১৮ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

কুবি ছাত্রলীগের দুই পক্ষের সংঘর্ষে আহত ১০


নিজস্ব সংবাদদাতা, কুমিল্লা, ২৯ আগস্ট ॥ কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ে (কুবি) ছাত্রলীগের দু’গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষে দুইজন গুলিবিদ্ধসহ দুই পক্ষের অন্তত ১০ জন আহত হয়েছে। শুক্রবার রাত ১০টার দিকে এ সংঘর্ষের সূত্রপাত হয়ে চলে রাত ১২টা পর্যন্ত। দফায় দফায় সংঘর্ষ, ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া ও গুলি বর্ষণের ঘটনায় পুরো কুবি ক্যাম্পাসসহ আশপাশের এলাকায় আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে।

প্রত্যক্ষদর্শী শিক্ষার্থীরা জানান, কুবির কাজী নজরুল ইসলাম হল ও শহীদ ধীরেন্দ্রনাথ দত্ত হলের পার্শ্ববর্তী সড়কের ইউনিক মোড় নামক স্থানে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। রাত ১০টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের মূল ফটকে সভাপতি সমর্থিত ছাত্রলীগ কর্মী তানভীর হোসেনের সঙ্গে সাধারণ সম্পাদক সমর্থিত কর্মী শাহজাহান প্রীন্সের বাকবিতা-া হয়। পরে বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি নাজমুল হাসান আলিফ নিয়ন্ত্রিত কাজী নজরুল ইসলাম হলের নেতাকর্মীদের সঙ্গে সাধারণ সম্পাদক রেজা-ই-এলাহী নিয়ন্ত্রিত বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হল ও শহীদ ধীরেন্দ্রনাথ দত্ত হলের নেতাকর্মীদের সংঘর্ষ বাধে। সংঘর্ষে কয়েক রাউন্ড গুলি ও ইট-পাটকেল নিক্ষেপের ঘটনা ঘটে। এতে উভয় পক্ষের দুইজন গুলিবিদ্ধসহ ১০ নেতাকর্মী আহত হয়। এ বিষয়ে কুবির ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক রেজা-ই-এলাহী বলেন, ‘সভাপতি সমর্থিত নেতাকর্মীরা অতর্কিত হামলা করে ৫ থেকে ৬ রাউন্ড গুলিবর্ষণ করেছে। তাদের হামলায় আমার ৬/৭ জন নেতাকর্মী আহত হয়েছেন।’ অপরদিকে ছাত্রলীগ সভাপতি নাজমুল হাসান আলিফ জানান, ‘আমরা কোন গুলিবর্ষণ করিনি। স্থানীয় সন্ত্রাসীদের নিয়ে তারা আমাদের নেতাকর্মীদের ওপর হামলা করেছে।’ এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রক্টর মোহাম্মদ আইনুল হক বলেন, ‘দুই পক্ষের মধ্যে বাকবিত-ার জের ধরে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এ বিষয়ে কুবি প্রশাসন আজ রবিবার বিবদমান ছাত্র নেতাদের সঙ্গে জরুরী বৈঠক করার কথা রয়েছে।

সিলেটে সংঘর্ষে

বৃদ্ধের মৃত্যু

স্টাফ রিপোর্টার, সিলেট থেকে জানান, শুক্রবার সন্ধ্যায় সিলেটের বিশ্বনাথের দেওকলস ইউনিয়নের সৎপুর গ্রামে দুই পক্ষের সংঘর্ষে গুরুতর আহত এক বৃদ্ধ রাতে মারা গেছেন।

এ সময় অন্তত ১০ জন আহত হয়েছেন। নিহত রফিক মিয়া (৫৫) সৎপুর খাসজান গ্রামের মৃত আবদুল মুতলিবের ছেলে। এ ঘটনায় পুলিশ নারীসহ তিনজনকে আটক করেছে।

আটককৃতরা হচ্ছেন সৎপুর খাসজান গ্রামের মৃত আইয়ুব উল্লার ছেলে রইছ আলী (৬৫), ইউনুছ আলী (৬০) ও ইউনুছ আলীর স্ত্রী নেবারুন নেছা (৪০)।

নীলফামারীতে জমি নিয়ে সংঘর্ষে আহত ২২

স্টাফ রিপোর্টার, নীলফামারী থেকে জানান, জমি সংক্রান্ত বিবাদে উভয়পক্ষের সংঘর্ষে নারীসহ ২২ জন আহত হয়েছে। শনিবার দুপুরে জেলা সদরের রামনগর ইউনিয়নের বাহালীপাড়া গ্রামের এ ঘটনায় একে অপরের বাড়িতে অগ্নিসংযোগ করলে দুই পরিবারের চারটি ঘর, আসবাবপত্র পুড়ে ছাই হয়েছে।

পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিস ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি এবং আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। আহতদের মধ্যে একজনকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ও বাকি ২১ জনকে নীলফামারী সদর আধুনিক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। রামগঞ্জ ইউনিয়নের তিন নম্বর ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য আসাদুল ইসলাম জানান, গ্রামের মৃত আছিমুদ্দিনের ছেলে আলী হোসেনের সঙ্গে নমির উদ্দিনের ছেলে আজিজার রহমানের মধ্যে সাড়ে ৭ বিঘা জমি নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলে আসছে। এ নিয়ে উভয়পক্ষের আদালতে দুটি মামলা বিচারাধীন।

এ অবস্থায় বিরোধপূর্ণ জমিতে আলী হোসেন হালচাষ করতে গেলে আজিজার রহমান বাধা দেয়। এরপর উভয় পক্ষের মধ্যে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া, হামলা ও সংঘর্ষে বাড়িঘর ভাংচুর ও অগ্নিসংযোগ করা হয়।