১৮ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

নাইজিরিয়ায় সেনা, নৌ ও বিমানবাহিনী প্রধান বরখাস্ত


নাইজিরিয়ার প্রেসিডেন্ট মোহাম্মাদু বুহারি সোমবার দেশটির সেনা, নৌ ও বিমানবাহিনীর প্রধানদের বরখাস্ত করেছেন। সৈন্যদের বিরুদ্ধে মানবাধিকার লঙ্ঘনের অভিযোগে এবং দেশটির উত্তরাঞ্চলে বোকো হারাম জঙ্গীদের হামলা বেড়ে যাওয়ায় তাদের বরখাস্ত করা হয়েছে। খবর টেলিগ্রাফ ও এএফপির।

বুহারি নতুন প্রধানদের নাম ঘোষণা করে বলেছেন, তাদের মেধা ও যোগ্যতার ভিত্তিতেই নিয়োগ দেয়া হয়েছে। নতুন সেনাপ্রধান মেজর জেনারেল তাকুর ইউসুফ বুরাতাই এবং জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা মেজর জেনারেল বাবাগানা মঙ্গুনো, উভয়েই বোকো হারামের প্রধান কেন্দ্রস্থল বোর্নো রাজ্যের। বুহারি আকস্মিক এ পদক্ষেপ নেননি। বোকো হারাম জঙ্গীদের ঠেকাতে সামরিক বাহিনীর ব্যর্থতার জন্য বুহারি বরাবরই সমালোচনার সম্মুখীন হয়েছেন। বুহারি মে মাসে নাইজিরিয়ার প্রেসিডেন্ট হিসেবে ক্ষমতা গ্রহণের সময় সশস্ত্র বাহিনীর সংস্কারের অঙ্গীকার করেছিলেন। কিন্তু ক্ষমতা গ্রহণের দুই মাস পরেও অঙ্গীকার পূরণের বিষয়ে তার ব্যর্থতার সমালোচনা বাড়ছে। ধারাবাহিকভাবে মানবাধিকার লঙ্ঘন ও বোকো হারামের ছয় বছরের বিদ্রোহ মোকাবেলার আড়ালে অনাহারে, নির্যাতনে এবং সংক্ষিপ্ত বিচারে আট হাজার বন্দীর মৃত্যুর জন্য নাইজিরীয় সেনাবাহিনীকে দায়ী করে মানবাধিকার সংস্থা এ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল। এর একমাস পর এই বরখাস্তের ঘটনা ঘটল। নতুন সামরিক প্রধানরা প্রতিবেশী দেশ শাদ, ক্যামেরুন ও নাইজারের সঙ্গে নিবিড়ভাবে কাজ করবেন বলে আশা করা হচ্ছে। এই তিন দেশের সামরিক বাহিনী একজোট হয়ে বোকো হারামের বিরুদ্ধে লড়ছে।

এদিকে শাদে বেসামরিক নাগরিকদের লক্ষ্য করে বোকো হারামের ‘ভয়াবহ ও নির্বিচার’ হামলার ঘটনায় যুক্তরাষ্ট্র সোমবার কঠোর নিন্দা জানিয়েছে। তারা আফ্রিকার অন্যান্য দেশে এ জঙ্গীগোষ্ঠীর চালানো হামলারও নিন্দা জানায়। মার্কিন পররাষ্ট্র দফতরের মুখপাত্র জন কির্বি বলেন, যুক্তরাষ্ট্র শাদের রাজধানীর গ্রান্ড মার্চির পাশাপাশি গত দু’দিনে ক্যামেরুন, নাইজার ও নাইজিরিয়ায় বোকো হারামের ভয়াবহ ও নির্বিচার হামলার কঠোর নিন্দা জানাচ্ছে। গোলযোগপূর্ণ মাইদুগুরি নগরীতে আতœঘাতী হামলায় চারজন নিহত এবং ক্যামেরুনের উত্তরাঞ্চলীয় সীমান্তবর্তী ফটোকল শহরে দুই নারীর আতœঘাতী হামলায় কমপক্ষে ১১ জন নিহত হয়েছে। বোকো হারামের একের পর এক এসব হামলার ঘটনা এ অঞ্চলকে হুমকির মুখে ঠেলে দিয়েছে।