মেঘলা, তাপমাত্রা ৩১.১ °C
 
১৯ আগস্ট ২০১৭, ৪ ভাদ্র ১৪২৪, শনিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ

শারাপোভাকে ছাড়াই ইউএস ওপেনের শুরু

প্রকাশিত : ১ সেপ্টেম্বর ২০১৫

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ শেষ মুহূর্তে সবাইকে চমকে দিয়ে ইউএস ওপেন থেকেও সরে দাঁড়ালেন মারিয়া শারাপোভা। মূলত ডান পায়ের ইনজুরির কারণেই শুরুর একদিন আগে মৌসুমের শেষ গ্র্যান্ডসøাম টুর্নামেন্ট ইউএস ওপেন থেকে নিজের নাম প্রত্যাহার করে নিলেন বিশ্ব টেনিস র‌্যাঙ্কিংয়ের সাবেক নাম্বার ওয়ান এই তারকা। রজার্স কাপ, সিনসিনাতি মাস্টার্সের পর টানা তৃতীয় টুর্নামেন্টে মাশাকে খেলতে দিল না চোট। এর ফলে শীর্ষ বাছাই সেরেনা উইলিয়ামসের একই ক্যালেন্ডারে বছরে সব গ্র্যান্ডসøাম জয়ের বিরল কৃতিত্ব লাভের পথটা আরও সহজ হয়ে গেল বলেই মন করছেন টেনিসবোদ্ধারা। শারাপোভার নাম প্রত্যাহারের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ইউএস ওপেন টুর্নামেন্ট পরিচালক ডেভিড ব্রুয়ার। তার জায়গায় বাছাই খেলোয়াড় হিসেবে সুযোগ পেয়েছেন শারাপোভারই স্বদেশী ডারিয়া কাসাটকিনা।

প্রায় এক দশক আগে ইউএস ওপেনে প্রথমবারের মতো শিরোপা জয়ের স্বাদ পেয়েছিলেন মারিয়া শারাপোভা। তাই টুর্নামেন্টটা রুশ সুন্দরীর কাছেও বেশ প্রিয়। কিন্তু চোট-দুর্ভাগ্যে এবার আর কোর্টে নামতে পারছেন না তিনি। তাই রীতিমতো হতাশ টেনিসের এই গ্ল্যামারগার্ল। তবে ভক্তদের আশস্ত করেছেন খুব দ্রুতই চোট কাটিয়ে কোর্টে ফিরবেন তিনি। এ বিষয়ে সামাজিক যোগাযোগের অন্যতম জনপ্রিয় মাধ্যম টুইটারে মারিয়া শারাপোভা লিখেছেন, ‘দুর্ভাগ্যবশত এ বছরের ইউএস ওপেনে আমার খেলা হচ্ছে না। নিজেকে প্রস্তুত করে তোলার জন্য আমি সম্ভাব্য সব চেষ্টাই করেছি। কিন্তু শতভাগ ফিট হওয়ার জন্য সময়টা যথেষ্ট ছিল না। আমার সব সমর্থকদের উদ্দেশে বলতে চাই, খুব শীঘ্রই কোর্টে ফিরে আসব আমি। সুস্থ ও সুন্দরভাবে বছরটা শেষ করাই এখন আমার মূল লক্ষ্য।’ সোমবার থেকে শুরু হয়েছে বছরের শেষ গ্র্যান্ডসøাম টুর্নামেন্ট। এবারের ড্র অনুযায়ী সেমিফাইনালেই সেরেনা উইলিয়ামসের অন্যতম শক্তিশালী প্রতিপক্ষ হিসেবে মারিয়া শারাপোভাকে মোকাবেলা করার কথা ছিল। কিন্তু শারাপোভার অনুপস্থিতিতে এখন শেষ চারে সপ্তম বাছাই সার্বিয়ান আনা ইভানোভিচ ৩৩ বছর বয়সী সেরেনা সম্ভাব্য প্রতিপক্ষ। সেরেনা-শারাপোভার লড়াইটা সবসময়ই একপেশে। সবসময়ই আমেরিকান টেনিস তারকাই জিতে। তবে তাদের লড়াইটা ঠিকই ভক্ত-অনুরাগীদের হৃদয়ে আলাদা করে দাক কাটে। সেই তুলনায় ইভানোভিচ-সেরেনার লড়াইটা কিছুটা হলেও নিষ্প্রভ। যে কারণে শারাপোভার চেয়ে ইভানোভিচকে খুব সহজেই সেরেনা হারাবেন বলে মনে করছেন টেনিস সংশ্লিষ্টরা। ১৯৮৮ সালে শেষবারের মতো একই ক্যালেন্ডারে সব মেজর শিরোপা জয়ের কীর্তি গড়েছিলেন স্টেফি গ্রাফ। এরপর আর কেউ করতে পারেনি তা। এবার স্টেফি গ্রাফের পর প্রথম খেলোয়াড় হিসেবে এক বছরে চার গ্র্যান্ডসøাম জয়ের দারুণ সুযোগ সেরেনা উইলিয়ামসের সামনে। শুধু তাই নয় টেনিসের উন্মুক্ত যুগে স্টেফি গ্রাফের জেতা দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ২২ গ্র্যান্ডসøামের রেকর্ডে ভাগও বসাতে পারেন সেরেনা উইলিয়ামস। তবে আমেরিকান টেনিসের জীবন্ত কিংবদন্তি সেরেনা পারবেন কি না ভক্তÑঅনুরাগীদের সেটাই এখন দেখার অপেক্ষা।

গত মাসে উইম্বল্ডনের সেমিফাইনালে সেরেনার কাছে পরাজতি হয়ে টুর্নামেন্ট থেকে ছিটকে পড়েছিলেন শারাপোভা। এরপর থেকেই আর কোন প্রতিযোগিতামূলক টুর্নামেন্টে অংশ নেননি তিনি। রজার্স কাপ এবং সিনসিনাতি মাস্টার্সে তার খেলার কথা থাকলেও শেষ পর্যন্ত অংশগ্রহণ করেননি তিনি। তবে সাত গ্র্যান্ডসøামজয়ী শারাপোভা জানিয়েছেন, এখানে জোর করে কিছুই করার নেই। এ বিষয়ে তার অভিমত হলো, ‘প্রতিদিনই নিজেকে কিছুটা সুস্থ মনে হয়। এখানে জোর করে কোন কিছু করার উপায় নেই।’ শারাপোভার বিপক্ষে ১৮ জয়ের বিপরীতে যুক্তরাষ্ট্রের শীর্ষ তারকা পরাজিত হয়েছেন মাত্র দুটিতে।

প্রকাশিত : ১ সেপ্টেম্বর ২০১৫

০১/০৯/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

খেলার খবর



শীর্ষ সংবাদ: