১৫ ডিসেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট ২ ঘন্টা পূর্বে  
Login   Register        
ADS

মুগ্ধতা ছড়াচ্ছেন সোহেল!


স্পোর্টস রিপোর্টার॥ এই ক্রীড়াভুবনের ক্রীড়ামঞ্চে অসংখ্য ক্রীড়ার মধ্যে সবচেয়ে জনপ্রিয় কোনটি? সবাই এক কথায় জবাব দেবেন ফুটবল। এ খেলার অনুরাগীদের দৃষ্টি নিবদ্ধ থাকে তাদের ওপর যারা গোল করেন। কিন্তু গোলরক্ষক যদি বিপক্ষের আক্রমণকে প্রতিহত না করতেন, তাহলে দল হারবে। কাজেই স্ট্রাইকার-মিডফিল্ডার-ডিফেন্ডারদের চেয়ে কোন অংশে কম গুরুত্বপূর্ণ নন একজন গোলরক্ষক। গোলপোস্টের অতন্দ্র প্রহরী হিসেবে যুগে যুগে খ্যাতিমান হয়েছেন লেভ ইয়াসিন, গর্ডন ব্যাঙ্কস, পিটার শিলটন, দিনো জফ, সেপ মেয়ার, অলিভার কান, পিটার স্মাইকেল, পিটার চেক, জোসে লুই চিলাভার্ট, রেনে হিগুইতা, ওয়াল্টার জেঙ্গা, ফাবিয়ান বার্থেজ, ভ্যান ডার সার, জিয়াইনলুজি বুফন, ইকার ক্যাসিয়াস, সার্জেই গয়কোচিয়া, হ্যারল্ড শুমাখার, রিনাত দাসায়েভ, প্যাট্রিক জেনিংস প্রমুখ। বাংলাদেশের বিখ্যাত গোলরক্ষকের মধ্যে আছেন সান্টু, কানন, মোহসীন, আমিনুল, বিপ্লবরা। একদিন এদের কাতারে অধিষ্ঠিত হওয়ার সমূহ সম্ভাবনা আছে তরুণ সম্ভাবনাময় গোলরক্ষক শহীদুল আলমের।

শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাব লিমিটেডের গোলরক্ষক সোহেল। জাতীয় দলে খেলছেন প্রায় বছর দুয়েক। তবে এখনও নিয়মিত হতে পারেননি। তবে বাংলাদেশ জাতীয় দলের সর্বশেষ খেলা দুটি ম্যাচে যে পারফর্ম করেছেন, তা দেখে যেকোন ফুটবলপ্রেমীই বলতে বাধ্য হয়েছেন অসাধারণ খেলেছেন তিনি।

অস্ট্রেলিয়া যাওয়ার আগে মালয়েশিয়ায় গিয়ে গত ২৯ আগস্ট মালয়েশিয়া জাতীয় দলের সঙ্গে একটি ফিফা প্রীতি ম্যাচে চরম রক্ষণাত্মক খেলে গোলশূন্য ড্র করে বাংলাদেশ। ওই ম্যাচে ৫-৬টি অসাধারণ সেভ করেন দীর্ঘদেহী সোহেল। ওই ম্যাচের পর বাংলাদেশ জাতীয় দলের সাবেক গোলরক্ষক বিপ্লব ভট্টাচার্য্য জনকণ্ঠকে বলেছিলেন, ‘অস্ট্রেলিয়ার মতো শক্তিশালী দলের সঙ্গে রক্ষণাত্মক ধরনের খেলার মহড়াই হয়তো বাংলাদেশ দিয়েছে মালয়েশিয়ার সঙ্গে। সোহেল যেভাবে খেলে নিজেকে প্রমাণ করেছে, তাতে মনে হচ্ছে এই মুহূর্তে ও-ই অন্যদের চেয়ে বেটার।