১৮ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

চট্টগ্রামে শিবির ক্যাডার সাজ্জাদের সহযোগী আরমান বন্দুকযুদ্ধে নিহত


চট্টগ্রামে শিবির ক্যাডার সাজ্জাদের সহযোগী আরমান বন্দুকযুদ্ধে নিহত

স্টাফ রিপোর্টার, চট্টগ্রাম অফিস ॥ চট্টগ্রামে পুলিশের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে ‘আরমান বাহিনী’র প্রধান আরমান ওরফে হাজারী আরমান (৩০) নিহত হয়েছে। শনিবার ভোরে চান্দগাঁওয়ের শমসেরপাড়া এলাকায় বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা ঘটে। এর আগে আরমানকে রাত আড়াইটার দিকে গ্রেফতার করেছিল পুলিশ। স্বীকারোক্তি অনুযায়ী অবৈধ অস্ত্র উদ্ধারে আরমানকে নিয়ে শমসেরপাড়া এলাকার আরমান হাউজিং সোসাইটিতে গেলে পুলিশের সঙ্গে তার সহযোগীদের বন্দুকযুদ্ধ হয়। একপর্যায়ে আরমানও পুলিশের কাছ থেকে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে। এ সময় বন্দুকযুদ্ধে সে নিহত হয়।

চান্দগাঁও থানা সূত্রে জানা গেছে, শিবির ক্যাডার সাজ্জাদের সহযোগী ছিল আরমান। ভারতে সাজ্জাদ পলাতক থাকলেও আরমান সাজ্জাদের নামেই এলাকায় চাঁদাবাজিসহ বিভিন্ন অপকর্ম করত। এলাকাবাসীর পক্ষ থেকেও বিভিন্ন সময়ে থানায় অভিযোগ দেয়া হয় আরমানের বিরুদ্ধে। সাজ্জাদ বাহিনীর শীর্ষ ক্যাডার ম্যাক্সন ও আরেক সহযোগী সরোয়ারের নির্দেশনায় চলত আরমান। শমসেরপাড়া এলাকায় চাঁদাবাজি, ভূমি দখল, এমনকি ভবন নির্মাণেও সে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করত। তাঁর বিরুদ্ধে নগরীর বিভিন্ন থানায় ২৩টি মামলা ও অর্ধশত জিডি রয়েছে। কয়েকটি মামলায় তার বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানাও ছিল। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে চান্দগাঁও থানা পুলিশ আরমানকে গ্রেফতারে শুক্রবার গভীর রাতে অভিযান চালায়। রাত তিনটার দিকে তাকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়। থানায় নিয়ে আসার পর তাকে জিজ্ঞাসাবাদে অবৈধ অস্ত্র এলাকায় রয়েছে বলে স্বীকারোক্তি দিলে তাকে নিয়ে পুলিশ অভিযানে নামে। শমসেরপাড়া এলাকার আরমান হাউজিং সোসাইটিতে পৌঁছা মাত্র তার বাহিনীর সদস্যরা আরমানকে ছিনিয়ে নিতে পুলিশের ওপর গুলি ছোড়ে। পুলিশও এ সময় পাল্টা গুলি ছোড়ে। এতে আরমানসহ তিনজন গুলিবিদ্ধ হয়। পরে থানা পুলিশ গুলিবিদ্ধ সন্ত্রাসীদের চমেক হাসপাতালে নিয়ে যায়। শনিবার ভোর চারটার দিকে আরমানের মৃত্যু হয়। পুলিশ পাহারায় অপর দুজনের চিকিৎসা চলছে।

সম্পর্কিত:
পাতা থেকে: