেয়া হয়। পরে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়ে যায়।

প্রকাশিত : ৬ সেপ্টেম্বর ২০১৫

০৬/০৯/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

শেষের পাতা



শীর্ষ সংবাদ: