মেঘলা, তাপমাত্রা ৩১.১ °C
 
২২ আগস্ট ২০১৭, ৭ ভাদ্র ১৪২৪, মঙ্গলবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
সর্বশেষ

কলাপাড়ায় তিন চিকিৎসককে সনদ দাখিলের নির্দেশ

প্রকাশিত : ২ সেপ্টেম্বর ২০১৫
  • ভুয়া ডিগ্রী

নিজস্ব সংবাদদাতা, কলাপাড়া, ১ সেপ্টেম্বর ॥ কলাপাড়ায় তিন চিকিৎসকের চিকিৎসা সনদ ও বিএমডিসির রেজিস্ট্রেশন দাখিল করার জন্য কলাপাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ লোকমান হাকিম চিঠি দিয়েছেন। ৩০ আগস্ট এই চিঠি দেয়া হয়েছে। এই তিন চিকিৎসক হলেন তৌফিকা জেরিন হক, ডাঃ মোহাম্মদ শরীফ জালাল ও ডাঃ মনির হোসেন। এ তিন জন কলাপাড়া ফেরিঘাট এলাকায় ক্লিনিক ও ওষুধের দোকানে প্রাকটিস করে আসছেন। লোকমান হাকিম তার চিঠিতে চিকিৎসকের তত্ত্বাবধান ব্যতিরেকে এম আর, ডিএন্ডসি করে জনসাধারণের সঙ্গে প্রতারণার কথা উল্লেখ করেছেন। চিকিৎসা সনদসহ এ সংক্রান্ত বৈধ কাগজপত্র দাখিল না করলে তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়ার কথাও চিঠিতে বলা হয়েছে। সঠিক সনদ ছাড়া ভুয়া ডিগ্রি ব্যবহার করে অবৈধভাবে চিকিৎসা করার অভিযোগ এনে জনৈক ব্যক্তি উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কাছে আবেদন করলে উপজেলা স্বাস্থ্য প্রশাসক এমন উদ্যোগ নিয়েছেন।

মানিকগঞ্জে অস্ত্রসহ গ্রেফতার দুই

নিজস্ব সংবাদদাতা, মানিকগঞ্জ, ১ সেপ্টেম্বর ॥ মানিকগঞ্জের শিবালয় উপজেলার আরিচা ঘাট থেকে দেশীয় শাটারগানসহ দুই অস্ত্র ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-৪ এর একটি দল। মঙ্গলবার বেলা ১১টার দিকে র‌্যাব সদস্যরা ওই দুজনকে শিবালয় থানায় হস্তান্তর করেছে।

গ্রেফতারকৃতরা হলেন, রাজবাড়ী জেলার সদর থানার আলীপুর গ্রামের আলীমুদ্দিন মল্লিকের ছেলে মোঃ রবিউল মল্লিক (২৩) একই জেলার ওড়াকান্দা গ্রামের মৃত ওয়াজউদ্দিন বেপারীর ছেলে মোঃ সিদ্দিকুর রহমান (৩২)। পুলিশ জানায়, সোমবার রাত ১০টার দিকে আরিচা ঘাট সংলগ্ন নিহালপুর এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাদের দুজনকে গ্রেফতার করা হয়। এ সময় তাদের কাছ থেকে দেশে তৈরি ২টি শাটারগান উদ্ধার করা হয়। পরে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য র‌্যাব ক্যাম্পে নেয়া হয়। ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে শিবালয় থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা রকিবুজ্জামান জানান, র‌্যাব ওই দুজনকে থানায় হস্তান্তর করেছে। তাদের বিরুদ্ধে অস্ত্র আইনে একটি মামলা হয়েছে।

বাউফলে ১৪ খাল দখল করে স্থাপনা নির্মাণ

নিজস্ব সংবাদদাতা, বাউফল, ১ সেপ্টেম্বর ॥ বাউফল পৌর শহরসহ, কালাইয়া, কালিশুরী, বগা, হাজিরহাট কনকদিয়া ও নুরাইনপুর বন্দরে মালামাল পরিবহন কাজে ব্যবহৃত ১৪টি খাল দখল করে বিভিন্ন ধরনের স্থাপনা নির্মাণ করা হচ্ছে। ফলে নাব্য হারিয়ে খালগুলো এখন মৃত্যুপ্রায়। তাই এসব খাল দিয়ে মালবাহী নৌকা কিংবা ট্রলার চলাচল ব্যাহত হচ্ছে। দেখা গেছে, বাউফল পৌর শহরের পূর্ব দিকে আতাহার গাজী ব্রিক ফিল্ড থেকে পশ্চিমে কাগুজীপুল ভায়া দক্ষিণে নুরিয়া প্রাইমারী স্কুল পর্যন্ত ও গোলাবাড়ি থেকে উত্তরে নুরাইনপুর খেয়াঘাট পর্যন্ত এবং বাউফল জেলা পরিষদের ডাকবাংলো থেকে নগরের হাট পর্যন্ত ৪টি খালসহ মোট ১৪টি খালের দুই পাশের জায়গা স্থানীয়রা দখল করে পাকা বাড়ি ঘর, ব্যবসা প্রতিষ্ঠানসহ বিভিন্ন ধরনের স্থাপনা নির্মাণ করেছে। ইউনিয়ন ভূমি অফিসের এক শ্রেণীর কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের যোগসাজশে এসব খালের দু’পাড় দখল করে নেয়া হচ্ছে। খালের পাড়ের জায়গাগুলো দখল করে নেয়ার পানি প্রবাহে বাধাগ্রস্ত হচ্ছে। ফলে খালগুলো এখন মৃত্যুমুখে পতিত হচ্ছে এবং নাব্যতা না থাকায় নৌকা কিংবা ট্রলারও চলাচল করতে পারছে না। খালের জায়গা দখলমুক্ত করতে প্রশাসনের পক্ষ থেকেও কোন ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে না।

প্রকাশিত : ২ সেপ্টেম্বর ২০১৫

০২/০৯/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

দেশের খবর



শীর্ষ সংবাদ: