১৩ ডিসেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

আবারও সেরেনা-শারাপোভা দ্বৈরথ


আবারও সেরেনা-শারাপোভা দ্বৈরথ

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ সেরেনা উইলিয়ামসের জয়রথ ছুটছেই। মঙ্গলবার টুর্নামেন্টের কোয়ার্টার ফাইনালে ভিক্টোরিয়া আজারেঙ্কাকে হারান তিনি। উইম্বল্ডনের শীর্ষ বাছাই সেরেনা উইলিয়ামস এদিন ৩-৬, ৬-২ এবং ৬-৩ গেমে হারান বেলারুশ সুন্দরী ভিক্টোরিয়া আজারেঙ্কাকে। আর এই জয়ের ফলে সেমিতে আরেকটি কঠিন লড়াই দেখার সুযোগ পেল টেনিসপ্রেমীরা। কেননা শেষ চারেই যে সেরেনার প্রতিপক্ষ হিসেবে কোর্টে নামবেন মারিয়া শারাপোভা। শেষ আটের লড়াইয়ে একইদিনে রাশিয়ান এই গ্ল্যামারগার্ল পরাজিত করেন আমেরিকার কোকো ভেন্ডেওয়েঘেকে। টুর্নামেন্টের চতুর্থ বাছাই মারিয়া শারাপোভা ৬-৩, ৬-৭ এবং ৬-২ গেমে হারান ভেন্ডেওয়েঘেকে।

বয়স তেত্রিশকেও ছাড়িয়ে গেছেন সেরেনা উইলিয়ামস। বয়সের সঙ্গে বাড়ছে তার ঝাঁজও। যা ভালই টের পাচ্ছেন তার প্রতিপক্ষরা। গ্র্যান্ডসøামে যেন আরও অপ্রতিরোধ্য। মেজর এই টুর্নামেন্টের শেষ ২৬ ম্যাচে অপরাজিত সেরেনা। তাছাড়া প্রতিযোগিতামূলক সব ধরনের শেষ সাত ম্যাচের সবই জয় পেয়েছেন তিনি। আর চলতি মৌসুমে ১৩ ম্যাচ খেলে তার ১০টিতেই জয়ের দেখা পেয়েছেন আমেরিকান এই টেনিস তারকা। তার সামনে এখন শারাপোভা বাধা। অবশ্য সেরেনার ক্ষেত্রে বাধা কথাটা সঠিকভাবে প্রযোজ্য হয় না। কেননা রাশিয়ান টেনিস তারকা শারাপোভার বিপক্ষে সবসময়ই ফেবারিট হিসেবে কোর্টে নামেন সুদীর্ঘ ক্যারিয়ারে বিশ গ্র্যান্ডসøামজয়ী সেরেনা উইলিয়ামস।

এখন পর্যন্ত সেরেনা ১৭-২ ব্যবধানে এগিয়ে রয়েছেন শারাপোভার বিপক্ষে। আর উইম্বল্ডনে যেন আরও দুর্বার আমেরিকান তারকা। সেমিতে সেরেনা-শারাপোভা এখন পর্যন্ত চারবার মুখোমুখি হয়েছেন। যার সবই এককভাবে দাপট দেখিয়ে জিতেছেন সেরেনা। সর্বশেষ ২০১০ সালের শেষ ষোলোতে মুখোমুখি হওয়া শারাপোভাকে হারিয়ে জয়ের হাসি হেসে ছিলেন সেরেনা। তবে রাশিয়ান তারকার সামনে অনুপ্রেরণা ২০০৪ সালের ফাইনাল। সেবার অবিশ্বাস্য পারফর্মেন্স উপহার দিয়ে ফেবারিট সেরেনা উইলিয়ামসকে হারিয়ে শারাপোভা চমকে দিয়েছিলেন গোটা টেনিস বিশ্বকে। তাই মাশার বিপক্ষে শেষ চারের লড়াইয়ের আগে দারুণ সতর্ক সেরেনা। এ বিষয়ে আমেরিকান টেনিস তারকা বলেন, ‘মারিয়া বর্তমানে খুব ভাল টেনিস খেলছে। তার আজকের (মঙ্গলবার) ম্যাচটাও দেখলাম। সে একজন সত্যিকারের লড়াকু। তার এই অবস্থাটা দেখতে আমার সবসময় ভাল লাগে।’

উইম্বল্ডনে এই দুই তারকার শেষ লড়াই হয়েছিল পাঁচ বছর আগে। তাই এবারের লড়াইটা জমবে বলেই ধারণা করছেন টেনিসবোদ্ধারা। সেরেনা উইলিয়ামসও চাচ্ছেন দীর্ঘদিন পরে হলেও কোন কিছুই যেন তার বিপক্ষে না যায়। এ বিষয়ে শীর্ষ বাছাই সেরেনা বলেন, ‘উইম্বল্ডনে আমরা দীর্ঘদিন ধরেই একে অপরের মুখোমুখি হয়নি। তারপরও আমার দৃষ্টি শুধুই সামনের দিকে এগিয়ে যাওয়া। শারাপোভার বিপক্ষে ম্যাচে আসলে আমি কিছুই হারাতে চাই না।’ গত বছরের শেষ গ্র্যান্ডসøাম টুর্নামেন্ট ইউএস ওপেনে চ্যাম্পিয়ন হয়েছিলেন সেরেনা। এর ফলে টেনিস র‌্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষে থেকেই মৌসুম শেষ করেছিলেন তিনি। চলতি মৌসুমেও পারফর্মেন্সের ধারাবাহিকতা ধরে রাখেন সেরেনা। মৌসুমের প্রথম গ্র্যান্ডসøাম টুর্নামেন্ট অস্ট্রেলিয়ান ওপেনে শিরোপা জেতার পর ফ্রেঞ্চ ওপেনের শিরোপাও পুনরুদ্ধার করেন তিনি। যে কারণে এখন উইম্বল্ডন জয়ের বিকল্প ভাবছেন না এই কৃষ্ণকলি।

শারাপোভার সময়টা মোটেই ভাল যাচ্ছে না। গত মৌসুমে ফ্রেঞ্চ ওপেনে শেষ মেজর টুর্নামেন্ট জয়ের স্বাদ পেয়েছিলেন তিনি। এরপরের সময়টা শুধু নিষ্প্রভতার মধ্য দিয়েই কেটেছে তার। ২০০৪ সালে এই উইম্বল্ডনেই ক্যারিয়ারের প্রথম গ্র্যান্ডসøাম টুর্নামেন্ট জিতেছিলেন শারাপোভা। দীর্ঘদিন পর রাশিয়ান তারকার সামনে আবারও ফাইনালে উঠে চ্যাম্পিয়ন হওয়ার সুযোগ। তবে প্রতিপক্ষ যেহেতু সেরেনা উইলিয়ামস সেক্ষেত্রে শারাপোভার জন্য অগ্নি-পরীক্ষাই। যদিওবা রাশিয়ান তারকার বিশ্বাস প্রতিপক্ষ যে কেউই হোক না কেন নিজের সেরাটা ঢেলে দিতেই কোর্টে নামবেন তিনি।

সর্বাধিক পঠিত:
পাতা থেকে: