২৫ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে দুই মামলার পরবর্তী সাক্ষ্য ১০ সেপ্টেম্বর


স্টাফ রিপোর্টার ॥ বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে দুদকের দায়ের করা জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট ও জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলার পরবর্তী সাক্ষ্যগ্রহণের জন্য আগামী ১০ সেপ্টেম্বর দিন ধার্য করেছেন আদালত। বৃহস্পতিবার পুরান ঢাকার বকশীবাজারের কারা অধিদফতরের প্যারেড মাঠে স্থাপিত অস্থায়ী এজলাসে ঢাকার তিন নম্বর বিশেষ জজ আদালতের বিচারক আবু আহমেদ জমাদার এ দিন ঠিক করেন।

এ দিন জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলার জব্দ তালিকার সাক্ষী সোনালী ব্যাংকের সিনিয়র অফিসার ইনসান উদ্দিন আহমেদকে আসামিপক্ষের আইনজীবী জেরা করেন। মামলার প্রধান আসামি বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়ার পক্ষে তাঁকে জেরা করছেন এ্যাডভোকেট আমিরুল ইসলাম। শুনানির জন্য ধার্য থাকলেও বৃহস্পতিবার আদালতের অনুমতি নিয়ে হাজির হননি খালেদা জিয়া। তাঁর পক্ষে এ্যাডভোকেট খন্দকার মাহবুব হোসেন ও মাহবুব উদ্দিন খোকনসহ আইনজীবীরা হাজিরা দিয়েছেন। দুই মামলার জামিনে থাকা আসামি এবং তাদের আইনজীবীরা হাজির হয়েছেন। দুদকের পক্ষে ছিলেন সংস্থাটির আইনজীবী এ্যাডভোকেট মোশাররফ হোসেন কাজল।

এ পর্যন্ত জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় সাক্ষ্য নেয়া হয়েছে চার সাক্ষীর। তাদের মধ্যে মামলার বাদী ও প্রথম সাক্ষী দুদকের উপপরিচালক হারুন অর রশিদ এবং মামলার রেকর্ডিং অফিসার মাহজুজুল হক ভূঁইয়াকে আসামিপক্ষের জেরা শেষ হয়েছে, অন্যদের জেরা চলছে। অন্যদিকে জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় এ পর্যন্ত সাক্ষ্য দিয়েছেন মামলার বাদী ও প্রথম সাক্ষী দুদকের উপপরিচালক হারুন অর রশিদ, তবে তাকে জেরা বাকি রয়েছে।

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় রাষ্ট্রপক্ষের সাত সাক্ষীর অন্য ছয়জন হচ্ছেন- সোনালী ব্যাংকের ম্যানেজার হারুনুর রশিদ, অফিসার (ক্যাশ) শফিউদ্দিন মিয়া, আবুল খায়ের, প্রাইম ব্যাংকের সিনিয়র অফিসার সিরাজুল ইসলাম, সিনিয়র এ্যাসিস্ট্যান্ট ভাইস প্রেসিডেন্ট সৈয়দা নাজমা পারভীন ও ভাইস প্রেসিডেন্ট আফজাল হোসেন। বৃহস্পতিবার এসব সাক্ষীও আদালতে হাজির ছিলেন।