১৮ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

মুক্তি পাচ্ছে আন্তর্জাতিকভাবে সমাদৃত চলচ্চিত্র জালালের গল্প


মুক্তি পাচ্ছে আন্তর্জাতিকভাবে সমাদৃত চলচ্চিত্র জালালের গল্প

স্টাফ রিপোর্টার ॥ তরুণ নির্মাতা আবু শাহেদ ইমনের প্রথম ছবি জালালের গল্প। পরিচালনার পাশাপাশি ছবির কাহিনী ও চিত্রনাট্য রচনা করেছেন। মুক্তির আগেই আন্তর্জাতিক অঙ্গনে ছবিটি সমাদৃত হয়েছে। আভাঙ্কা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবে শ্রেষ্ঠ ছবির পুরস্কারসহ ইতোমধ্যেই পুরস্কারে ভূষিত ছবিটি। ইমপ্রেস টেলিফিল্মের বহুল আলোচিত ও প্রশংসিত এই চলচ্চিত্রটি আগামী ৪ সেপ্টেম্বর মুক্তি পাচ্ছে দেশের প্রেক্ষাগৃহে। একসঙ্গে ছবিটি মুক্তি পাবে যমুনা ব্লকবাস্টার সিনেমাস, বসুন্ধরা সিটি স্টারসিনেপ্লেক্স, মধুমিতা, বলাকা সিনেওয়ার্ল্ড, শ্যামলী সিনেপ্লেক্সসহ দেশের ২৫ সিনেমা হলে।

এ উপলক্ষে রবিবার যমুনা ব্লকবাস্টার সিনেমাসে প্রিমিয়ার শোতে উপস্থিত ছিলেন ইমপ্রেস টেলিফিল্মের এমডি ফরিদুর রেজা সাগর, যমুনা গ্রুপের পরিচালক ড. মোঃ আলমগীর ও এসএম আবদুল ওয়াদুদ, ছবির পরিচালক আবু শাহেদ ইমন, ছবির অভিনয়শিল্পী মোশাররফ করিম, তৌকীর আহমেদ, শর্মীমালাসহ অন্যরা। তরুণ এই নির্মাতাকে উৎসাহ দিতে প্রিমিয়ার শোতে উপস্থিত হন নাসির উদ্দিন ইউসুফ বাচ্চু, আবু সাইয়ীদ, গোলাম রাব্বানী বিপ্লব ও বিপাশা হায়াত প্রমুখ।

জালালের গল্প চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছেন মোশাররফ করিম, মৌসুমী হামিদ, তৌকীর আহমেদ, শর্মীমালা, নূরে আলম নয়ন, মিতালী দাশ, ফজলুল হক, আহমেদ গিয়াস প্রমুখ। নাম ভূমিকায় অভিনয় করেছে নবাগত মোহাম্মদ ইমন ও আরাফাত রহমান। সংগীত পরিচালনা করেছে চিরকুট।

জালালের গল্প ছবির যত অর্জন ॥ জুলাইয়ে পর্তুগালে ১৯তম আভাঙ্কা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবে শ্রেষ্ঠ ছবির পুরস্কার পেয়েছে জালালের গল্প। উৎসবে সেরা অভিনেতা বিভাগে পুরস্কার পেয়েছেন ছবির মোশাররফ করিম। ২০১৪ সালের অক্টোবরে ১৯তম বুসান চলচ্চিত্র উৎসবের এশিয়ান সিনেমা ফান্ড পেয়েছে এবং উৎসবটির মূল প্রতিযোগিতা বিভাগ ‘নিউ কারেন্টস’ বিভাগে প্রথম বাংলাদেশী ছবি হিসেবে বিশ্ব প্রিমিয়ার হয়। একই বছরের নবেম্বরে ভারতের গোয়ায় ৪৫তম আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবে প্রথমবারের মতো অনুষ্ঠিত হওয়া ‘অ্যা উইন্ডো অন সাউথ এশিয়ান সিনেমা’ বিভাগে একমাত্র বাংলাদেশী চলচ্চিত্র হিসেবে প্রদর্শনের জন্য মনোনীত হয়।

এ বছরের ফেব্রুয়ারির শুরুতে ভারতের রাজস্থানে ৭ম জয়পুর চলচ্চিত্র উৎসবে মূল প্রতিযোগিতা বিভাগে অংশ নিয়ে আবু শাহেদ ইমন সেরা নবাগত নির্মাতার পুরস্কার অর্জন করে। এপ্রিলে ইরানের রাজধানী তেহরানে ৩৩তম ফজর আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসব এবং জুলাই ফিজির রাজধানী সুভাতে ৬ষ্ঠ ফিজি আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবের মূল প্রতিযোগিতা বিভাগে জালালের গল্প প্রদর্শিত ও প্রশংসিত হয়েছে।

সুরস্রষ্টা আলতাফ মাহমুদ পদক প্রদান ॥ সুরের আশ্রয়ে অসুরের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করেছিলেন আলতাফ মাহমুদ। সৃষ্টির বৈভবকে হাতিয়ার করে অবস্থান নিয়েছিলেন প্রিয় মাতৃভূমির পক্ষে। বায়ান্নতে সুর করেছিলেন ভাষা শহীদের নিবেদিত আমার ভাইয়ের রক্তে রাঙানো একুশে ফেব্রুয়ারি শিরোনামের সেই অমর গানে। বায়ান্নর এই ভাষাসৈনিক প্রতিবাদী চেতনার স্রোতধারায় অংশ নিয়েছিলেন একাত্তরের মুক্তিযুদ্ধে। রবিবার ছিল কিংবদন্তি এই সুরকারের অন্তর্ধান দিবস। ১৯৭১ সালের ৩০ আগস্ট নিখোঁজ হন সুরের পাখি আলতাফ মাহমুদ। সেই অন্তর্ধান স্মরণে প্রতিবছরের মতো এবারও শহীদ আলতাফ মাহমুদ ফাউন্ডেশন তাঁর নামাঙ্কিত পদক অর্পণের মধ্য দিয়ে দিনটি উদযাপন করবে। এ বছর শহীদ আলতাফ মাহমুদ পদক প্রদান করা হলো প্রখ্যাত কথাশিল্পী হাসান আজিজুল হক ও বিশিষ্ট সংগীত পরিচালক আলাউদ্দীন আলীকে।

শরতের সন্ধ্যায় মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘরের মুক্ত মঞ্চে এই স্মরণ ও পদক প্রদান অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন সং¯ৃ‹তিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর। বিশেষ অতিথি ছিলেন বিশিষ্ট চলচ্চিত্র পরিচালক সৈয়দ সালাউদ্দিন জাকী। পদকপ্রাপ্তির অনুভূতি ব্যক্ত করে বক্তব্য রাখেন হাসান আজিজুল হক ও আলাউদ্দীন আলী। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের সাধারণ সম্পাদক আবৃত্তিশিল্পী হাসান আরিফ।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে সংস্কৃতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর বলেন, সৃজনশীল মানুষ যারা আমাদের ছেড়ে চলে যান, তাঁদের অনেককেই মানুষ তেমন করে স্মরণ করেন না। তবে কিছু কিছু সৃজনশীল মানুষ আছে, যাঁদের আমরা প্রতিনিয়ত স্মরণ করি। আলতাফ মাহমুদ তাঁদের একজন। মন্ত্রী আরও বলেন, আমরা যাদের একাত্তরের পরাজিত শক্তি বলি, তারা হঠাৎ হঠাৎ শক্তিশালী রূপ দেখায়। আমাদের যুদ্ধ আজও শেষ হয়ে যায়নি। আলতাফ ভাইয়ের চিন্তা, দর্শন, ব্যক্তিত্ব সবকিছু নিয়ে তিনি আমাদের পাশে আছেন। তাঁর সৃষ্টিকর্ম সংগ্রহ ও সংরক্ষণে আমরা কাজ করে যাচ্ছি।

পদকপ্রাপ্তির অনুভূতি ব্যক্ত করে বক্তব্য রাখেন হাসান আজিজুল হক ও আলাউদ্দীন আলী। এর আগে পদকপ্রাপ্ত দুই গুণী ব্যক্তিকে উত্তরীয় পরিয়ে দেন অনুষ্ঠানের অতিথিরা। এরপর তাঁদের হাতে তুলে দেয়া হয় একটি ক্রেস্ট ও ১০ হাজার টাকার একটি চেক।

সম্পর্কিত:
পাতা থেকে: