মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২২.৮ °C
 
১ মে ২০১৭, ১৮ বৈশাখ ১৪২৪, সোমবার, ঢাকা, বাংলাদেশ

খাজার পদত্যাগ চাইলেন এবার রশীদ শিকদার!

প্রকাশিত : ৩০ আগস্ট ২০১৫
  • হকি জটিলতা

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ হকি অঙ্গনে চলমান সঙ্কট নিরসনে এবার ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক খাজা রহমতউল্লাহ্র পদত্যাগ দাবি করলেন ফেডারেশনের বর্তমান সহসভাপতি আব্দুর রশিদ শিকদার। পাশাপাশি খেলোয়াড়দের স্বার্থ বিবেচনা করে হকির এই অচলাবস্থার দ্রুত সমাধান চান হকির সাবেক তারকারা।

দেশের হকির চলমান সঙ্কট যেন কোনমতেই কাটছে না। আর সে কারণে এ মৌসুমে দেশের ঘরোয়া হকির সবচেয়ে বড় আসর প্রিমিয়ার ডিভিশন হকি লীগের ভবিষ্যত এখনও অনিশ্চিত। বিদ্রোহী ক্লাবগুলোর সঙ্গে দ্বিধা-বিভক্ত ফেডারেশনের কোন কর্মকা-ই এ বিষয়ে আশার আলো দেখাতে পারছে না। ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী-উপমন্ত্রী থেকে শুরু করে সব রাঘববোয়ালদের প্রচেষ্টাও আপাতত রসাতলে যেতে বসেছে।

যদিও কোনরকম ঝামেলা ছাড়াই সারাবছর হকির অন্য টুর্নামেন্টগুলো আয়োজিত হয়। বয়সভিত্তিক টুর্নামেন্ট, প্রথম ও দ্বিতীয় বিভাগ হকি, শহীদ স্মৃতি, বিজয় দিবস, স্বাধীনতা দিবস, এমনকি আন্তর্জাতিক শিডিউল অনুযায়ী প্রতিটি টুর্নামেন্টই মাঠে গড়ায়। কিন্ত ঘরোয়া হকির সবচেয়ে বড় আসর প্রিমিয়ার ডিভিশন হকি লীগ আয়োজনের সময়ই শুরু হয় যত ঝামেলা! পেশাদার হকি খেলোয়াড়রা আশায় থাকেন প্রিমিয়ারের দলবদলের। কিন্তু যে দলবদলের জন্য এত অপেক্ষা, সেটিই হচ্ছে-হবে করে পেছায় দফায় দফায়। ক্লাব-ফেডারেশন দ্বন্দ্বে ভুক্তভুগী হয় হকি খেলোয়াড়রা। হকিতে এমনটা নতুন নয়। সেই ২০০০ সাল থেকেই শুরু হয়েছে এমনটা।

ফেডারেশনের সহসভাপতি আব্দুর রশিদ শিকদার উপমন্ত্রীর নির্দেশে বিভিন্ন ক্লাবের অংশগ্রহণে মতবিনিময় সভার আয়োজন করলে সেখান থেকেও কোন সমাধান আসেনি। উল্টো সেই মতবিনিময় সভার জবাব দিয়ে নিজের অবস্থান পরিষ্কার করে পদত্যাগ না করার ঘোষণা দেন বর্তমান সাধারণ সম্পাদক খাজা রহমতউল্লাহ্! আর এসবের কারণে সেই পুরনো কথাই আবার যেন নতুন করে শোনা গেল সহসভাপতি আব্দুর রশিদ শিকদারের কণ্ঠেÑ ‘আমরা মনে করি এটা সম্পূর্ণ নতুন করে গঠন করলে এবং এ্যাডহক কমিটির প্রয়োজন পড়লে ঐকমত্যের ভিত্তিতে যদি কিছু করা যায় সেটা দীর্ঘমেয়াদের জন্য একটা ভাল ফসল নিয়ে আসবে। এখন খাজা রহমতউল্লাহর পদত্যাগের মাধ্যমে যদি সমাধান হয়, তাহলে এটাই ভাল হবে। সেটাই তার করা উচিত। তবে শুধু তার একার পদত্যাগেও যদি কাজ না হয়, যদি পুরো কমিটিই লাগে, তাহলে পুরো কমিটিরই পদত্যাগ করা উচিত।’

দেশের হকির এ অচলাবস্থায় সবচেয়ে ভুক্তভোগী থাকা খেলোয়াড়দের কথাটা সংগঠকদের নতুন করে ভাবার জন্যই আহ্বান জানান সাবেক তারকা হকি খেলোয়াড়রা। এদের মধ্যে রয়েছে রফিকুল ইসলাম ও ফয়সালের মতো সাবেক তারকা হকি খেলোয়াড়। শুধু খেলোয়াড়দের নয়, আন্তর্জাতিক হকি অঙ্গনে দেশের ভাবমূর্তির কথা বিবেচনা করা হলেও এ সমস্যা সমাধানের জন্য সংশ্লিষ্টদের প্রতি আবেদন জানিয়েছেন সাবেক তারকারা।

প্রকাশিত : ৩০ আগস্ট ২০১৫

৩০/০৮/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

খেলার খবর



শীর্ষ সংবাদ: