মেঘলা, তাপমাত্রা ৩১.১ °C
 
২২ সেপ্টেম্বর ২০১৭, ৭ আশ্বিন ১৪২৪, শুক্রবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
সর্বশেষ

গিনেস বুকে মরিনহোর কীর্তি

প্রকাশিত : ৫ সেপ্টেম্বর ২০১৫

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ অসাধারণ সব কীর্তি গড়ে নিজেকে অনন্য উচ্চতায় নিয়ে গেছেন জোশে মরিনহো। এবার জায়গা করে নিলেন গিনেস ওয়ার্ল্ড রেকর্ডস বুকে। পর্তুগালের এই অভিজ্ঞ কোচের ভিন্ন ভিন্ন চার বিশ্ব রেকর্ড জায়গা করে নিয়েছে গিনেস বুকে। এছাড়া গিনেস বুকে জায়গা করে নিয়েছেন তার সাবেক দুই শিষ্য ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো আর ফ্রাঙ্ক ল্যাম্পার্ডও। গিনেস বুকের ২০১৬ সংস্করণে তাদের এই রেকর্ড জায়গা করে নেয়ায় প্রত্যেকেই সার্টিফিকেট পেয়েছেন। চেলসির বর্তমান কোচ জোশে মরিনহোর ৯ বছরের কোচিং ক্যারিয়ারের ৪টি রেকর্ড জায়গা পেয়েছে।

ইংলিশ জায়ান্ট চেলসির প্রথম মেয়াদে দায়িত্ব নিয়ে ২০০৪-০৫ মৌসুমে শিরোপা জিতেছিলেন মরিনহো। সেবার ৯৫ পয়েন্ট অর্জন করে ব্লুজদের শিরোপা উপহার দেন তিনি। যা এখন পর্যন্ত ইংলিশ প্রিমিয়ার লীগের ইতিহাসে সর্বাধিক পয়েন্ট অর্জনের ঘটনা। এই রেকর্ডটি গিনেস বুকে জায়গা করে নিয়েছে। ওই মৌসুমে তার দল মাত্র ১৫ গোল হজম করে। যা প্রিমিয়ার লীগে যে কোন মৌসুমে সবচেয়ে কম গোল খাওয়ার ঘটনা। এছাড়া দ্বিতীয় দফায় চেলসির দায়িত্ব পালন করা অবস্থায় তার দল নিজেদের মাঠ স্ট্যামফোর্ড ব্রিজে টানা ৭৭ ম্যাচে অপরাজিত থাকার রেকর্ড গড়ে। গত মৌসুমে তাদের এই জয়রথ থামায় সান্ডারল্যান্ড। ইপিএলে যে কোন দলের নিজেদের মাঠে টানা অপরাজিত থাকার লম্বা ঘটনা এটি। এছাড়া সব মিলিয়ে নিজের মাঠে অপরাজিত থাকার লম্বা রেকর্ডও মরিনহোর দখলে। পর্তুগালের ক্লাব পোর্তো, ইতালির ক্লাব ইন্টার মিলান, স্প্যানিশ ক্লাব রিয়াল মাদ্রিদ ও ইংলিশ ক্লাব চেলসির হয়ে ৯ বছরের কোচিং ক্যারিয়ারে নিজেদের মাঠে কোন হার ছিল না মরিনহোর। টানা ১৫১ ম্যাচ অপরাজিত থাকার পর গত মৌসুমে চেলসিকে সান্ডারল্যান্ড হারালে মরিনহোর এই রেকর্ড আর দীর্ঘ হয়নি। স্পেশাল ওয়ানের চতুর্থ রেকর্ড হলো উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লীগে সবচেয়ে কম বয়সী কোচ হিসেবে ১০০ ম্যাচ পরিচালনা। ২০১২ সালে ম্যানচেস্টার সিটির ইত্তিহাদ স্টেডিয়ামে রিয়াল মাদ্রিদের কোচ হিসেবে এই রেকর্ড গড়েছিলেন তিনি। তখন তার বয়স ছিল ৪৯ বছর ১২ দিন। অন্যদিকে সাবেক চেলসির তারকা ফুটবলার ফ্রাঙ্ক ল্যাম্পার্ডের নাম গিনেস বুকে জায়গা পাওয়ার কারণ সাবেক ক্লাবের বিপক্ষে বেশি গোল করেছেন তিনি। চেলসির আগে ওয়েস্ট হ্যাম ও সোয়ানসি সিটির হয়ে খেলেন। ব্লুজদের ছেড়ে ম্যানচেস্টার সিটি হয়ে এখন নিউইয়ার্ক সিটিতে খেলছেন ল্যাম্পার্ড। সব মিলিয়ে যে কোন সাবেক ক্লাবের বিপক্ষে সর্বোচ্চ ৩৯ গোল তার। এর আগে সাবেক ক্লাবের বিপক্ষে ৩৮ গোলের রেকর্ড ছিল এ্যান্ডি কোলের। আর ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো লা লিগায় সর্বাধিক ২৭ হ্যাটট্রিক করে গিনেস বুকে জায়গা করে নিয়েছেন। তার আগে ২৪ হ্যাটট্রিকের রেকর্ডটি বার্সিলোনার আর্জেন্টাইন স্ট্রাইকার লিওনেল মেসির দখলে ছিল।

প্রকাশিত : ৫ সেপ্টেম্বর ২০১৫

০৫/০৯/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


শীর্ষ সংবাদ: