১৮ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট ৩ ঘন্টা পূর্বে  
Login   Register        
ADS

দুর্দান্ত জয়ে উচ্ছ্বসিত মরগান


স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে একমাত্র টি২০তে ৫ রানের নাটকীয় জয় পেয়েছে স্বাগতিক ইংল্যান্ড। কার্ডিফে তুমুল প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ ম্যাচে নির্ধারিত বিশ ওভারে ৫ উইকেটে ১৮২ রানের ফাইটিং স্কোর গড়ে ইংলিশরা। জবাবে ৮ উইকেটে ১৭৭Ñএ থামে অতিথি অসিদের সংগ্রহ। ৪৬ বলে অপরাজিত ৭২ রানের পর বোলিংয়ে ১ উইকেট নিয়ে ম্যাচসেরা অলরাউন্ডার মঈন আলি। অসাধারণ জয়ে উচ্ছ্বসিত ইংল্যান্ড অধিনায়ক সফল্যের এ ধারা ওয়ানডেতেও বয়ে নিতে চান। অন্যদিকে হারলেও নিজেদের খেলায় সন্তুষ্ট তরুণ অসি সেনাপতি স্টিভেন স্মিথ। সাউদাম্পটনে পাঁচ ম্যাচ সিরিজের প্রথম ওয়ানডে বৃহস্পতিবার। এর আগে ইংল্যান্ড সফরে পাঁচ টেস্টের এ্যাশেজ ৩-২এ হারে ওয়ানডের বিশ্বচ্যাম্পিয়ন অস্ট্রেলিয়া।

‘এটা সত্যি অসাধারণ এক ম্যাচ। পাঁচ টেস্টের দীর্ঘ সিরিজের পর বেন স্টোকসের বোলিং প্রশংসাযোগ্য। আবারও প্রমাণ করেছে সে ব্যতিক্রম এক পারফর্মার। ফিল্ডিংয়েও অন্যদের চেয়ে আলাদা। এটি কেবল জয় নয়, শক্ত দলের বিপক্ষে অনেক কিছু শেখা। যে শিক্ষাটা ওয়ানডে সিরিজে কাজে লাগবে।’ বলেন মরগান। ইংল্যান্ড ওয়ানডে অধিনায়কের জন্য এটা আসলেই অসাধারণ কিছু। কারণ এ্যালিস্টার কুককে সরিয়ে বিশ্বকাপে তাকে দায়িত্ব দেয়া হয়েছিল। সেখানে গ্রুপ পর্বে বাংলাদেশের কাছে হেরে লজ্জানকভাবে বিদায় নিতে হয়েছিল ইংলিশদের। সেই কুক টেস্ট অধিনায়ক হিসেবে এ্যাশেজ পুনরুদ্ধার করেছে নিজেকে প্রমাণ করেছেন। এবার চ্যালেঞ্জটা মরগানের। একমাত্র টি২০ সাফল্যে ভাল কিছুর ইঙ্গিতই দিলেন ওয়ানডে অধিনায়ক।

দলকে বড় সংগ্রহের পথে ব্যাট হাতেও নেতৃত্ব দিয়েছেন তিনি। ৩৯ বলে ৩ চার ও ৭ ছক্কায় করেছেন ৭৪ রান। সঙ্গে মঈনের ৭২Ñএ ১৮২ রানের চ্যালেঞ্জিং স্কোর পায় ইংল্যান্ড। অস্ট্রেলিয়ার সফল পেসার প্যাট কুমিন্স নেন ২ উইকেট। জবাবে দলীয় ১২ রানে দুই ওপেনার ডেভিড ওয়ার্নার (৪) ও শেন ওয়াটসনকে (৮) হারিয়ে ধাক্কা খায় অসিরা। এরপরই স্মিথ-ঝড়। অতিথিদের দারুণভাবে খেলায় ফিরিয়ে আনেন অধিনায়ক। এক পর্যায়ে ১৮তম ওভারে ৪ উইকেটে ১৬১ রান করে জয় দেখছিল অস্ট্রেলিয়া। তখনই স্মিথ ৯০ রানে (৫৩ বলে ৭ চার ৪ ছক্কায়) সাজঘরে ফিরলে হুড়মুড় করে ভেঙ্গে পড়ে সফরকারীদের ব্যাটিং-লাইন। গ্লেন ম্যাক্সওয়েল ৪৪ ছাড়া কেউ সুবিধা করতে পারেননি, থামতে হয়েছে ১৭৭Ñ এ! এ্যাশেজ ব্যর্থতার পর একমাত্র টি২০তে হার ৫ রানে।

তবে এটি ওয়ানডেতে প্রভাব ফেলবে না বলে আশাবাদী স্মিথ। অস্ট্রেলিয়া অধিনায়ক বলেন, ‘স্বীকার করতে হবে ইংল্যান্ড ভাল খেলেছে। বিশেষ করে মরগান ও মঈনের ব্যাটিং। এই উইকেটে ১৮৩ রান কঠিন ছিল না। কিন্তু আমরা টপঅর্ডারে দায়িত্ব নিতে পরিনি। ম্যাক্সওয়েল ছাড়া আমাকেও কেউ সঙ্গ দিতে পারেনি। এই শিক্ষাটা কাজে লাগাতে হবে। আশা করছি ওয়ানডে সিরিজেই আমরা ঘুরে দাঁড়াতে পারব।’ এ্যাশেজ ব্যর্থতা মাথায় নিয়ে ক্রিকেট ছেড়েছেন মাইকেল ক্লার্ক। আনুষ্ঠানিকভাবে তিন ধরনের ক্রিকেটেই এখন অধিনায়ক স্টিভেন স্মিথ। সামনে বাংলাদেশ সফর। তার আগে ইংল্যান্ডের সঙ্গে ওয়ানডে সিরিজটা অসিদের জন্য কঠিন চ্যালেঞ্জ।

সাউদাম্পটনের রোজ বোলে প্রথম ম্যাচ বৃহস্পতিবার। লর্ডস, ওল্ড ট্র্যাফোর্ড, হেডিংলি, ও ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে বাকি চার ওয়ানডে যথাক্রমে ৫, ৮, ১১ ও ১৩ সেপ্টেম্বর।

সর্বাধিক পঠিত:
পাতা থেকে: