২১ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

ঈদ মানে কি ঘুম না-আসা


দূর আকাশে মেঘের পাশে একফালি চাঁদ দুলল যেই

খুশির চোটে হাসল খোকা, নাচল খুকু চুল খুলেই।

বুলবুলিটা মিষ্টি সুরে শিসটি দিলো ফুলশাখায়...

চুলবুলানো মিঠেল হাওয়া বুবুর কানের দুল ঝাঁকায়।

চারদিকেতে খুশির দোলা, হাঁসরা ডাকে কাশবনে-

ঝিনিকঝিনিক ঝাঁঝর বাজায় ঝিল্লি দূরের বাঁশবনে।

খুশি খুশি কিসের খুশি... জোনাক জ্বলে ঝিকমিকি

বলল হাওয়া চুপচুপিয়ে ঈদ হবে রে কাল ঠিকই।

ঈদ মানে কি খুশির নাচন? ঈদ মানে কি ধুমধারাক-

ঈদ মানে কি ঘুম না আসা... যতোই মা সে ঘুম পাড়াক?

কোলের খুকু হাত-পা ছোড়ে হাসলে পড়ে টোল গালে...

আঁজির গাছে লক্ষ্মীপেঁচা দেয় খুশিতে দোল ডালে।

ঈদ হবে-রে ঈদ হবে-রে কাল সকালে ঈদ হবে...

এই খুশিরই আগের রাতে কে গিয়েছে নিদ কবে!

এই খুশি না একার খুশি, সবার খুশি এই খুশি-

ঈদের খুশির মতন আহা এই জগতে নেই খুশি!

গরিব-ধনী, লম্বা-বেঁটে, পাতলা-মোটা সব সমান

ঈদের খুশির আনন্দতে সব হয়ে যায় একপরান।

বছর শেষে একটি দিনের শিক্ষা আহা কী মধুর...

এমন যদি নিত্য হত বিশ্ব হতো স্বর্গপুর!

ঈদের দিনে সবাই তাজা

আলম তালুকদার

লিখতে গিয়ে ঈদের ছড়া

হয় না মজা হয় না কড়া।

যদিও থাকে একটু তাজা

সেটা দেখি বাদাম ভাজা।

ঈদের বাদাম খাচ্ছে রাজা

সেই বাদামের ভাঙা মাজা

মাজা ভাঙা হয় না সোজা

পথ্য হলো দশটা রোজা।

রোজা মানে পেটখালি

ছড়ায় ভীষণ জোড়াতালি।

টের পেয়েছে ছড়ার রাজা

ঈদের দিনে সবাই তাজা।

আজ সবারই ঈদ

নাসের মাহমুদ

চাঁদের সে এক টুকরো

লালঝুঁটি এক কুকরো

শুনছো ‘মনি’ ডাকে-

অনেক ভালোবেসে

তোমার কাছ এসে

ঈদের ছবিই আঁকে।

পাহাড় নদী ফুল

পায় না ভেবে কূল

তুমি এলেই ধন্য,

কাঠবেড়ালি পাখি

করছে ডাকাডাকি

শুধুই তোমার জন্য।

এই ঈদ

স.ম. শামসুল আলম

এই ঈদ হতে পারে গুণে মানে স্মরণীয়

সে-কারণে আমাদের আছে কিছু করণীয়।

উপহার দিতে পারি যারা থাকে বস্তিতে

মিলেমিশে থাকা যায় সকলেই স্বস্তিতে।

আনন্দ ভাগ করা দুঃসাধ্য কাজ নয়

চেষ্টাতে হবে সবইÑ কোন দ্বিধা আজ নয়।

ভালোবাসা বিলি করে পেতে পারি শান্তিও

ছোট-বড় এক হলে কমবে ভোগান্তিও।

এই ঈদে সখ্য নিজ থেকে গড়ে তুলি

সকলেই হাসি-গানে মন-প্রাণ ভরে তুলি।

মানুষে-মানুষে যেন কাছাকাছি আরও হয়

সেই কাজ করা হলে ভালোবাসা গাঢ় হয়।

আমাদের বন্ধনে সুখে রবে ধরণীও

শুভ কাজে এই ঈদ হয়ে যাক বরণীয়।

ইলিক মিলিক ঝিক

রিফাত নিগার শাপলা

ঈদের ছড়া

মিষ্টি কড়া

ইলিক মিলিক ঝিক

ঈদুল ফিতর

খুশিতে ওই

হাসল চতুর্দিক!

ভুললো সবাই

সব ভেদাভেদ

জাগলো নতুন সুর,

মনের যতো

দ্বন্দ্ব, দ্বিধা

আজ হলো সব দূর।

বছর ঘুরে

ঈদটা এলো

বাঁকা চাঁদের নায়,

ত্যাগ মহিমার

বন্ধনে তাই

আনন্দ মূর্ছায়।

আমাদের ঈদ কই

ফারহানা মোবিন

ঈদে তোমাদের নতুন সবকিছু,

আর অভাব থাকে আমাদের পিছু।

তোমাদের সব জামা দামী,

এক অভাগা পথ শিশু আমি।

তোমাদের চকচক বাড়ি গাড়ি,

আমাদের ময়লা ভাতের হাঁড়ি।

ঈদে তোমাদের নতুন উপহার,

আর আমাদের কষ্টের পাহাড়।

আমারও চাই

জামা, জুতা, বই,

জীবন ভরা কষ্ট

আমাদের ঈদ কই?

ইচ্ছে করে, ঈদে

করি হৈ চৈ,

জীবন ভরা কষ্ট

আমাদের ঈদ কই!

ঈদ মানে

মানজুর মুহাম্মদ

ঈদ মানে সব দুঃখগুলো থাকবে দূরে দূরে,

ধনী গরিব এক হয়ে গান গাইবে সুরে সুরে।

ঈদ মানে মন থাকবে উদার, থাকবে না দ্বেষ রাগ

ভালোবাসা সুখে সবার থাকবে সমান ভাগ।

ঈদ মানে ঐ জনম দুঃখী হাসবে খুলে দিল,

বুকের কথা পড়বে রে বুক, থাকবে মনের মিল।

খুশির সেরা

লোকমান আহম্মদ আপন

আকাশ থেকে ঝরছে কেবল

খুশির ধারা

ছেলে বুড়ো সবাই সুখে

আত্মহারা।

নতুন জামা নতুন জুতা

আতর মেখে

ঈদগাহে যায় পড়তে নামাজ

একে একে।

ঈদে সবাই সকল রকম

বিভেদ ভুলে

আনন্দ আর খুশি করে

হƒদয় খুলে।

ঈদের খুশি হলো সকল

খুশির সেরা

ঈদটা খোদার আশীষ দিয়ে

থাকে ঘেরা।