মেঘলা, তাপমাত্রা ৩১.১ °C
 
২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৭, ৮ আশ্বিন ১৪২৪, শনিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
সর্বশেষ

লালমনিরহাটে টানা বর্ষনে ৫০ হাজার মানুষ পানি

প্রকাশিত : ৩১ আগস্ট ২০১৫, ০৫:৪২ পি. এম.
লালমনিরহাটে টানা বর্ষনে ৫০ হাজার মানুষ  পানি

নিজস্ব সংবাদদাতা, লালমনিরহাট ॥ টানা বর্ষনে লালমনিরহাটে তিস্তা নদীর পানি আজ সোমবার বিকাল ৩ টায় বিপদসীমার ৩২সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। বন্যা পরিস্থিতির অবনতি প্রায় অর্ধ লাখ মানুষ পানিবন্দী হয়ে পড়েছে। তিস্তা ব্যারেজের ভার্টির দ্বীপচর গ্রাম গুলোতে ফ্লাড ওয়াশ আতংকে লোকজন ঘরবাড়ি ছেড়ে উচু স্থানে ও বাঁধের রাস্তায় নিরাপদ আশ্রয় নিচ্ছে।

কয়েক দিন ধরে টানা বর্ষন চলছে। বাংলাদেশ ও ভারতে নদ নদীর পানি বেড়েই চলছে। ভারত সরকার তার দেশের বন্যা পরিস্থিতি মোকাবেলা করতে থেমে থেমে ভারতের গজল ডোবা ব্যারেজ হতে তিস্তা নদীতে পানি ছেড়ে দিয়েছে। সোমবার বিকাল ৩ টা পর্যন্ত বন্যা পূবাভার্স কেন্দ্র সূত্রে জানা যায়, ৫০ দশমিক ৭২ সেঃমিঃ তিস্তা নদীর পানি প্রবাহিত হচ্ছে। যাহা বিপদ সীমার ৩২সেঃ মিঃ উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে।

টানা বর্ষনে পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় নদীর উজানে ও ভার্টিতে থাকা জেলার ৫টি উপজেলার প্রায় ৫০টি গ্রামের অর্ধ লাখ মানুষ পানিবন্দী হয়ে পড়েছে। শুকনো খাবারের অভাবে তারা নিদারুন কষ্টে জীবনযাপন করছে ।

পানি উন্নয়ন বোর্ড তিস্তা ব্যারেজের উপবিভাগীয় প্রকৌশলী(এসডি) ফজলুল হক জানান, ভারত থেকে প্রচন্ড গতিতে পানি বাংলাদেশের দিকে ধেয়ে আসছে। তিস্তা ব্যারাজ এলাকায় পানি বিপদ সীমার ৩২ সেঃ মিঃ উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। ব্যারজের উজান ও ভাটিতে অনেক গ্রামের মানুষজন পানি বন্দি হয়ে পড়েছে। ব্যারেজ হুমকির মূখে পড়ায় সব গেট খুলে দিয়ে পানি গতি নিয়ন্ত্রণ করার চেষ্টা চলছে। ব্যারাজ রক্ষার্থে বাইপাসের আশপাশে বসত বাড়ীর লোকজনদের নিরাপদ স্থানে সরে যেতে বলা হয়েছে বলেও জানান ওই কর্মকর্তা।

প্রকাশিত : ৩১ আগস্ট ২০১৫, ০৫:৪২ পি. এম.

৩১/০৮/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


শীর্ষ সংবাদ: