১৯ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

বাগেরহাটে ছাত্রী নিপীড়নকারী সেই শিক্ষক গ্রেফতার


বাগেরহাটে ছাত্রী নিপীড়নকারী সেই শিক্ষক গ্রেফতার

স্টাফ রিপোর্টার, বাগেরহাট॥ বাগেরহাটের মোরেলগঞ্জে ১০ম শ্রেণির ছাত্রীকে যৌন নিপীড়নকারী প্রধান শিক্ষক পরবন্ধু সরকারকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। হাইকোর্টের একটি বেঞ্চ রুল নিশি জারির পর থানা পুলিশ ওই ছাত্রীর পিতা শঙ্কর লাল বিশ্বাসকে খুজে বের করে বুধবার রাতে মামলা নিয়ে আসামি পরবন্ধু সরকারকে বৃহস্পতিবার সকালে গ্রেফতার করে। পরবন্ধু সরকার(৫০)শৌলখালী সুহাসিনী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক।

কর্তৃপক্ষের লিখিত অভিযোগের পরেও ছাত্রীকে যৌন নিপীড়নের ঘটনায় থানা পুলিশ মামলা না নেওয়ায় গত ৩১ আগষ্ট বিদ্যালয়ের সভাপতি এ্যাডভোকেট প্রবীর রঞ্জন হালদার হাইকোর্টে একটি রিট পিটিশন দায়ের করেন। এতে স্বরাষ্ট্র সচিব, আইজিপি, বাগেরহাট জেলা পুলিশ সুপার ও মোরেলগঞ্জ থানার ওসিকে প্রতিপক্ষ করা হয়। ওই পিটিশনের প্রেক্ষিতে বিচারপতি কাজী রেজাউল হক ও বিচারপতি আবু তাহের মোহাম্মদ সাইফুর রহমানের যৌথ বেঞ্চ আগামী ৭ সেপ্টেম্বরের মধ্যে ছাত্রী নিপিড়নের বিষয়ে কি ব্যবস্থা গ্রহন করা হয়েছে তার ব্যাখ্যা চেয়েছেন প্রতিপক্ষের কাছে। পুলিশ এই রুল নিশির কপি পেয়ে বুধবার রাতে হাইকোর্টের নির্দেশ মতে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন ২০০০ এর ১০ ধারা (যৌন নিপিড়িন) ও ৫০৬ দন্ডবিধিতে থানায় মামলা রেকর্ড় করে। মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা থানার ওসি(তদন্ত) তারক বিশ্বাস মোরেলগঞ্জ সদর বাজার থেকে পরবন্ধুকে গ্রেফতার করেন।

প্রসঙ্গত: গত ৬-জুন পরীক্ষা চলাকালে ১০ম শ্রেণির এক ছাত্রী অসুস্থ হয়ে পড়েন। ওই ছাত্রীকে সেবা করার নামে কমনরুমে নিয়ে যৌন নিপীড়ন করেন প্রধান শিক্ষক পরবন্ধু। ওইদিনই ছাত্রিটি এ বিষয়ে অভিযোগ দিলে রোষানলে পড়েন পরবন্ধু। অভিভাবক ও এলাকাবাসির চাপের মুখে তিনি গা ঢাকা দেন। পরে ম্যানেজিং কমিটি ভিখিতভাবে থানা পুলিশকে অবহিত করে। কিন্তু পুলিশ প্রভাবশালী এক নেতার চাপে আইনগত কোন ব্যবস্থা বা মামলা নেয়নি। নিরুপায় হয়ে এ ঘটনার বিচারের দাবিতে বিদ্যালয় এলাকায় ব্যপক বিক্ষোভ ও মানববন্ধন করে শিক্ষার্থীরা। অভ্যান্তরীন তদন্ত শেষে পরবন্ধুকে সাময়ীক বরখাস্তও করে ম্যানেজিং কমিটি।