১৮ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

নাজিবের পদত্যাগ দাবিতে দ্বিতীয় দিনও বিক্ষোভ অব্যাহত


মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী নাজিব রাজাকের পদত্যাগের দাবিতে রবিবার রাজধানী কুয়ালালামপুরের বিভিন্ন সড়কে দ্বিতীয় দিনের মতো বিক্ষোভ চলছে। একটি আর্থিক কেলেঙ্কারির ঘটনায় প্রধানমন্ত্রীর পদত্যাগ চেয়ে শনিবার দেশটিতে বিক্ষোভ শুরু হয়। কড়া পুলিশ পাহারার মধ্যে হাজার হাজার লোক বিক্ষোভে অংশ নেন। তবে পুলিশ বিক্ষোভে বাধা দেয়নি, যদিও পুলিশের ভাষ্য, বিক্ষোভ অবৈধ।

বিদেশী অজ্ঞাত দাতাদের কাছ থেকে নাজিবের ব্যাংক এ্যাকউন্টে ৭০ কোটি মার্কিন ডলার (৪৫ কোটি ৫০ লাখ পাউন্ড) পরিশোধের ঘটনা প্রকাশিত হওয়ার পর বিক্ষোভকারীরা ক্ষুব্ধ হয়ে ওঠে। তবে তিনি অর্থ নেয়ার কথা অস্বীকার করে বলেছেন, বিক্ষোভকারীরা মালয়েশিয়ার ভাবমূর্তি ক্ষুণœ করছে। পুলিশ জানায়, শনিবারের বিক্ষোভে প্রায় ২৫ হাজার লোক অংশ নেন। তবে গণতন্ত্রকামী সংগঠন বেরসিহ বলেছে, বিক্ষোভে দুই লাখ লোক অংশ নেন। সাবেক প্রধানমন্ত্রী মাহাথির মোহাম্মদ শনিবার সন্ধ্যার দিকে আকস্মিকভাবে বিক্ষোভস্থলে আসেন। তিনি বিক্ষোভকারীদের আন্দোলন চালিয়ে যাওয়ার আহ্বান জানান। তিনি বলেন, নাজিবের পদত্যাগের দাবির প্রতি তার সমর্থন রয়েছে। এতে বিক্ষোভকারীদের মনোবল আরও বেড়ে যায়। বিক্ষোভস্থলে সন্ধ্যার দিকে লোকজনের উপস্থিতি কিছুটা কমে আসে। তবে অনেকে রবিবার দ্বিতীয় দিনের বিক্ষোভের প্রস্তুতি নিতে শনিবার রাতে রাস্তায় ঘুমান। রবিবার মধ্যরাত পর্যন্ত বিক্ষোভের সময়সূচী নির্ধারিত করা হয়। নাজিব বলেছেন, ‘হলুদ জামা পরা বিক্ষোভকারীরা আমাদের সুনাম নষ্ট করতে চায়। তারা বিশ্ববাসীর কাছে মালয়েশিয়ার মুখে কালিমা লেপন করেছে।’ প্রধানমন্ত্রীর বিরুদ্ধে প্রধান অভিযোগ হলো, তিনি রাষ্ট্রীয় মালিকানাধীন ওয়ানএমডিবি বিনিয়োগ তহবিল থেকে ৭০ কোটি ডলার নিয়েছেন। নাজিব কুয়ালালামপুরকে একটি অর্থনৈতিক কেন্দ্রে পরিণত করতে ২০০৯ সালে এটি প্রতিষ্ঠা করেন। কেবিনেট মন্ত্রীরা বলেছেন, অজ্ঞাত মধ্যপ্রাচ্য উৎস থেকে পাওয়া অর্থ ছিল ‘রাজনৈতিক অনুদান’ যা অন্যায় নয়। তবে এ ব্যাপারে বিস্তারিত কিছু বলা হয়নি। দুর্নীতির অভিযোগ উঠলেও বেআইনি কিছু করেননি বলে দাবি করেছেন নাজিব। -এএফপি