২১ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

জোকোভিচকেই ফেবারিট মানছেন সবাই


জোকোভিচকেই ফেবারিট মানছেন সবাই

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ আজ থেকে নিউ ইয়র্কের ফ্ল্যাশিং মিডোতে শুরু হচ্ছে বছরের শেষ গ্র্যান্ডস্লাম টুর্নামেন্ট ইউএস ওপেনের জমজমাট লড়াই। পুরুষ এককে শীর্ষ বাছাই হিসেবে কোর্টে নামবেন বিশ্ব টেনিস র‌্যাঙ্কিংয়ের এক নাম্বারে থাকা নোভাক জোকোভিচ। চলতি বছরের প্রথম তিন গ্র্যান্ডস্লাম টুর্নামেন্টের সবকটিতেই ফাইনাল খেলেছেন তিনি। তার দুটিতে চ্যাম্পিয়ন হওয়ারও গৌরব অর্জন করেন সার্বিয়ার এই টেনিস তারকা। জোকোভিচ ছাড়াও ফেবারিট হিসেবে কোর্টে নামবেন রজার ফেদেরার, এ্যান্ডি মারে, রাফায়েল নাদাল এবং স্টানিস্লাস ওয়ারিঙ্কার মতো খেলোয়াড়রাও।

ড্র অনুযায়ী বিশ্বের দুই নাম্বার খেলোয়াড় রজার ফেদেরার ও অষ্টম বাছাই রাফায়েল নাদালের ফাইনালের আগে দেখা হওয়ার কোন সম্ভাবনা নেই। ৩১ মেজর শিরোপা একে অপরের মধ্যে ভাগাভাগি করে নেয়া এই দুই তারকা ইউএস ওপেনের ক্রসরোড ধরেই সামনে এগিয়ে যাবেন। ৩৪ বছর বয়সী ফেদেরার গত সপ্তাহে সিনসিনাতি মাস্টার্সে জোকোভিচকে পরাজিত করে সাতবারের মতো শিরোপা জয় করেন। তাই এই মুহূর্তে দারুণ ফুরফুরে মেজাজে রয়েছেন। সুইস তারকার এটি ছিল ৮৭তম এটিপি শিরোপা। গত মাসে সার্বিয়ান তারকার কাছে টানা দ্বিতীয়বারের মতো উইম্বল্ডনের ফাইনালে হারের প্রতিশোধ হিসেবেও অনেকে ম্যাচটিকে বিবেচনা করেছেন। কিন্তু সম্প্রতি নিউ ইয়র্কে ফেদেরারের রেকর্ড খুব ভাল নয়। ২০০৪-০৮ পর্যন্ত পাঁচবারের চ্যাম্পিয়ন ফেদেরার ২০০৯ সালে জোয়ান মার্টিন ডেল পোত্রোর কাছে পরাজিত হয়ে রানারআপ হয়েছিলেন। কিন্তু তারপর থেকে আর ফাইনালে খেলতে পারেননি তিনি। গ্র্যান্ডসøামে এই বছর তার রেকর্ডও মিশ্র। সাতবারের উইম্বল্ডন বিজয়ী সুইস তারকা অল ইংল্যান্ড ক্লাবে অন্তত ফাইনালে পৌঁছেছিলেন। কিন্তু বছরের প্রথম গ্র্যান্ডসøাম অস্ট্রেলিয়ান ওপেনে তৃতীয় রাউন্ডেই তাকে বিদায় করে দিয়ে অঘটন ঘটিয়েছিলেন ইতালিয়ান আন্দ্রেস সিপ্পি। গত ১৪ বছরে মেলবোর্নে এটাই ফেদেরারের সবচেয়ে বাজে রেকর্ড। রোলা গ্যাঁরোতে কোয়ার্টার ফাইনালে স্বদেশী স্ট্যানিসøাস ওয়ারিঙ্কার কাছে হেরে কোয়ার্টার ফাইনাল থেকেই বিদায় নিয়েছিলেন। সর্বশেষ ২০১২ সালে উইম্বল্ডনের মাধ্যমে গ্র্যান্ডসøাম জিতেছিলেন ফেডএক্সপ্রেস। চলতি বছর যদি ইউএস ওপেন জিততে পারেন তবে ১৯৭০ সালে ৩৫ বছর বয়সী কেন রোসওয়ালের পরে সবচেয়ে বেশি বয়সী খেলোয়াড় হিসেবে গ্র্যান্ডসøাম জয়ের কৃতিত্ব দেখাবেন ফেদেরার। প্রথম রাউন্ডে তার প্রতিপক্ষ বিশ্বের ৩৩ নাম্বার খেলোয়াড় আর্জেন্টিনার লিওনার্দো মায়ার।

ইউএস ওপেন টেনিস টুর্নামেন্টের কোয়ার্টার ফাইনালেই দেখা হয়ে যেতে পারে শীর্ষ বাছাই সার্বিয়ার নোভাক জোকোভিচ ও অষ্টম বাছাই স্পেনের রাফায়েল নাদালের। অন্তত ইউএস ওপেনের ড্র সে কথাই বলছে। শেষ আটে দ্বিতীয় বাছাই সুইজারল্যান্ডের রজার ফেদেরারের প্রতিপক্ষ হতে পারেন ষষ্ঠ বাছাই চেক প্রজাতন্ত্রের টমাস বার্ডিচ। কোয়ার্টার ফাইনালে নাদাল বাধা পেরোতে পারলে সেমিফাইনালে জোকোভিচের প্রতিপক্ষ হবেন চতুর্থ বাছাই জাপানের কেই নিশিকোরি। টুর্নামেন্টের বর্তমান চ্যাম্পিয়ন ক্রোয়েশিয়ার মারিন চিলিচ। কিন্তু চলতি বছর নিজেকে আর সেভাবে মেলে ধরতে পারেননি। তাই শিরোপা রক্ষার জন্য তাকে কঠিন চ্যালেঞ্জই গ্রহণ করতে হবে। যেমনটি করতে হবে মারে-সোঙ্গাদেরও।