২১ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট পূর্বের ঘন্টায়  
Login   Register        
ADS

ব্যাচেলর ইন এন্ট্রিপ্রিনিউরশিপ ডেভেলপমেন্ট


বাংলাদেশে প্রথমবারের মতো ব্যাচেলর ইন এন্ট্রিপ্রিনিউরশিপ ডেভেলপমেন্ট (বিইডি) প্রোগ্রাম চালু করেছে ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি। চার বছর মেয়াদী এ প্রোগ্রাম ইউজিসি কর্তৃক অনুমোদনপ্রাপ্ত। নিজের পায়ে দাঁড়াতে সাহায্য করার লক্ষ্য নিয়ে, বেকার না থেকে স্বাবলম্বী করে গড়ে তোলার উদ্দেশ্য এবং প্রতিযোগিতামূলক পরিবেশে একজন তরুণ/ তরুণী স্বীয়, মেধা-মনন ও শ্রম দিয়ে তার অস্তিত্বকে কেবল সুসংহত করবে না, বরং সামাজিক ও রাষ্ট্রীয় কল্যাণে দৃঢ়তার সাথে ও ন্যায় নিষ্ঠার সাথে উদ্যোক্তা হিসেবে যাতে গড়ে উঠতে পারেন, সে জন্যেই এ প্রোগ্রাম চালু করা হচ্ছে ।

সমগ্র বিশ্বে ব্যবসাবাণিজ্য আগের চেয়ে ক্রমশ প্রতিযোগিতামূলক হয়ে পড়ছে। এ প্রতিযোগিতায় টিকতে হলে প্রত্যেক মানুষের অন্তর্লীন সত্তায় যে উদ্ভাবনী শক্তি লুকায়িত রয়েছে, তা নাড়া দেয়া প্রয়োজন । একটি সমীক্ষায় দেখা গেছে, বিশ্বব্যাপী প্রতিবছর ৪৬ মিলিয়ন লোক শ্রমবাজারে কাজের জন্য অনুপ্রবেশ করলেও এদের একাংশ কিন্তু কাজ পায় না। ২০১৩ সালে বিশ্বের বেকারত্বের হার হচ্ছে ১২.৬% যা ২০১৮ সালে ১২.৮% হবে বলে প্রাক্কলন করা হয়েছে। এদেশে প্রতিবছর শ্রম বাজারে ১.০ মিলিয়ন লোক র্কমসংস্থানের জন্যে প্রবেশ করলেও ০.৫ মিলিয়ন লোকের কর্মসংস্থান হয়।

সবাই বিল গেটস নন। উদ্যোক্তা হওয়ার জন্য স্বল্পকালীন প্রশিক্ষণ তেমন কার্যকর নয়। বর্তমান প্রেক্ষাপটে পূর্ণাঙ্গ শিক্ষা ও প্রশিক্ষণের প্রয়োজন রয়েছে। বাংলাদেশে যেভাবে ২০২১ সালের আগেই মধ্যম আয়ের রাষ্ট্রে পরিণত হতে যাচ্ছে, সে ক্ষেত্রে শিক্ষিত বেকার যেন সমাজের বোঝা না হয়, সে জন্যেই এ পাঠ্যক্রম প্রণয়ন করা হয়েছে। কেননা শ্রম বাজারে নতুন কর্মসংস্থান সৃষ্টি করতে না পারলে তা দেশের বিকাশমান অর্থনৈতিক গতি প্রবাহকে ক্ষতিগ্রস্ত করবে। এ জন্যই নতুন উদ্যোক্তা শ্রেণী তৈরি করতে হবে।

বর্তমানে চিকিৎসা বিজ্ঞানের বিভিন্ন শাখা-প্রশাখায় ঊীঢ়বৎঃ তৈরি হচ্ছে। এমনকি অর্থনীতি চর্চার ক্ষেত্রেও আলাদা আলাদা ফিল্ড রয়েছে, যেমন সামষ্টিক অর্থনীতি, কৃষি অর্থনীতি, আর্থিক অর্থনীতি, নগর উন্নয়ন অর্থনীতি, বাণিজ্য অর্থনীতি, শিল্প অর্থনীতি, গ্রামীণ অর্থনীতি প্রভৃতি। আবার দেড়শত বছর আগে প্রকৌশল পড়ার কথা বিবেচিত হতো উদ্ভাবনী শক্তি হিসেবে। ষাট বছর আগে খুব কম লোকই কম্পিউটার সায়েন্স পড়ার কথা ভাবত। আর এখন কম্পিউটার সায়েন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং-এ পড়ার পাশাপাশি হার্ডওয়্যার, নেটওয়্যার, সফটওয়্যার এমনকি মাল্টিমিডিয়ার ওপর চার বছর মেয়াদী প্রোগ্রাম চালু রয়েছে। আসলে গধৎশবঃ উৎরাবহ ঋড়ৎপব দ্বারা নির্ধারিত হয় শিক্ষার নতুন নতুন পাঠ্যক্রম এবং পুরনো পাঠ্যক্রমের পরিবর্তন, সংযোজন ও বিয়োজন।

এ পাঠ্যক্রম পরিচালনার জন্য দেশী-বিদেশী শিক্ষকদের একটি প্যানেল কাজ করেছে। পাশাপাশি দেশী-বিদেশী উদ্যোক্তারাও এ পাঠ্যক্রমের সাথে জড়িত রয়েছেন। দেশী উদ্যোক্তাদের মধ্যে রয়েছেন ড্যাফোডিল গ্রুপের চেয়ারম্যান সবুর খানসহ অনেকেই। এ পাঠ্যক্রমটি পরিচালনার জন্য আশুলিয়ার স্থায়ী ক্যাম্পাসে ইনকিউবেটর স্থাপন করা হচ্ছে। ইতোমধ্যে বাংলাদেশ ভেঞ্চার ক্যাপিটেল লিমিটেড, ড্যাফোডিল স্টার্ট আপ মার্কেট এবং স্টার্ট আপ রেস্টুরেন্ট, যেখানে উদ্ভাবনী শক্তির বিকাশ ঘটবে সেসব স্থাপন করা হয়েছে হাতে-কলমে শিক্ষার জন্য। আবার আইএমএসএমই ফাউন্ডেশন ইন বাংলাদেশের সদস্য-সদস্যা যারা ইতোমধ্যে প্রতিষ্ঠিত উদ্যোক্তাদের সাথে শিক্ষানবিস উদ্যোক্তাদের সাহচর্য পাবেন, যা তাদের ভবিষ্যৎ জীবনকে সাফল্যের দিকে এগিয়ে নিতে সাহায্য করবে। বিদেশে শিক্ষা সফরের ব্যবস্থা পাঠ্যক্রমের আওতায় রয়েছে। এ ক্ষেত্রে সামাজিক পুঁজি ও নেটওয়ার্কিং-এর বিশেষ সুযোগ সঞ্চারিত হবে। দেশে লিঙ্গ বৈষম্য দূরীকরণে এ প্রোগ্রাম সহয়তা করবে।

বস্তুত দেশের কল্যাণের কথা বিবেচনা নিয়ে এবং সামাজিক দায়বদ্ধতার জন্য উচ্চ শিক্ষার ক্ষেত্রে একটি স্টেপিং স্টোন স্থাপনের মাধ্যমে মাইলফলক সৃষ্টি করতে ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির এ প্রয়াস।