২১ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

অস্ট্রিয়া সীমান্তে লরি থেকে বাংলাদেশীসহ ২৬ শরণার্থী আটক


জনকণ্ঠ ডেস্ক ॥ অস্ট্রিয়ার সীমান্তে পরিত্যক্ত লরিতে ৭১ শরণার্থীর লাশ পাওয়ার একদিন পর শরণার্থীদের আরও একটি লরি আটক করেছে দেশটির পুলিশ। শনিবার জার্মানির সীমান্তবর্তী শহর সেন্ট পিটার এ্যাম হার্টে ২৬ শরণার্থীসহ লরিটি জব্দ করা হয়। এদের মধ্যে বাংলাদেশীও রয়েছেন বলে জানা গেছে। এদিকে হাসপাতালে ভর্তি সিরীয় তিন শিশুসহ তাদের পরিবার হাসপাতাল থেকে পালিয়ে গেছে। খবর বিবিসি অনলাইনের।

অস্ট্রিয়ার সংবাদ সংস্থা এপিএ জানায়, লরিটিতে গাদাগাদি করে ছিল ওই ২৬ শরণার্থী। পানিশূন্যতার কারণে তাদের মধ্যে তিন শিশুর অবস্থা সঙ্কটাপন্ন ছিল। তাদের একটি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। স্থানীয় এক পুলিশ কর্মকর্তার বরাত দিয়ে প্রতিবেদনে বলা হয়, উদ্ধারকৃত শরণার্থীরা সিরিয়া, আফগানিস্তান ও বাংলাদেশের নাগরিক। ওই কর্মকর্তা বলেন, সন্দেহ হওয়ায় সেন্ট পিটার এ্যাম হার্টের পুলিশ লরিটি থামিয়ে তল্লাশি করে। অত্যন্ত তপ্ত ও চটচটে এই লরির মধ্যে তারা গাদাগাদি করে ছিল।

অস্ট্রিয়ার পুলিশ কর্মকর্তা ডেভিড ফুর্টনার এপিএকে বলেন, তাদের অবস্থা খুব সঙ্গীন। চিকিৎসাকর্মীরা আমাদের বলেছে, আর একটু দেরি হলেই তাদের সবার জীবন ঝুঁকির মধ্যে পড়ত। অসুস্থদের কাছের শহর ব্রাউনাউয়ের হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। বিবিসির প্রতিবেদনে বলা হয়, শরণার্থীদের অবস্থা স্থিতিশীল রয়েছে বলে হাসপাতালের চিকিৎসকরা জানান। এ ঘটনায় লরিটির চালক ২৯ বছর বয়সী রোমানিয়ার এক নাগরিককে আটক করা হয়েছে বলে জানান পুলিশ কর্মকর্তা। বৃহস্পতিবার অস্ট্রিয়ার পূর্বাঞ্চলে হাঙ্গেরি সীমান্তের কাছে সড়কে পরিত্যক্ত একটি লরিতে ৭১টি মৃতদেহ পাওয়া যায়। লরিতে পাওয়া ভ্রমণসংক্রান্ত কাগজপত্র থেকে নিহতরা সিরিয়া থেকে আসা শরণার্থী বলে ধারণা করছে পুলিশ।