২৪ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট ৬ ঘন্টা পূর্বে  
Login   Register        
ADS

চলচ্চিত্রে নিজের চরিত্রকেই তুলে ধরবেন শাকিব ॥ অলিক


নাট্য ও চলচ্চিত্র নির্মাতা এস এ হক অলিক। ‘হৃদয়ের কথা’ ও ‘আকাশছোঁয়া ভালোবাসা’ চলচ্চিত্র দুটি নির্মাণের জন্য বেশ প্রশংসাও পেয়েছেন তরুণ এই পরিচালক। এবার ঈদ-উল-ফিতরে মুক্তি পেতে যাচ্ছে তার নির্মিত তৃতীয় চলচ্চিত্র ‘আরো ভালোবাসবো তোমায়’। চলচ্চিত্রটির কাহিনী, সংলাপ, চিত্রনাট্য ও গান লিখেছেন পরিচালক নিজেই। সম্প্রতি বাংলাদেশ চলচ্চিত্র সেন্সর বোর্ড থেকে ছাড়পত্র পেয়েছে চলচ্চিত্রটি। চলচ্চিত্রের অন্যান্য বিষয় নিয়ে তরুণ এ নির্মাতার সঙ্গে কথা হয়।

‘আরো ভালোবাসবো তোমায়’ কী ধরনের চলচ্চিত্র?

অলিক : আমি মনে করি পুরোপুরি একটি ভালোবাসার চলচ্চিত্র। তবে আমার এ চলচ্চিত্রে প্রেমের প্রকাশটা আলাদা। এ চলচ্চিত্রের নায়কের ভূমিকায় শাকিব খান এবং নায়িকা পরীমনি। অপরিচিত মেয়ের সঙ্গে টেলিফোনে কথা হয় এ চলচ্চিত্রের নায়কের। সেই অপরিচিত মেয়েই এ নায়িকা। কোন এক সময় সে তার প্রেমে পড়ে। তাকে সে চোখে দেখে নাই কিন্তু ভালোবাসার আবেগ তার ভেতর কাজ করে পুরোমাত্রায়। এক সময় নায়ক মেয়েটাকে দেখতে যায়। এভাবেই মূলত শুরু হয় গল্প।

চলচ্চিত্রের মধ্যে কী ধরনের চমক আছে?

অলিক : একটি পূর্ণাঙ্গ চলচ্চিত্রকে দাঁড় করানো হয়েছে এতে। তবে দর্শকের জন্য একটি ম্যাসেজ আছে, যেটা হলো চলচ্চিত্রের নায়ক শাকিব খান নিজের চরিত্রকেই উপস্থাপন করবেন এতে। তার জীবনে ঘটে যাওয়া বাস্তব ঘটনাকে চলচ্চিত্রের মাধ্যমে উপস্থাপন করবেন তিনি।

চলচ্চিত্রটির প্রযোজনা করছে কোন প্রতিষ্ঠান?

অলিক : তানজীব ফিল্মের ব্যানারে মুক্তি পাচ্ছে চলচ্চিত্রটি। চলচ্চিত্রটি প্রডিউসার খোরশেদ আলম খসরু।

চলচ্চিত্রটিতে আর কারা অভিনয় করেছেন?

অলিক : সোহেল রানা, চম্পা, সাদেক বাচ্চু, আফজাল শরীফ, ববিসহ আরও অনেকে অভিনয় করেছেন এ চলচ্চিত্রে।

চলচ্চিত্রটির গান সম্পর্কে বলুন...

অলিক : চলচ্চিত্রটির সব গান আমি নিজেই লিখেছি। এর আবহ সঙ্গীত পরিচালনা করেছেন ইমন সাহা। কণ্ঠ দিয়েছেনÑ হাবিব ওয়াহিদ, পড়শি, এসআই টুটুল, কোনাল, লেজিস কিশোর ও হৃদয় খান। তবে ‘কোনভাবে ছেড়ে যাব তোমায়’ শিরোনামের গানটি লিখেছেন কবির বকুল এবং কণ্ঠ দিয়েছেন হৃদয় খান।

আপনার এ চলচ্চিত্রের নতুনত্ব কী থাকছে?

অলিক : আগেই বলেছি সম্পূর্ণ প্রেমের একটি চলচ্চিত্র। তবে প্রেমের উপস্থাপনা ভিন্ন। আমি এতে কিছু কিছু দৃশ্য ধারণ করেছি, দর্শক বাংলা চলচ্চিত্রে এর আগে যা দেখেনি। লোকেশন, সেট নির্মাণ, কিছু চমকপ্রদ দৃশ্য দর্শকের মন কাড়বে। বিদেশী চলচ্চিত্রের প্রভাব আমার চলচ্চিত্রে নাই। মৌলিক এবং সম্পূর্ণ দেশীয় গল্পের অবতারণা করা হয়েছে চলচ্চিত্রে।

চলচ্চিত্রটি কতগুলো হলে মুক্তি দেয়ার ইচ্ছে আছে?

অলিক : এখনও সেসব নির্ধারণ করা হয়নি। তবে দেশের সর্বাধিক সিনেমা হলে মুক্তির কাজ চলছে।

চলচ্চিত্রটি নিয়ে কেমন আশাবাদী?

অলিক : দেখুন, ‘হৃদয়ের কথা’ ও ‘আকাশছোঁয়া ভালোবাসা’ চলচ্চিত্র দুটি নির্মাণের পর আমি যে দর্শকপ্রিয়তা পেয়েছি সেটাকে ধরে রাখার চেষ্টা করছি। চলচ্চিত্র দুটি নির্মাণের পরপরই শুরু করেছিলাম ‘এক পৃথিবী প্রেম’ ও ‘আরো ভালোবাসবো তোমায়’ চলচ্চিত্রের কাজ। কার্যত এটিই মুক্তি পেতে যাচ্ছে এবার ঈদে। চলচ্চিত্রটি নিয়ে আমি খুবই আশাবাদী। এ সময়ের দর্শকপ্রিয় নায়ক ও নায়িকা শাকিব খান এবং পরীমনি। তাদের কথা এবং সর্বোপরি আমার চলচ্চিত্রের গল্প ও এর গাঁথুনী বিবেচনা করে মনে করছি সফলতা পাব। দর্শক হলে গিয়ে এটি দেখে নিজের জীবনের গল্প খুঁজে পাবে এর মধ্যে।

বাংলাদেশের চলচ্চিত্রের বর্তমান প্রেক্ষাপট কেমন?

অলিক : চলচ্চিত্রের বর্তমান প্রেক্ষাপট নিয়ে কথা বলায় ঝামেলা আছে। তবে চলচ্চিত্রে যে আমরা একটি সুন্দর সময় পার করছি তা কিন্তু নয়। দেশে কোন এক সময় ১২-১৩শ’ সিনেমা হল ছিল, এখন কমতে কমতে মাত্র কয়েক শ’ আছে। দর্শক হলমুখী হতে চাইছে না। এসব মিলিয়ে চলচ্চিত্রের একটা দুঃসময় যাচ্ছেÑ এটা সত্যিই। তবে উত্তরণের সম্ভাবনা যে মোটেই নেই, এটা কিন্তু ঠিক নয়। চলচ্চিত্র ডিজিটালাইজড হচ্ছে, ভাল ভাল কিছু নির্মাতা আসছেন। দর্শকের চাহিদা অনুযায়ী সিনেমা তৈরি করলে হয়ত চলচ্চিত্রের সোনালী দিন আবার ফিরে আসবে। -গৌতম পা-ে