১৫ ডিসেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট ৮ ঘন্টা পূর্বে  
Login   Register        
ADS

হ্যালেপ-আজারেঙ্কা দ্বিতীয় পর্বে


হ্যালেপ-আজারেঙ্কা দ্বিতীয় পর্বে

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ ইউএস ওপেনের দ্বিতীয় পর্বে জায়গা করে নিয়েছেন সিমোনা হ্যালেপ, পেত্রা কেভিতোভা, সারা ইরানি, সামান্থা স্টোসার, এ্যাঞ্জেলিক কারবার, ক্যারোলিন ওজনিয়াকি এবং ভিক্টোরিয়া আজারেঙ্কা। এছাড়াও মহিলা এককে প্রথম পর্বের বাধা পেরিয়েছেন জার্মানির আন্দ্রে পেটকোভিচ, সাবিনে লিসিকি, ইতালির ফ্লাভিয়া পেনেত্তার মতো তারকারা। তবে টুর্নামেন্টের প্রথম পর্ব থেকেই ছিটকে পড়েছেন লুসি সাফারোভা।

মৌসুমের শেষ গ্র্যান্ডসøাম টুর্নামেন্ট ইউএস ওপেনে দ্বিতীয় বাছাই হিসেবে খেলতে নামেন সিমোনা হ্যালেপ। মারিয়া শারাপোভা টুর্নামেন্ট শুরুর আগেই ছিটকে পড়ার কারণে সেরেনা উইলিয়ামসের পরই ফেবারিটের তকমাটা গায়ে মাখানো তারা। শুরুটাও করেছেন নিজের মতো করে। মঙ্গলবার সহজ জয়েই দ্বিতীয় পর্বের টিকেট নিশ্চিত করেছেন বিশ্বের দুই নাম্বার খেলোয়াড় সিমোনা হ্যালেপ। রোমানিয়ার এই তারকা খেলোয়াড় এদিন নিউজিল্যান্ডের মারিনা ইরাকোভিচের বিপক্ষে যখন ৬-২ এবং ৩-০ গেমে এগিয়ে ঠিক তখনই ৯৯তম র‌্যাঙ্কধারী খেলোয়াড় মারিনা ইরাকোভিচ হাঁটুর ইনজুরির কারণে ম্যাচ থেকে সড়ে দাঁড়ান। এর ফলে দ্বিতীয় পর্বের টিকেট পেতে খুব বেশি সমস্যা হয়নি দ্বিতীয় বাছাই হ্যালেপের। এই জয়ের পর সন্তুষ্ট হ্যালেপ। ম্যাচ শেষের সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, ‘শুরুটা দারুণভাবেই করতে পেরেছি। প্রথম থেকেই আক্রমণাত্মক খেলেছি এবং আজ সেরা খেলাটাই খেলেছি। প্রকৃতপক্ষে এখানে কিভাবে আমার সেরাটা বের করতে হয় তা আমি জানি।’ তবে সেরেনা উইলিয়ামস যেহেতু তার ক্যারিয়ারের স্বর্ণালী সময়ে তাই হ্যালেপও বেশি কিছু প্রত্যাশা করছেন না। এই কথাটা সরাসরিই জানিয়ে দিয়েছেন তিনি, ‘এখানে আমার তেমন কোন প্রত্যাশা নেই। কারণ এখানে সেরেনা আছেন। আমি শুধু আমার সেরা খেলাটাই খেলে যেতে চাই।’

টেনিস র‌্যাঙ্কিংয়ের সাবেক নাম্বার ওয়ান তারকা ভিক্টোরিয়া আজারেঙ্কা। যার বর্তমান সময়টা মোটেই ভাল যাচ্ছে না। ২০১৩ সালে অস্ট্রেলিয়ান ওপেন জয়ের পর আর কোন মেজর শিরোপা নিজের শোকেসে তুলতে পারেননি তিনি। এবার তাই বেলারুশ সুন্দরীর সামনে নতুন চ্যালেঞ্জ। সেই চ্যালেঞ্জটা সহজ জয় দিয়েই শুরু করেছেন তিনি। ইউএস ওপেনের প্রথম পর্বে তিনি ৬-১ এবং ৬-২ গেমে পরাজিত করেন চেক প্রজাতন্ত্রের লুসি হ্রাদেকাকে। ২০১২-১৩ সালে টানা দুইবার অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের শিরোপা জিতেন তিনি। ঠিক এই সময়েই টানা দুইবার ইউএস ওপেনের ফাইনাল খেলেন তিনি। কিন্তু শিরোপা জয়ের মঞ্চ থেকেই হতাশা নিয়ে ফিরতে হয়েছে তাকে। তবে সাবেক নাম্বার ওয়ান এই তারকা এবার স্বরূপে ফিরতে মরিয়া। ইউএস ওপেনের শিরোপা জিততে উন্মুখ হয়ে আছেন পেত্রা কেভিতোভাও। সুদীর্ঘ ক্যারিয়ারে দুটি উইম্বল্ডনের ট্রফি থাকলেও মৌসুমের শেষ গ্র্যান্ডসøাম টুর্নামেন্টেই তিনি কিছুটা নিষ্প্রভ থাকেন। কিন্তু সদ্যসমাপ্ত নিউ হ্যাভেন ওপেনের শিরোপাটা জিতেই ফ্ল্যাশিং মিডোতে যাত্রা শুরু করেন চেক তারকা। বছরের শেষ মেজর টুর্নামেন্টের প্রথম পর্বের বাধাটা খুব সহজেই পেরিয়েছেন তিনি। চেক প্রজাতন্ত্রের এই তারকা খেলোয়াড় এদিন ৬-১ ও ৬-১ গেমে হারান জার্মানির অবাছাই লরা সিগেমুন্ডকে। ইতালির ১৬তম বাছাই সারা ইরানি ৬-০ এবং ৬-১ গেমে জাপানের মায়ো হিবিকে, তারই স্বদেশী ফ্লাভিয়া পেনেত্তা ৬-১, ৩-৬ ও ৬-১ গেমে অস্ট্রেলিয়ার জার্মিলা গাজদোসোভাকে, অস্ট্রেলিয়ার ২২তম বাছাই সামান্থা স্টোসার ৬-৩ ও ৬-৪ গেমে হুন্ডুরাসের টিমিয়া বাবোসকে, জার্মানির এ্যাঞ্জেলিক কারবার ৬-৩ ও ৬-১ গেমে রোমানিয়ার আলেক্সন্ডার ডুলহেরুকে এবং ২৪তম বাছাই কারবারের স্বদেশী সাবিনে লিসিকি ৬-১ ও ৬-৪ গেমে বেলারুশের এ্যালিয়াকসান্দ্রা সানোভিচকে হারিয়ে দ্বিতীয় পর্বের টিকেট নিশ্চিত করেন।