২২ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

ছাড়পত্র পেল ‘অগ্নি টু’


স্টাফ রিপোর্টার ॥ অবশেষে আলোর মুখ দেখতে যাচ্ছে এবার ঈদের চলচ্চিত্র ‘অগ্নি টু’। অনেক আগেই মুক্তির ঘোষণা পেলেও আটকে ছিল বাংলাদেশ চলচ্চিত্র সেন্সর বোর্ডের ছাড়পত্রের আশায়। এর আগে এবার ঈদের তিনটি চলচ্চিত্রের ছাড়পত্র মিললেও ‘অগ্নি টু’র ভাগ্যে মেলেনি। বৃহস্পতিবার সেন্সর বোর্ড থেকে বিনা কর্তনে চলচ্চিত্রটির ছাড়পত্র পায়। এদিকে কয়েকমাস আগে থেকেই সিনেমাটি রীতিমতো হুলস্থ’ূল এক পরিবেশ সৃষ্টি করে দর্শকমহলে। মুক্তির আগেই নানান চমক দেখিয়ে এরই মধ্যে দর্শকদের আগ্রহেও কেন্দুবিন্দুতেও চলে এসেছে সিনেমাটি। সর্বশেষ গত মাসে সিনেমাটির ‘ম্যাজিক মামনি’ শিরোনামের গানটি ইউটিউবে প্রদর্শন শুরু হলে প্রথম চার দিনেই অতীতের সব রেকর্ড ভেঙে দেয়। দুই বাংলার সিনেমার ইতিহাসে সবচেয়ে ব্যয়বহুল এই সিনেমাটি যৌথভাবে প্রযোজনা করছে বাংলাদেশের জাজ মাল্টিমিডিয়া ও ভারতের এসকে মুভিজ। সিনেমাটি পরিচালনাও করেছেন যৌথভাবে বাংলাদেশের ইফতেখার চৌধুরী ও ভারতের হিমাংশু। অগ্নির মতো অগ্নি-টুতেও নাম ভূমিকায় অভিনয় করেছেন মাহিয়া মাহি। বিপরীতে রয়েছে কলকাতার ওম। অগ্নির মতো অগ্নি-টুতেও ভিন্নধারার এ্যাকশন লুকে দেখা যাবে মাহিকে। এই সিনেমার মাধ্যমে নিজেকে আরও একধাপ এগিয়ে নিয়ে যাবেনÑ এমনটাই প্রত্যাশা মাহির। সিনেমার জন্য অনেক কিছু কষ্ট এবং ত্যাগ স্বীকার করতে হয়েছে মাহিকে। নতুন করে নাচ এবং ফাইটের প্রশিক্ষণও নিতে হয়েছে তাকে। মাহি বলেন, নিজের অভিনয় নিয়ে বরাবরই আমি খুশি। অনেক অনেক শ্রম এবং ত্যাগ তিতিক্ষার ফসল অগ্নি-টু। আমি বিশ্বাস করি কষ্ট করলে কেষ্ট মেলে। আমার বিশ্বাস অগ্নি-টু যেমন মুক্তির আগেই আলোড়ন তুলেছে, মুক্তির পরেও একই ধারা অব্যাহত রাখবে। অতীতের সব রেকর্ড ভেঙে দিয়ে আরেকটি ইতিহাস করবে। আর আমিও হয়তো নিজেকে নতুন উচ্চতায় নিয়ে যাব। ‘অগ্নি-২’ সিনেমাটির আরও একটি চমক হলো ঈদে মুক্তির পর পরই বিশ্বের আরও ৮টি দেশে প্রদর্শিত হবে সিনেমটি। জাজ মাল্টিমিডিয়ার কর্ণধর আবদুল আজিজ বলেন, ঈদের পর আগামী ১৪ আগস্ট থেকে ভারত, চীন (চায়না ভাষায়), হংকং, মালয়েশিয়া (মালয় ভাষায়), ইংল্যান্ড, অস্ট্রেলিয়া, ইতালি ও আমেরিকাতে প্রদর্শিত হবে সিনেমাটি। এ দেশগুলোতে প্রদর্শনের সময় প্রচার-প্রচারণার জন্য সেখানে উপস্থিত থাকবেন সিনেমার প্রধান পাত্র-পাত্রী এবং সিনেমার পরিচালক ইফতেখার চৌধুরী।