২১ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট ৫ ঘন্টা পূর্বে  
Login   Register        
ADS

গ্রামীণ ফোনের ৫০ লাখ ফ্যান অর্জনে ৫ দিনব্যাপী বিজয় উদ্যাপন


গ্রামীণফোন তার ফেসবুক পাতায় ৫০ লাখ ফ্যান অর্জন করেছে (.পড়স/ মৎধসববহঢ়যড়হব)। গ্রাহকদের ধন্যবাদ দেয়ার মাধ্যমে এই সাফল্য উদ্যাপন করার জন্য গ্রামীণফোনের প্রধান বিপণন কর্মকর্তা ইয়াসির আজমান প্রতিষ্ঠানটির কর্মীদের নিয়ে বৃহস্পতিবার বসুন্ধরায় এর কর্পোরেট অফিসের সামনে বিজয় সেলফি তোলেন। প্রতিষ্ঠানটি এর ‘সবার জন্য ইন্টারনেট’ নিশ্চিতকরণ প্রয়াসের আরেকটি মাইলফলক অর্জন করার কারণেই এই উদ্যাপন। গ্রামীণফোনের ফেসবুক পেজ গ্রাহকসেবা দেয়ার ক্ষেত্রে অত্যন্ত কার্যকরী ও প্রয়োজনীয় অনলাইন পোর্টালে পরিণত হয়েছে। প্রতিষ্ঠানটির একদল উদ্যমী কর্মী সবসময় গ্রাহকসেবা নিশ্চিত করতে দিনের ২৪ ঘণ্টা নিরলস কাজ করে যাচ্ছে। ৫ দিন ধরে বিজয় উদ্যাপনের অংশ হিসেবে গ্রামীণফোন গ্রাহকরাও পাচ্ছেন বিনামূল্যে জিপি মিউজিক স্ট্রিমিং ৫০টি গান ডাউনলোডের সুযোগ এবং প্রিপেইড গ্রাহকদের একটি বিশেষ ডাটা প্যাকেজ যা পরবর্তীতে জানানো হবে।

জনপ্রিয় সঙ্গীতশিল্পীরা উপস্থিত থাকছেন রেডিও ফুর্তির লাইভ জিপি লাউঞ্জ অনুষ্ঠানে। তারা গাইবেন গ্রামীণফোনের ফেসবুক পেজ থেকে আসা ফ্যানদের অনুরোধের গান। পাশাপাশি ঢাকা, চট্টগ্রাম ও সিলেটের গ্রামীণফোন গ্রাহকরা পাচ্ছেন ফুড পান্ডায় অর্ডার দেয়া খাবারের ফ্রি হোম ডেলিভারি।-বিজ্ঞপ্তি

ইউজিসির জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তাদের মধ্যে ট্যাব বিতরণ

বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের উপসচিব, যুগ্মসচিব এবং সমপর্যায়ের কর্মকর্তাদের মধ্যে মিডিয়াপ্যাড (ট্যাব) বিতরণ অনুষ্ঠান ইউজিসি অডিটরিয়ামে বৃহস্পতিবার অনুষ্ঠিত হয়েছে। ইউজিসি চেয়ারম্যান প্রফেসর আবদুল মান্নান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি থেকে কর্মকর্তাদের মধ্যে ট্যাব বিতরণ করেন। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন ইউজিসি সদস্য- প্রফেসর ড. মোহাম্মাদ মোহাব্বত খান, প্রফেসর ড. মোঃ আখতার হোসেন, প্রফেসর ড. মোহাম্মদ ইউসুফ আলী মোল্লা।-বিজ্ঞপ্তি

ইউনিলিভারের ‘তোমার স্বপ্ন করো সত্যি’ ক্যাম্পেন শুরু

আত্মপ্রত্যয়ী নারীর স্বপ্ন পূরণের পথে পাশে থাকার লক্ষ্য নিয়ে শুরু হয়েছিল ইউনিলিভার বাংলাদেশ লিমিটেডের সামাজিক উন্নয়নমূলক উদ্যোগ, ফেয়ার এ্যান্ড লাভলী ফাউন্ডেশন আয়োজিত ‘তোমার স্বপ্ন করো সত্যি’ ক্যাম্পেন।

এ ক্যাম্পেনের কার্যক্রম অনুসারে প্রাথমিকভাবে উচ্চশিক্ষা, কারিগরি শিক্ষা এবং ব্যবসা শুরু করতে আগ্রহী নারীদের কাছ থেকে আবেদনপত্র আহ্বান করা হয়। এ আহ্বানে ব্যাপক সাড়া পাওয়া গেছে। সারাদেশ থেকে এ পর্যন্ত ৭৫৫০ আবেদনপত্র জমা পড়েছে। আবেদনকারী নারীদের মধ্য থেকে সবচেয়ে যোগ্য ৩৫৫ নারীকে নির্বাচন করে তাদের উচ্চশিক্ষার জন্য স্কলারশিপ এবং কারিগরি ট্রেনিংয়ের অনুদান বা ব্যবসা শুরু করার মূলধন প্রদান করা হবে। এ লক্ষ্যে ইতোমধ্যেই দেশের ৬ বিভাগে শুরু হয়েছে ইন্টারভিউ সেশন। গত ২৯ আগস্ট অনুষ্ঠিত হয়েছে সিলেট বিভাগের ইন্টারভিউ সেশন। এ সেশনে বিচারকরম-লী সিলেট বিভাগের ৪৯ প্রার্থীর মধ্য থেকে নির্বাচন করেছেন ২৬ নারীকে। -বিজ্ঞপ্তি।