২২ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট ৬ ঘন্টা পূর্বে  
Login   Register        
ADS

রাহানেদের লক্ষ্য জিম্বাবুইয়েকে হোয়াইটওয়াশ


স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ জিম্বাবুইয়ে-ভারত তৃতীয় ও শেষ ওয়ানডে আজ। ইতোমধ্যে টানা দুই জয়ে সিরিজ নিশ্চিত করেছে অজিঙ্কা রাহানের নেতৃত্বাধীন ভারত। সফরকারীদের সামনে এখন প্রতিপক্ষকে হোয়াইটওয়াশ করার হাতছানি। সেটিই চাইছেন রাহানে, অতিথি অধিনায়ক আত্মবিশ্বাসী। যদিও ইনজুরির জন্য ছিটকে গেছেন সফল ব্যাটসম্যান আমবাতি রায়ুডু। আজকের ওয়ানডে ও পরবর্তীতে দুটি টি২০’র জন্য রায়ুডুর পরিবর্তে সানজু স্যামসনকে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। অন্যদিকে শেষ ম্যাচে সান্ত¡নার জয়ের পাশাপাশি ব্যবধান কমাতে মারিয়া এলটন চিগম্বুরার জিম্বাবুইয়ে। যদিও কাজটা তাদের জন্য সহজ হবে না। কারণ প্রথম ওয়ানডেতে ফাইট দিলেও সাবেক বিশ্বচ্যাম্পিয়নদের কাছে দ্বিতীয় ম্যাচে পাত্তাই পায়নি তারা।

স্বপ্ন বাস্তবায়নের খুব কাছে রাহানে। টানা খেলার ধকল থেকে মুক্তি দিতে এই সফরে নেই নিয়মিত অধিনায়ক মহেন্দ্র সিং ধোনি, টেস্ট কাপ্তান বিরাট কোহলি। প্রথম রোহিত শর্মা আর সুরেশ রায়নার কথা শোনা গেলেও শেষ পর্যন্ত তাদেরও বিশ্রামে রেখে আনকোড়া দলটির দায়িত্ব দেয়া হয় রাহানের কাঁধে। এটাকে চ্যালেঞ্জ হিসেবে নিয়ে শুরুতেই তিনি বলেছিলেন, বাংলাদেশ সফরের ব্যর্থতা ভুলে দলকে আত্মবিশ্বাসী করে তোলাই তার প্রথম কাজ। সেটিতে অনেকটা সফল প্রতিভাবান এই ব্যাটসম্যান। টানা দুই জয়ে এক ম্যাচ হাতে রেখে সিরিজ নিশ্চিত করেছেন। এবার পালা প্রতিপক্ষকে হোয়াইটওয়াশ করার। ‘জিম্বাবুইয়ে সব সময় ধুরন্ধর একটি দল। প্রথম ওয়ানডেতে আড়াই শ’র ওপরে স্কোর গড়েও আমাদের জয় পেতে ঘাম ঝরেছিল। দ্বিতীয় ম্যাচে বোলাররা দারুণ করেছে। সর্বোপরি উন্নতির আরও জায়গা রয়েছে, বিশেষ করে ব্যাটিংয়ে। তার ওপর ইনজুরির জন্য বাকি সময়টাতে রায়ুডুকে পাওয়া যাচ্ছে না।’ বলেন অধিনায়ক রাহানে।

তিনি আরও যোগ করেন, ‘আশা করছি শেষ ম্যাচেও জয়ের ধারা অব্যাহত থাকবে। সফরের আগেই বলেছিলাম, সিরিজটি আমাদের আত্মবিশ্বাস ফেরানোর লড়াই। আমরা সেই পথে হাঁটছি। তবে আত্মতৃপ্তির সুযোগ নেই। জিম্বাবুইয়েকে হোয়াইটওয়াশ করতে আমাদের শেষ ম্যাচেও সেরাটা দিতে হবে।’ রায়ুডুকে না পাওয়াটা বিশেষভাবে উল্লেখ করেন অধিনায়ক। দুটি ম্যাচেই চমৎকার ব্যাটিং করেন তিনি। প্রায় হারতে হারতে ৪ রানের জয় পাওয়া নাটকীয় প্রথম ওয়ানডেতে দুর্দান্ত এক সেঞ্চুরি হ$াকান রায়ুডু। ১২ চার ও ১ ছক্কায় খেলেন অপরাজিত ১২৪ রানের ইনিংস। দ্বিতীয় ম্যাচে করেন ৪১ রান। সিরিজে এ পর্যন্ত সর্বোচ্চ রান তারই। ইনজুরির জন্য টি২০তেও থাকছেন না তিনি। ওয়ানডে শেষে দুটি টি২০ খেলবে ভারত।

দ্বিতীয় ম্যাচে অবশ্য ২৭১ রানের পুঁজি নিয়েও ভাল খেলেছে সফরকারীরা। নিউজিল্যান্ডকে ২০৯ রানে গুড়িয়ে দিয়ে তুলে নিয়েছে ৬২ রানের বড় জয়। এদিন ৭২ রানের ঝকঝকে ইনিংস উপহার দিয়ে নায়ক বনে যান ওপেনার মুরলি বিজয়। সব ধরনের ক্রিকেটে ফেরার প্রত্যয় ব্যক্ত করেছেন তিনি। ‘প্রথম ম্যাচের ছন্দটা আমরা দ্বিতীয় ওয়ানডেতে ধরে রাখতে পরিনি। বিশেষ করে ব্যাটিং ভাল হয়নি। টপঅর্ডারে আরও ভাল ব্যাটিং করতে হবে। তবে দুটি ম্যাচ থেকে ইতিবাচক অনেক কিছু নেয়ার আছে। বিশেষ করে বল হাতে তরুণ মাদজিভা দারুণ করেছে। ব্যাট হাতে চিভাবা-মাতুম্বাইর মতো দায়িত্বশীল হতে হবে। শেষ ম্যাচে আরও ভাল ক্রিকেট খেলতে চাই।’

সর্বাধিক পঠিত:
পাতা থেকে: