২৩ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট ৮ ঘন্টা পূর্বে  
Login   Register        
ADS

গাইবান্ধার মহিমাগঞ্জের রংপুর চিনিকল ঘেরাও কর্মসূচী


নিজস্ব সংবাদদাতা, গাইবান্ধা ॥ গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার রংপুর মহিমাগঞ্জ চিনিকলে কর্মরত ৮শ’ ১২ জন শ্রমিক-কর্মচারী ৩ মাসের বেতন-বোনাস ও পোষণ ভাতা প্রাপ্তির দাবীতে রোববার মিল চত্বরে বিক্ষোভ মিছিল ও ঘেরাও কর্মসূচী পালন করে।

বিক্ষুব্ধ কর্মচারীরা মিছিল শেষে ব্যবস্থাপনা পরিচালকের প্রশাসনিক কার্যালয় ৯টা থেকে ৩ ঘন্টা ঘেরাও করে রাখে এবং ঈদের আগেও অবিলম্বে তাদের পাওনা বেতন-বোনাস ও কানামোনা (কাজ নাই মজুরী নাই) শ্রমিকদের পোষণ ভাতা পরিশোধের দাবি জানান। অন্যথায় সোমবার থেকে মিলগেটসহ অফিস তালাবদ্ধ করে লাগাতার আন্দোলনের কর্মসূচী আল্টিমেটাম প্রদান করেন।

ঘেরাও কর্মসূচী পালনকালে বক্তব্য রাখেন রংপুর মহিমাগঞ্জ চিনিকল শ্রমিক-কর্মচারি ওয়ার্কার্স ইউনিয়নের সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল মতিন, সাধারণ সম্পাদক মোস্তাফিজুর রহমান দুলালসহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ। উল্লেখ্য, রংপুর মহিমাগঞ্জ চিনিকল সুত্রে জানা গেছে, উৎপাদিত চিনি অবিক্রিত থাকায় অর্থাভাবে এ পর্যন্ত শ্রমিক-কর্মচারিদের প্রায় ২ কোটি টাকা বেতন-ভাতা পাওনা রয়েছে। এছাড়াও ৫শ‘ কানামোনা শ্রমিকের পোষণ ভাতা এখনও পরিশোধ করা হয়নি। আসন্ন ঈদের বাজার খরচ দূরে থাক ৩ মাস ধরে বেতন না পাওয়ায় অর্থাভাবে অধিকাংশ শ্রমিক-কর্মচারী পরিবার-পরিজন নিয়ে অর্ধাহারে-অনাহারে মানবেতর জীবন যাপন করছে। এদিকে ঈদ সামনে চলে আসায় এখন পর্যন্ত বেতন-বোনাস ও পোষণ ভাতা পরিশোধের কোন উদ্যোগ না নেয়ায় শ্রমিক-কর্মচারিরা বিক্ষুব্ধ হয়ে ওঠে এবং এই কর্মসূচী পালন করে।