২০ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

জমে উঠেছে প্রিমিয়ার ফুটবল লীগ


স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ যতই দিন গড়াচ্ছে, ততই জমে উঠেছে বাংলাদেশের ঘরোয়া ফুটবলের সবচেয়ে বড় আসর ‘মান্যবর বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লীগ’ ফুটবলের খেলা। ইতোমধ্যেই শেষ হয়েছে দ্বিতীয় লেগ এবং ১৪তম রাউন্ডের খেলা। ৯৫ ম্যাচের মধ্যে শেষ হয়েছে ৭০ ম্যাচ। বড় দলগুলো পয়েন্ট হারানোয় এবং ছোট দলগুলো অঘটন ঘটানোয় প্রতিনিয়ত আকর্ষণীয় হয়ে উঠেছে লীগের খেলা। সেই সঙ্গে বাজে রেফারিংও হয়ে উঠেছে আলোচিত ঘটনা। একজন গোল করলে সেই গোলের মালিক বানিয়ে দেয়া হয়েছে আরেকজনকে- এমন অদ্ভুত ঘটনাও ঘটে। শেখ জামালের নাইজিরিয়ান ফরোয়ার্ড এমেকা ডালির্ংটনের ভিন্ন ম্যাচে ২টি পরিষ্কার গোল করলেও স্কোরশিটে সেই গোলের মালিক হিসেবে লেখা হয়েছে হাইতিয়ান ফরোয়ার্ড ওয়েডসন এ্যানসেলমে এবং গাম্বিয়ান মিডফিল্ডার ল্যান্ডিং ডার্বোয়ের নাম!

১৩ ম্যাচে সর্বাধিক ৩০ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের শীর্ষ অবস্থান এখনও ধরে রেখেছে গত লীগের চ্যাম্পিয়ন ‘বেঙ্গল ইয়োলোস’ খ্যাত শেখ জামাল ধানম-ি ক্লাব লিমিটেড। দ্বিতীয় পর্বে তারা ফরাশগঞ্জকে রেকর্ড ৯-১ গোলে হারালেও পরের ম্যাচে রহমতগঞ্জের সঙ্গে ২-২ গোলে ড্র করে হোটচ খায়। তারপরের ম্যাচে অবশ্য আবারও ছন্দ ফিরে পায় ফেনী সকারকে ৬-২ গোলে হারিয়ে।

২৬ পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে ‘ব্ল্যাক এ্যান্ড হোয়াইট’ খ্যাত মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাব লিমিটেড। দ্বিতীয় পর্বে তারা চট্টগ্রাম আবাহনী ও বিজেএমসিকে হারালেও শেখ রাসেলের কাছে ভাল খেলেও হেরে গিয়ে জামালের সঙ্গে পয়েন্টের ব্যবধান কমানোর সুযোগ হারায়।

২৬ পয়েন্ট নিয়ে ‘বেঙ্গল ব্লুজ’ খ্যাত রাসেল আছে তৃতীয় স্থানে। গোল তফাতে তারা মোহামেডানের চেয়ে পিছিয়ে থাকায় আপাতত এই অবস্থানে। দ্বিতীয় লেগে টানা দুই ম্যাচে ব্রাদার্স ইউনিয়ন ও মোহামেডানকে হারিয়ে উঠে এসেছে শিরোপা রেসের দ্বৈরথে।

২৪ পয়েন্ট নিয়ে চার নম্বরে আছে ‘স্কাই ব্লু ব্রিগেড’ খ্যাত ঢাকা আবাহনী লিমিটেড। দ্বিতীয় পর্বে রহমতগঞ্জ ও ফেনী সকারকে হারালেও চট্টগ্রাম আবাহনীর সঙ্গে ড্র করে খানিকটা পিছিয়ে পড়ে তারা।

২৪ পয়েন্টও ব্রাদার্সেরও। ‘দ্য অরেঞ্জ ব্রিগেড’ খ্যাত গোপীবাগের দলটি দ্বিতীয় পর্বে তিন ম্যাচের ১টিতে ড্র ও ১টিতে হেরে অনেকটাই পিছিয়ে পড়ে। বিজেএমসির সঙ্গে ড্র ও রাসেলের কাছে হারে তারা।

২১ পয়েন্ট নিয়ে ছয় নম্বরে আছে ‘বেঙ্গল রেডস’ খ্যাত বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদ ক্রীড়া চক্র। দ্বিতীয় পর্বে তিন ম্যাচে এখনও জয়হীন তারা। ফলে আছে অনেকটাই বেকায়দায়। হেরেছে বিজেএমসির কাছে। আর পয়েন্ট নষ্ট করে ড্র করে ফেনী সকার ও চট্টগ্রাম আবাহনীর সঙ্গে।

প্রথম পর্বে পয়েন্ট টেবিলের নিচের দিকে থাকলেও উইন্ডো ট্রান্সফারে নতুন ও বিদেশী ফুটবলার দলভুক্ত করে অনেকটাই খারাপ অবস্থা কাটিয়ে উঠেছে সরকারী পৃষ্ঠপোষকতার দল টিম বিজেএমসি। দ্বিতীয় পর্বে তারা মোহামেডানের কাছে হারলেও শক্তিশালী ব্রার্দাসকে রুখে দেয়। এছাড়া হারায় আরেক শক্তিশালী মুক্তিযোদ্ধাকে। তাদের পয়েন্ট ১২। অবস্থান সপ্তম।

রেলিগেশনের ফাঁদে পড়ার সম্ভাবনা আছে যে চার দলের, তাদের মধ্যে সবচেয়ে ভাল অবস্থা ‘আইলো’, ‘ডাইলপট্টি’ এবং ‘জায়ান্ট কিলার’ খ্যাত রহমতগঞ্জের। দ্বিতীয় পর্বে ঢাকা আবাহনীর কাছে লড়াই করে হারলেও চমক দেখিয়েছে ফেবারিট শেখ জামালকে রুখে দিয়ে। রহমতগঞ্জের পয়েন্ট ১০।

এছাড়া ফেনী সকার ৯ পয়েন্ট নিয়ে নবম, চট্টগ্রাম আবাহনী ৭ পয়েন্ট নিয়ে দশম এবং ‘নীলকুঠি’ খ্যাত ফরাশগঞ্জ ৪ পয়েন্ট নিয়ে আছে সবশেষ একাদশ স্থানে।