২৩ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

নতুন অস্ট্রেলিয়ার সামনে নতুন বাংলাদেশ!


স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ এশিয়ার বর্তমান চ্যাম্পিয়ন অস্ট্রেলিয়া। সর্বশেষ তিনটি বিশ্বকাপেও খেলেছে। ২০০৬ বিশ্বকাপের দ্বিতীয় পর্বে চারবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়ন ইতালি সকারুদের হারিয়েছিল রেফারির বদান্যতায়। শেষ পর্যন্ত জার্মানিতে অনুষ্ঠিত ওই আসরে চাম্পিয়নও হয়েছিল আজ্জুরিরা। ফুটবলবোদ্ধাদের মতে, বর্তমানে লড়াকু দলগুলোর মধ্যে অন্যতম সেরা অস্ট্রেলিয়া। ইতোমধ্যে এশিয়ার সেরা দলের মর্যাদা পেয়েছে তারা। বিশ্ব ফুটবলেও সেরাদের কাতারে নাম লেখানোর লক্ষ্যে কক্ষপথে আছে দলটি।

এই পরিসংখ্যানটুকুই জানান দেয়, ফুটবলবিশ্বে অস্ট্রেলিয়ার অবস্থান কোথায়। সেই শক্তিশালী দলটির বিরুদ্ধেই বিশ্বকাপ বাছাই ফুটবলে মুখোমুখি হওয়ার অপেক্ষায় লাল-সবুজের দেশ। বাংলাদেশ সময় কাল বিকেলে পার্থের পার্থ ওভাল স্টেডিয়ামে এশিয়ার অঞ্চলের বাছাইপর্বের দ্বিতীয় পর্বের ‘বি’ গ্রুপের ম্যাচে স্বাগতিক অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে মাঠে নামছে সফরকারী বাংলাদেশ। ফিফা র‌্যাঙ্কিংয়ের ৬১ নম্বর দলটির বিরুদ্ধে ভাল কিছু করার স্বপ্ন বুনছে র‌্যাঙ্কিংয়ের ১৭০ নম্বর দল বাংলাদেশ।

এর আগে কখনোই এই দু’দল একে অপরের বিরুদ্ধে খেলেনি। এই প্রথম বাংলাদেশ ও অস্ট্রেলিয়া মুখোমুখি হচ্ছে। এই দিক দিয়ে দু’দলই দু’দলের জন্য নতুন ও অচেনা প্রতিপক্ষ। ম্যাচটির আগে অস্ট্রেলিয়া ফুটবল দল আছে উটকো ঝামেলায়। অর্থ সংক্রান্ত বিষয়ে অস্ট্রেলিয়ার পেশাদার ফুটবলারদের সংগঠন পিএফএ’র সঙ্গে ফুটবল ফেডারেশন অস্ট্রেলিয়ার (এফএফএ) দ্বন্দ্ব চরমে। যে কারণে ফুটবলাররা অনুশীলনও বয়কট করেছেন। এ নিয়ে দলটির কোচ অ্যাঞ্জে পোস্টেকোগলু রীতিমতো ক্ষোভ ঝেড়েছেন। তাঁর রাগান্বিত হওয়ারই কথা! কেননা খুব বেশিদিন হয়নি তিনি অস্ট্রেলিয়া ফুটবল দলের দায়িত্ব নিয়েছেন। ইতোমধ্যে বিশ্ব ফুটবলে বেশ নাম কামিয়েছে সকারুরা। সেই সাফল্য ধরে রাখার চ্যালেঞ্জ এখন পোস্টেকোগলুর সামনে। এ কারণে খেলোয়াড়-ফেডারেশন দ্বন্দে হতাশা প্রকাশ করে অসি কোচ বলেন, আমার তো দল নির্বাচন, কৌশল এসব কিছু নিয়েই কথা বলার কথা। দলে এসব নিয়ে যা হচ্ছে, তাতে আমি খুশি নই। খেলোয়াড়দের আমি সব সময় পাই না। যে সময়টুকু পাই, সেটা খুবই দামি। আমি চাই না, এসব নিয়ে কোনো সময় নষ্ট হোক।