১৭ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট ৬ ঘন্টা পূর্বে  
Login   Register        
ADS

পল্লবীতে বাড়ির সামনের ফুটপাথ থেকে ব্যবসায়ীর লাশ উদ্ধার


স্টাফ রিপোর্টার ॥ রাজধানীর পল্লবীতে এক রড-সিমেন্টের ব্যবসায়ীর রহস্যজনক মৃত্যু হয়েছে। পুলিশ বাড়ির সামনের ফুটপাথ থেকে তার লাশ উদ্ধার করেছে। মালিবাগ কাঁচাবাজার এলাকায় ট্রেনের ধাক্কায় এক বৃদ্ধ নিহত হয়েছে। এদিকে পল্টন ও সাভারের আশুলিয়ায় অভিযান চালিয়ে জাল স্ট্যাম্প তৈরির অভিযোগে দুজনকে আটক করেছে গোয়েন্দা পুলিশ। রবিবার পুলিশ ও মেডিক্যাল সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

স্থানীয় সূত্র জানায়, রবিবার ভোরের দিকে পুলিশ পল্লবীর কালশীর নতুন রাস্তা থেকে মমিন বক্স (৪৪) নামে এক রড-সিমেন্টের ব্যবসায়ীর লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। নিহত মোমিনের বাবার নাম মৃত সামাদ বক্স। তিনি স্ত্রী সন্তান নিয়ে পল্লবীর উত্তর কালশীর ১২ নম্বর সেকশনের ডি ব্লকের টেকেরবাড়িতে থাকতেন। পল্লবী থানার উপ-পরিদর্শক মনিয়ারা আক্তার জানান, লাশটি নতুন রাস্তার ওপর পড়েছিল। স্থানীয়রা খবর দিলে ঘটনাস্থল থেকে লাশটি উদ্ধার করে পুলিশ। পরে ময়নাতদন্তের জন্য ঢাকা মেডিক্যাল কজেল হাসপাতাল পাঠানো হয়। নিহতের ভাগ্নিজামাই মিনাল হোসেন জানান, মমিন বক্সকে ৮ জুলাই মোহাম্মদপুর তাজমহল রোড থেকে কে বা কারা তুলে নিয়ে যায়। পরে আর তার কোন খোঁজ পাওয়া যাচ্ছিল না। এ বিষয়ে থানায় মামলা করতে গেলে। পুলিশ মামলা নেয়নি। সকালে খবর পেয়ে মিনাল হোসেন মর্গে এসে মমিনের লাশ শনাক্ত করেন।

ট্রেনে কাটা পড়ে বৃদ্ধের মৃত্যু ॥ রবিবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে রাজধানীর মালিবাগ কাঁচাবাজার এলাকায় ট্রেনের ধাক্কায় সিদ্দিক মিয়া (৭০) নামে এক বৃদ্ধ নিহত হয়েছে। খবর পেয়ে ঢাকা রেলওয়ে পুলিশ তার লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য ঢামেক মর্গে পাঠানো হয়েছে।

জাল স্ট্যাম্পসহ গ্রেফতার দুজন ॥ রাজধানীর পল্টন ও সাভারের আশুলিয়ায় অভিযান চালিয়ে জাল স্ট্যাম্প তৈরির অভিযোগে কাজী তোফায়েল ও নাসির উদ্দিন নামে দু’জনকে গ্রেফতার করেছে গোয়েন্দা পুলিশ। ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের যুগ্ম কমিশনার মনিরুল ইসলাম জানান, শনিবার রাতে অভিযান চালিয়ে তাদের আটক করা হয়। এরা আগেও পুলিশের হাতে গ্রেফতার হয়েছিলেন। রবিবার সকালে ডিএমপির মিডিয়া সেন্টারে এক সংবাদ সংবাদ সম্মেলনে মনিরুল জানান, দুজনের কাছ থেকে ২৫ লাখ টাকা মূল্যমানের জাল রেভিনিউ স্ট্যাম্প উদ্ধার করা হয়েছে। তাদের সঙ্গে আর কারা জড়িত জিজ্ঞাসাবাদে তা জানার চেষ্টা করা হবে। গোয়েন্দা পুলিশের উপ-কমিশনার শেখ নাজমুল আলম ও মুনতাসিরুল ইসলাম এ সময় উপস্থিত ছিলেন।