২২ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট ৬ ঘন্টা পূর্বে  
Login   Register        
ADS

হবিগঞ্জে স্কুল ছাত্রী লাঞ্চনা॥ মূর হোতা রুহুলের আত্মসর্ম্পন


হবিগঞ্জে স্কুল ছাত্রী লাঞ্চনা॥ মূর হোতা রুহুলের আত্মসর্ম্পন

নিজস্ব সংবাদদাতা,হবিগঞ্জ ॥ প্রেমের প্রস্তাবে সাড়া না দেয়ায় হবিগঞ্জ শহরে এক স্কুল ছাত্রীকে উত্যক্ত, প্রকাশ্যে রাজপথে তাকে লাঞ্চিত ও পরবর্তীতে সহপাঠিদের দ্বারা ভিডিও চিত্র ফেইস বুকে ছড়িয়ে দেয়ার পর নাগরিক সমাজের আন্দোলনের চাপে শুক্রবার দুপুরে বখাটে চক্রের মুল হোতা রুহুল আমীন সদর থানায় আত্মসমর্পন করেছে। তবে তার এই ঘৃন্য কাজে সহায়তাকারীরা এখনও ধরা-ছোয়ার বাইরে থাকায় পুলিশী তৎপরতার নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম সহ জেলার সর্বত্র সৃষ্ট তুমুল প্রতিবাদের ঝড় অব্যাহত রয়েছে। এহেন ঘটনা নিয়ে পুলিশের নীরব ভূমিকা ও দায়িত্ব-জ্ঞানহীন বক্তব্যে অসন্তোষ্ট হয়ে তরুন প্রজন্মের ডাকা নাগরিক সমাজের ব্যানারে শুক্রবার সকাল সাড়ে ১০টায় হবিগঞ্জ শহরের রাজপথে নেমে এসে প্রতিবাদ স্বরূপ বিশাল মানব বন্ধন-সমাবেশ করে শিক্ষক-ছাত্র, সাংবাদিক-অভিভাবক সহ বিভিন্ন পেশার শত শত ক্ষুব্ধ মানুষ। সমাবেশ থেকে বক্তারা এই ন্যাক্কার জনক ঘটনার নায়ক বখাটে রুহল আমীন সহ তার সহায়তাকারীদেরকে গ্রেফতারে টালবাহানার জন্য হবিগঞ্জ সদর থানার বির্তকিত ওসি নাজিম উদ্দিনের অবিলম্বে অপসারন এবং আগামী ২৪ ঘন্টার মধ্যে উক্ত বখাটে চক্রকে গ্রেফতার দাবী জানানো হয়।

পুলিশ ও নানা সূত্র জানায়, হবিগঞ্জ উচ্চ বিদ্যালয়ের ৮ম শ্রেনীতে পড়–য়া ওই ছাত্রী গত ২৬ আগষ্ট বাসায় ফেরার উদ্দেশ্যে স্কুল থেকে বের হওয়া মাত্রই বখাটে রুহুল আমীন আরও একটি মেয়ের সাথে তার গতিরোধ করে। এক পর্যায়ে মেয়েটি দেহে হাত দিয়ে ধাক্কা শুধু নয়, অনবরত চড়-থাপ্পরও মারতে থাকে। এতেও সে ক্ষান্ত না হয়ে মেয়েটি ও তার পরিবারের সদস্যদেরকে হাত-পা কেটে ফেলার হুমকী দিয়ে পালিয়ে যায়। এসময় এই বখাটের কতিপয় সহযোগি দৃশ্যটি মোবাইলে ভিডিও করে এবং পরবর্তীতে পলাশ নামে এক যুবকের সহযোগিতায় তা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইস বুকে ছড়িয়ে দেয়া হয়। এদিকে এই ভিডিও চিত্র ফেইস বুকে দেখে গতকাল বৃহস্পতিবার রাত জুড়ে এবং শুক্রবার দুপুর পর্যন্ত হাজার হাজার বিবেক সম্পন্ন নারী-পুরুষ শেয়ার করে এবং কমেন্ট করে ঘটনার নিন্দা জানিয়ে অবিলম্বে এই বখাটে চক্রকে গ্রেফতারের দাবী জানায়। এমনকি বিষয়টি জেলা প্রশাসক সাবিনা আলম ও পুলিশ সুপার জয়দেব কুমার ভদ্রকে সাংবাদিক সহ সুশীল সমাজের কর্তা ব্যক্তিরা অবহিত করলে দ্রুত বখাটে চক্রকে গ্রেফতারের আশ্বাস মেলে