২১ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট ৩ ঘন্টা পূর্বে  
Login   Register        
ADS

ভোলায় বন্যায় ক্ষতিগ্রস্তদের মাঝে বাণিজ্য মন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ


ভোলায় বন্যায় ক্ষতিগ্রস্তদের মাঝে বাণিজ্য মন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ

নিজস্ব সংবাদদাতা, ভোলা ॥ বাণিজ্য মন্ত্রী অভিযোগ করে বলেন, বিএনপির আমলে শত শত কোটি টাকা বরাদ্ধ ছিলো। তা দিয়ে যদি ব্ল্ক ফেলা হতো তা হলে আজ নদী ভাঙ্গন থাকতো না। বিএনপির আমলে পানি মন্ত্রীর বাড়ি ছিলো ভোলার লালমোহন। ৮০ কোটি টাকার ব্যাগ ফেলেছে তা এক বছরে শেষ।

বাণিজ্য মন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ বলেছেন, ভোলায় নদী ভাঙ্গন রোধে নতুন পরিকল্পনা নেয়া হয়েছে। নেদারল্যান্ড সরকারের অর্থায়নে পাঁচশ কোটি টাকার বেশী ব্যায়ে ভোলায় ইলিশা থেকে দৌলতখান পর্যন্ত ১৫ কিলোমিটার কাজ হবে। এই কাজ বাস্তবায়ন হলে চির দিনের জন্য ভোলা নদী ভাঙ্গনের হাত থেকে রক্ষা পাবে। সেই পরিকল্পনা আমরা গ্রহন করেছি। তিনি আরো বলেন, একনেকের মিটিং এ প্রধান মন্ত্রী বলেছেন, নদী ভাঙ্গন রোধে একটি সমন্নিত পরিকল্পনা গ্রহন করার জন্য বলেছেন। সেই পরিকল্পনার আওতায়ই আমরা ভোলাকে রক্ষার জন্যবাস্ত পদক্ষেপ আমরা গ্রহন করবো।

আজ শুক্রবার সকালে ভোলায় বন্যার পানির তোরে ইলিশা রাজাপুরে নদী ভাঙ্গনে ৬ শত ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারের মাঝে ত্রান বিতরন কালে বাণিজ্য মন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ এসব কলা বলেন। এসময় তিনি ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারের মাঝে নগদ ৩৫ লক্ষ টাকা বিতরন করেন। এর আগে তিনি ইলিশা চডার মাথা এলাকায় নদী ভাঙ্গন এলাকা পরির্দশন করেন। এসময় তিনি বলেন, ভোলায় কোন সমস্যা নেই একটাই সমস্যা নদী ভাঙ্গন। গত প্রায় এক মাসে ভাঙ্গনে ওই এলাকায় বহু পরিবার ভিটামাটি হারিয়ে নিঃস্ব হয়ে পড়েন। ভাঙ্গন রোধে ইতো মধ্যে প্রায় ৩ কোটিটাকা ব্যায়ে জিও ভ্যাগ ফেলে সাময়িক ভাঙ্গন রোধ হয়েছে।

ত্রান বিতরন কালে উপস্থিত ছিলেন, ভারপ্রাপ্ত জেলা প্রশাসক মাহামুদুর রহমান, ভোলা জেলা পরিষদ প্রশাসক আবদুল মমিন টুলু,ভোলা পৌর মেয়র মোহাম্মদ মনিরুজ্জামানসহ দলীয় নেতাকর্মী বৃন্দ ।