২০ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

বৃষ্টির বাগড়ায় চিন্তিত দু’দলই


বৃষ্টির বাগড়ায় চিন্তিত দু’দলই

মিথুন আশরাফ ॥ টি২০ সিরিজ শেষ। এখন ওয়ানডে সিরিজে নামার পালা। আজ প্রথম ওয়ানডে দিয়ে শুরু হয়ে যাচ্ছে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ। যেভাবে বৃষ্টি পড়েই চলেছে, তাতে ওয়ানডে সিরিজ শুরু হচ্ছে বৃষ্টির শঙ্কা নিয়েই। যেহেতু রিজার্ভ ডে নেই, বৃষ্টি পড়তে থাকলে শেষ ২০ ওভার পর্যন্ত খেলানো যায় কি না দেখা হবে। তা যদি না পারা যায় তাহলে ম্যাচ পরিত্যক্ত ঘোষণা করা হবে।

ওয়ানডে সিরিজটির জন্য আসলে অপেক্ষায় আছে ক্রিকেটাররা থেকে শুরু করে সবাই। ওয়ানডেতে যে টানা জয়ের মধ্যে আছে বাংলাদেশ। এ ফরমেটে যে বাংলাদেশ বেশি ভাল খেলে। ওয়ানডের যে ধারাবাহিকতা, তা থাকলে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষেও যে জয়ের আনন্দে মাতার কথা!

দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে সিরিজ জয় সম্ভব নয়। তা এ মুহূর্তে সবারই মনে হচ্ছে। টি২০ সিরিজে যেভাবে বাংলাদেশকে সহজেই হারিয়েছে দক্ষিণ আফ্রিকা, তাতে ওয়ানডে সিরিজেও জিততে পারে প্রোটিয়ারাই; সেই ধারণা সবার মধ্যেই হয়ে গেছে। বিশ্বের বিস্ফোরক ব্যাটসম্যান এবি ডি ভিলিয়ার্স ওয়ানডেতে নেই। এরপরও হাশিম আমলা, ডেভিড মিলার, ফাফ ডু প্লেসিস, জেপি ডুমিনিদের নিয়ে গড়া ব্যাটিং আক্রমণ যে কোন দলকে হারাতে সক্ষম। সেই সঙ্গে স্পিনে ইমরান তাহির ও পেস আক্রমণে কাইল এ্যাবোটের সঙ্গে মরনে মরকেল আছেন। সব বিভাগেই শক্তিশালী দল দক্ষিণ আফ্রিকা। তবে আজ প্রথম, ১২ জুলাই দ্বিতীয় ও ১৫ জুলাই তৃতীয় ওয়ানডের মধ্যে যে কোন একটি ম্যাচে তো বাংলাদেশ জিততেই পারে। জিতলেই আনন্দ করার উপলক্ষও মিলবে। প্রথম টি২০তে ৫২ রানে ও দ্বিতীয় টি২০তে ৩১ রানে হারের পর একটি জয় স্বস্তিও এনে দেবে। সেই সঙ্গে ২০১৭ সালে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি খেলাও কোন দ্বিধা-দ্বন্দ্ব ছাড়াই নিশ্চিত করার উৎসবও এবার পরিপূর্ণভাবে করা যাবে।

পারবে বাংলাদেশ অন্তত এক ম্যাচে জিততে? জিম্বাবুইয়ের পর পাকিস্তানকে সিরিজে হারিয়েছে বাংলাদেশ। দাপটের সঙ্গেই। বিশ্বের সেরা ব্যাটিং শক্তির দল ভারতকেও সিরিজে হারিয়েছে। তাহলে দক্ষিণ আফ্রিকাকে সিরিজে না হোক অন্তত এক ওয়ানডেতে কী হারানো যাবে না? টি২০ সিরিজের আগে দক্ষিণ আফ্রিকা শক্তিশালী দল বলায় যে ক্রিকেটারদের মনোবলে আঘাত এসেছিল, এবার বাংলাদেশ অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা মনোবল চাঙ্গা করারই চেষ্টা করেছেন। বলেছেন, ‘বাংলাদেশের মাটিতে ভারত-পাকিস্তানের মতো সমান শক্তির দল দক্ষিণ আফ্রিকা। এর আগে সিরিজগুলোতে যে ধারাবাহিকতা ছিল, তা ধরে রাখার চেষ্টা করে যাব।’ তাতেই বোঝা যাচ্ছে, মাশরাফি এবার জয়ের ভাবনাই করছেন। এ কাজটি বুধবার তামিম সবার আগে করেছেন। বলে দিয়েছেন, ‘দক্ষিণ আফ্রিকা সিরিজ জিতে যাবে, তা বলতে পারবে না।’ তার মানে বোঝাই যাচ্ছে, একটি জয়ের আশা আছেই। যদি সুযোগ কোনভাবে মিলে যায়, সিরিজ জয়ও যে হবে না সেই নিশ্চয়তাও কী আছে? বাংলাদেশ তো এর আগে রাঘব বোয়ালদের সিরিজে হারিয়ে তার প্রমাণও দিয়েছে।

আগের সিরিজের সঙ্গে তুলনা করতে গিয়ে বাংলাদেশ ওপেনার তামিম বলেছেন, ‘পাকিস্তান, ভারত কোন দলের বিপক্ষে আমরা জোর গলায় বলিনি সিরিজ জিতে যাব। বলেছি, আমরা যদি আমাদের কাজটা ঠিকভাবে করি জিততে পারি। একই জিনিস হবে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষেও। ওরাও কিন্তু বলতে পারবে না আমরা সিরিজ জিতে যাব। ওদেরও ভাল খেলতে হবে। বিশ্বকাপ থেকে শুরু করে শেষ দুই সিরিজে আমরা যেভাবে সব ঠিক করে আসছি সেটা যদি করতে পারি তাহলে অবশ্যই ম্যাচ জেতা সম্ভব, সিরিজ জিতব কি না সেটা তিন ম্যাচের বিষয়।’

তামিম এবার সর্বপ্রথম সাহস দেখালেন। যেখানে কোচ চন্দ্রিকা হাতুরাসিংহে, অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা, অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান বলছেন, ‘বাংলাদেশ ফেবারিট নয়’, সেভাবে তামিম জয়ের আশাবাদই দেখিয়েছেন। তা যে অমূলক নয়, তা দক্ষিণ আফ্রিকা পেসার রায়ান ম্যাকলারেনের কথাতেই স্পষ্ট হয়ে গেছে। তিনি বলেছেন, ‘আমি মনে করি ওয়ানডের উইকেট এমন থাকবে না; একেবারেই আলাদা হবে। তাছাড়া বাংলাদেশ কিন্তু ভারতের বিপক্ষে শেষ সিরিজে জিতেছে। মানসিকভাবে তারা অনেক উপরে আছে। ভিলিয়ার্স না থাকলেও দলে হাশিম আমলারা আছেন। স্পিনার ইমরান তাহিরও আছেন। তবে টি২০র মতো এত সহজ হবে না সিরিজ। বাংলাদেশের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজে খেলা অনেক কঠিন হবে।’

একই কথা বৃহস্পতিবার সিরিজ পূর্ব সংবাদ সম্মেলনে দক্ষিণ আফ্রিকা অধিনায়ক হাশিম আমলার মুখ থেকেও বের হয়েছে। আমলা বলেছেন, ‘টি২০ সিরিজে জেতা গেছে। ওয়ানডেতে কঠিন প্রতিদ্বন্দ্বিতাই হবে। ওয়ানডেতে বাংলাদেশ অন্যরকম দল।’

বাংলাদেশ যে ওয়ানডেতে শক্তিশালী দল হয়ে উঠেছে, তা বুঝেছে পাকিস্তান ও ভারত। এবার যদি দক্ষিণ আফ্রিকাকেও হারানো যায়, তাহলে আনন্দের সীমা থাকবে না। বাংলাদেশ বিশ্ব ক্রিকেট আগেই কাঁপিয়ে দিয়েছে। দক্ষিণ আফ্রিকাকেও হারালে সেই কম্পনের শক্তি আরও বেড়ে যাবে। ভবিষ্যত সফরসূচীতেও নিশ্চয়ই এর প্রভাব পড়বে। সঙ্গে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে খেলাও নিশ্চিত হয়ে যাবে। তবে বৃষ্টি ঠিকই শঙ্কা জাগাচ্ছে।

বৃহস্পতিবার সারাদিন বৃষ্টি পড়ল। সিরিজজুড়ে সেই সম্ভাবনা আছে। তাতে করে আজ সিরিজের প্রথম ওয়ানডেতে শুধু নয়, পুরো সিরিজের খেলা না হওয়ার সম্ভাবনা থাকছে। বৃষ্টির শঙ্কা নিয়েই আজ শুরু হচ্ছে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ।

সম্পর্কিত:
পাতা থেকে: