১৮ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

ঝিরঝির, ঝড়োবৃষ্টিতেও ধুমছে কেনাকাটা, দাম চড়া


স্টাফ রিপোর্টার, রাজশাহী ॥ কদিন ধরে রাজশাহী অঞ্চলে কখনও জোরে আবার কখনও ঝিরঝিরে বৃষ্টি লেগে আছে। শুক্রবার দুপুর পর্যন্ত ছিল বৃষ্টির রেশ। দুপুর গড়িয়ে আকাশ পরিষ্কারের সঙ্গে সঙ্গে মানুষ বাজারমুখী হতে শুরু করে। কয়েকদিনের কেনাকাটায় সামান্য ছেদ পড়লেও ছুটির দিনের বিকেলে বাজারমুখী মানুষের ভিড় বাড়ে দোকানে দোকানে। হাল্কা বৃষ্টি উপেক্ষা করে কেনাকাটার জন্য উন্মুখ মানুষ দলে দলে বেরিয়ে আসছেন রাস্তায়। গন্তব্য ঈদের বাজার। ঈদ যতই কাছে আসছে ততই ভিড় বাড়ছে। শহর থেকে শুরু করে গ্রামে বৃষ্টি উপেক্ষা করে মানুষ ভিড় করছেন বাজারে ও বিভিন্ন শপিংমলে। নগরীর সাহেববাজার, আরডিএ বাজার, নিউমার্কেটে যেমন মানুষের ঢল তেমনি উপজেলার মার্কেটগুলোতে মানুষের উপচেপড়া ভিড়। কিরণমালা, পাখিসহ নানান নামের বাহারি পোশাকে সাজানো দোকানে চলছে ধুমছে কেনাকাটা। বিক্রেতারা নিঃশ্বাস ফেলার সময় পাচ্ছেন না।

নগরীর নিউমার্কেট এলাকায় ঈদের বাজার করতে আসা গৃহবধূ রুখসানা আক্তার বলেন, তার ছোটবোন কলেজে পড়ে। তার বায়না কিরণমালা নেবে। কিন্তু দামটা অনেক বেশি মনে হচ্ছে। তবু দেখেশুনে একটা কিনতে হবে। কাপড় ব্যবসায়ীরা জানান, এবার মেয়েদের ছিটকাপড় বিক্রির পালা শেষ হয়েছে। এখন চলছে বিভিন্ন থ্রি-পিচ, স্যালোয়ার-কামিজ, শিশু-কিশোরদের জামা। ক্রেতাদের চাহিদার সঙ্গে সমন্বয় করে সরবরাহ করা হচ্ছে বিভিন্ন ব্র্যান্ডের কাপড়। তবে ক্রেতাদের অভিযোগ, কাপড়ের দাম এবারে বেশ বেশি। সেকারণে দামে মিলছে না। বাজারে ঘুরে ঘুরে নিজের পছন্দ মতো কাপড় কিনতে পারছে না অনেকেই। সাগর পাড়া থেকে আসা মুক্তা নামে এক ক্রেতা বলেন, রোজার প্রথম দিকে ছিটকাপড় কিনেছি। দাম যাই হোক না কেন নতুন কাপড় ছাড়া কি ঈদের আনন্দ হয়? তবে থ্রি-পিস ও শাড়ি কিনতে এসে তার মাথা এলোমেলো হয়ে যাচ্ছে।

নগরীর পাশাপাশি জেলার বিভিন্ন উপজেলার মার্কেটগুলোতেও সমানতালে ভিড়। রাজশাহীর বাগমারা উপজেলা সদর, ভবানীগঞ্জ বাজারসহ ১৬টি ইউনিয়ন ও দুটি পৌরসভার বিভিন্ন মার্কেট ও বিপণি বিতানে পুরোদমে ঈদের কেনাকাটা শুরু হয়েছে। উপজেলার বাজারগুলোতে ভারতীয় পণ্যের আধিক্য দেখা যাচ্ছে। জেলার গোদাগাড়ী, কাকনহাট, মু-ুমালা, তানোর, মোহনপুর, ভবানীগঞ্জ, নওহাটা, দুর্গাপুর, পুটিয়া, চারঘাট ও বাঘার বিভিন্ন মার্কেটে কেনাবেচা শুরু হয়েছে জোরেশোরে।

বরিশালেও ঈদের মার্কেটে ভিড়

স্টাফ রিপোর্টার, বরিশাল থেকে জানান, তিনদিনের টানা বৃষ্টি ঘরে আটকাতে পারেনি বরিশাল নগরীসহ জেলার দশটি উপজেলার ক্রেতাদের। শুক্রবার ছুটির দিনে বৃষ্টি উপেক্ষা করে নগরীর প্রতিটি মার্কেট ও বিপণী বিতানগুলোতে দেখা গেছে ঈদের আমেজ। সব দোকানেই ছিলো ক্রেতাদের উপচে পড়া ভীড়। তরুনী ও যুবতীদের কাছে ভারতীয় বিভিন্ন সিরিয়ালের নামে বাজারে আসা কিরণমালার চাহিদা সবচেয়ে বেশি। তরুন ও যুবকদের কাছে ভারতের বর্তমান প্রধানমন্ত্রী মোদী কোর্ট ও পাঞ্জাবির চাহিদাও ব্যাপক।