মেঘলা, তাপমাত্রা ৩১.১ °C
 
২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৭, ১০ আশ্বিন ১৪২৪, সোমবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
সর্বশেষ

মোবাইলে লেনদেনে কড়াকড়ি

প্রকাশিত : ১২ জুলাই ২০১৫

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ মোবাইল ব্যাংকিংয়ের ওপর কড়াকড়ি আরোপ করেছে বাংলাদেশ ব্যাংক। ঈদকে কেন্দ্র করে যে কোন ধরনের আর্থিক অনিয়ম ঠেকাতে কেন্দ্রীয় ব্যাংক কঠোর নির্দেশনা দিয়েছে ব্যাংকগুলোকে। আর্থিক অনিয়ম, প্রতারণা ও অর্থপাচার ঠেকাতে ব্যাংকগুলোকে সতর্ক থাকার নির্দেশ দেয়া হয়েছে। মোবাইল ব্যাংকিংয়ে অস্বাভাবিক লেনদেন হলেই বাংলাদেশ ব্যাংককে জানাতে নির্দেশ দেয়া হয়েছে। সম্প্রতি কেন্দ্রীয় ব্যাংক দেশের সব বাণিজ্যিক ব্যাংকে নির্দেশ দিয়ে চিঠি দিয়েছে।

জানা গেছে, বর্তমানে দেশে ১৯টি ব্যাংকের প্রায় ২ কোটি ৬০ লাখ মোবাইল এ্যাকাউন্ট রয়েছে। এসব এ্যাকাউন্টের মাধ্যমে প্রতিদিন ৪২০ কোটি টাকা লেনদেন হয়। মোবাইল ব্যাংকিংয়ে স্বাভাবিক লেনদেনের পাশাপাশি বিভিন্ন সময় অনিয়মের অভিযোগ রয়েছে। এসব অভিযোগের মধ্যে বিভিন্ন প্রতারণামূলক ঘটনাও ঘটছে। ঈদকে কেন্দ্র করে এসব প্রতারণামূলক ঘটনা আরও বেড়েছে। গত দুই সপ্তাহে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের কাছে মোবাইল ব্যাংকিংয়ে শতাধিক প্রতারণামূলক ঘটনার অভিযোগ এসেছে। কেন্দ্রীয় ব্যাংকের তদন্তে দেখা গেছে, অনিয়মে অভিযুক্ত মোবাইল ব্যাংক হিসাবগুলো ভুয়া তথ্য দিয়ে তৈরি করা। গত মার্চ মাসে বাংলাদেশ ব্যাংক সব মোবাইল গ্রাহকের কেওয়াইসি (গ্রাহক তথ্য) ফরম পূরণ করে ৩০ জুনের মধ্যে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের কাছে জমা দিতে নির্দেশ দেয়া হয়। এ সময়ের মধ্যে ব্যাংকগুলো তা জমা দিতে পারেনি। এজন্য কেন্দ্রীয় ব্যাংক অতিদ্রুত কেওয়াইসি ফরম পূরণ করে জমা দিতে নির্দেশ দিয়েছে।

ক্ষুদ্রঋণ দেবে ভারতের কেন্দ্রীয় ব্যাংক

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ বিদেশী ব্যাংকগুলোর মধ্যে প্রথমবারের মতো ক্ষুদ্র ও মাঝারি (এসএমই) খাতে ঋণ বিতরণে আগ্রহ প্রকাশ করেছে স্টেট ব্যাংক অব ইন্ডিয়া। এজন্য বাংলাদেশের কেন্দ্রীয় ব্যাংকের এসএমই শাখার সঙ্গে ব্যাংকটি আনুষ্ঠানিক বৈঠক করবে। আজ রবিবার এ বৈঠক অনুষ্ঠিত হবে। কেন্দ্রীয় ব্যাংকের এসএমই বিভাগ সূত্রে এ তথ্য জানা যায়।

জানা যায়, বাংলাদেশে লাইসেন্স নিয়ে নিয়মিত ব্যাংকের কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে বিদেশী ব্যাংকগুলো। তবে এ পর্যন্ত কোন বিদেশী ব্যাংক এসএমই খাতে উল্লেখযোগ্য ভূমিকা রাখেনি। অথচ দেশের উন্নয়নে এসএমই খাতে সহজ শর্তে ঋণ দিতে আহ্বান জানিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক।

প্রকাশিত : ১২ জুলাই ২০১৫

১২/০৭/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


শীর্ষ সংবাদ: