মেঘলা, তাপমাত্রা ৩১.১ °C
 
১৯ আগস্ট ২০১৭, ৪ ভাদ্র ১৪২৪, শনিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ

পার্থে পৌঁছেছে বাংলাদেশ ফুটবল দল

প্রকাশিত : ৩১ আগস্ট ২০১৫
পার্থে পৌঁছেছে বাংলাদেশ ফুটবল দল
  • ‘সকারুস চ্যালেঞ্জ’ মোকাবেলা
  • বিশ্বকাপ বাছাই ফুটবল ম্যাচ খেলতে বৃহস্পতিবার অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে মাঠে নামবেন মামুনুলরা

মোঃ মামুন রশীদ ॥ প্রস্তুতিটা ভালভাবেই সেরেছে বাংলাদেশ জাতীয় ফুটবল দল। মাত্র চারদিন অনুশীলন করে মালয়েশিয়া গিয়েছিলেন ফুটবলাররা। তবে স্বাগতিকদের বিপক্ষে গোলশূন্য ড্র করে বিশ্বকাপ বাছাইয়ে অস্ট্রেলিয়ার মুখোমুখি হওয়ার অনুপ্রেরণাটা ভালভাবেই পেয়ে গেছে বাংলাদেশ। বৃহস্পতিবার পার্থে স্বাগতিক অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে এশিয়া অঞ্চলের বিশ্বকাপ বাছাইয়ে ‘বি’ গ্রুপের ম্যাচে মুখোমুখি হবে। আর সে জন্যই যাত্রাপথে মালয়েশিয়ার বিপক্ষে একটি আন্তর্জাতিক প্রীতি ম্যাচ খেললো বাংলাদেশ। আর এর মাধ্যমে কোন রণকৌশল গ্রহণ করলে এশিয়ার চ্যাম্পিয়ন অস্ট্রেলিয়াকে রুখে দেয়া সম্ভব হবে তার স্বরূপ অনেকটাই পরিষ্কার হয়ে গেছে। এছাড়া নিজেদের দুর্বলতা, শক্তিমত্তা এবং সামর্থ্য সম্পর্কেও ধারণা পেয়েছেন প্রধান কোচ লোডভিক ডি ক্রুইফ। শনিবার ম্যাচ খেলে রবিবার সকালে রওনা দিয়ে রবিবারই পার্থে পৌঁছেছে বাংলাদেশ ফুটবল দল। প্রায় ঘন্টাখানের অনুশীলনও করেছে ল্যানলি পার্কে। এবার আসল লড়াইয়ের অপেক্ষা।

সম্প্রতি অবশ্য বাংলাদেশের চেয়ে খুব বেশি ভাল অবস্থানে নেই মালয়েশিয়া। যদিও এর আগে ১০ বারের মুখোমুখি লড়াইয়ে মালয়েশিয়া জিতেছিল ৭ বার এবং দুটি করেছিল ড্র। মাত্র এক ম্যাচে বাংলাদেশের জয় আছে। সর্বশেষ ২০১২ সালে মালয়েশিয়ার মাটিতেই প্রীতি ম্যাচে ১-১ গোলে ড্র করে ফিরেছিল বাংলাদেশ দল। এবার তবু শঙ্কা ছিল। কারণ মালয়েশিয়ার অনুর্ধ ২৩ দলের কাছে কিছুদিন আগেই ঘরের মাঠে ৩-২ গোলে হেরে গিয়েছিল স্বাগতিক বাংলাদেশ। এবারে মালয়েশিয়ার পূর্ণ শক্তির জাতীয় দল এবং ঘরের মাঠে নেমেছে। কিন্তু এরপরও সুবিধা করতে পারেনি। গোলশূন্য ড্র নিয়েই সন্তুষ্ট থাকতে হয়েছে তাদের। বর্তমানে ফিফা র‌্যাঙ্কিংয়ে মালয়েশিয়া ১৬৮ এবং বাংলাদেশ ১৭০ নম্বরে অবস্থান করছে। জয়ের ঘোষণা দিয়েই নেমেছিলেন মামুনুলরা। কিন্তু শেষ পর্যন্ত সেটা হয়নি। তবে এ ড্র অনেক বড় অনুপ্রেরণা বাংলাদেশ দলের মূল লড়াইয়ে নামার জন্য। কারণ দীর্ঘদিন ধরে চলতে থাকা ঘরোয়া আসর বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লীগ ফুটবলে ব্যস্ত ছিলেন সবাই। মাত্র চারদিন জাতীয় দলের ২৩ সদস্য একজোট হয়ে অনুশীলন করতে পেরেছেন। তবে সেই অনুশীলন নিয়েই মালয়েশিয়াকে তাদের মাঠে ড্র করতে বাধ্য করেছে বাংলাদেশ দল।

অস্ট্রেলিয়া অনেক শক্তিধর একটি দল। এবার এশিয়ার চ্যাম্পিয়ন হয়েছে তারা। সবমিলিয়ে চারবার বিশ্বকাপ খেলেছে। এমনকি ২০০৬ সালে বিশ্বকাপে নিজেদের সেরা সাফল্য হিসেবে দ্বিতীয় রাউন্ডে খেলতে সক্ষম হয়েছে। যদিও গত বছরটা খুব বাজে কেটেছে অস্ট্রেলিয়ান ফুটবল দলের। নিজেদের সবচেয়ে বাজে র‌্যাঙ্কিং ১০২ এ নেমে গিয়েছিল তারা। অথচ ২০০৯ সালের সেপ্টেম্বরে নিজেরে সেরা ফিফা র‌্যাঙ্কিং ১৪ নম্বরে উঠে এসেছিল দলটি। বর্তমানে ৬১ নম্বরে থাকলেও বিশ্বের যেকোন দলকে চ্যালেঞ্জ জানানোর মতো শক্তি আছে তাদের। এবার বিশ্বকাপ বাছাইয়ে তাদের বিপক্ষেই নামতে হবে বাংলাদেশ দলকে। মালয়েশিয়া চেনা প্রতিপক্ষ হলেও সকারুস সম্পূর্ণই অপরিচিত বাংলাদেশের জন্য। একমাত্র ভরসা ভিডিও দেখে অস্ট্রেলিয়ার খেলার কৌশল, শক্তিমত্তা বুঝে নিজেদের খেলার কৌশল নির্ধারণ। মালয়েশিয়ার বিপক্ষে শনিবারের ম্যাচে রক্ষণাত্মক খেলেছে বাংলাদেশ। বড় প্রতিপক্ষকে ঠেকানোর জন্য কি করতে হবে এর মাধ্যমে কিছুটা পেয়ে গেছে ক্রুইফ শিষ্যরা। ড্র করতে পারার কারণে একটা উজ্জীবিত মনোভাব এবং অনুপ্রাণিত হয়েই মাঠে নামতে পারবেন মামুনুলরা।

উল্লেখ্য, এশিয়া অঞ্চলের ২০১৮ সালের বিশ্বকাপ বাছাইয়ে বাংলাদেশ ‘বি’ গ্রুপে কিরগিজস্তান, তাজিকিস্তান, জর্দান ও অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে খেলছে। ইতোমধ্যেই গত জুনের ১১ ও ১৬ তারিখে বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে কিরগিজ ও তাজিকদের বিপক্ষে খেলেছে বাংলাদেশ। প্রথম ম্যাচে কিরগিজদের কাছে ৩-১ গোলে হারলেও তাজিকদের ১-১ গোলে ঠেকিয়ে দিয়েছে। এবার গ্রুপের সবচেয়ে শক্তিধর অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে বৃহস্পতিবার ম্যাচের অপেক্ষা। পার্থে অস্ট্রেলিয়ার মোকাবেলা করেই আবার দেশে ফিরে আন্তর্জাতিক ম্যাচ।

৮ সেপ্টেম্বর ঢাকার বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে আরেক শক্ত প্রতিপক্ষ জর্দানের বিপক্ষে বিশ্বকাপ বাছাই ম্যাচে অংশ নেবে বাংলাদেশ জাতীয় ফুটবল দল।

প্রকাশিত : ৩১ আগস্ট ২০১৫

৩১/০৮/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


শীর্ষ সংবাদ: