১৯ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট পূর্বের ঘন্টায়  
Login   Register        
ADS

আইএসের বিরুদ্ধে যুদ্ধ করতে সিরিয়ায় কানাডীয় মডেল


কানাডার সাবেক এক মডেল সিরিয়ায় গিয়ে কুর্দি সেনাদের সঙ্গে জঙ্গী সংগঠন আইএসের বিরুদ্ধে যুদ্ধ করেছেন। টাইগার সান নামে ৪৬ বছর বয়সী ওই মডেল কুর্দিশ ওয়াইপিজি আর্মির ওমেন্স প্রটেকশন ইউনিট ওয়াইপিজের পক্ষে লড়াই করেছেন। তবে তিনি অপুষ্টি ও অবসাদের কারণে এক সপ্তাহ আগে কানাডায় ফিরে গেছেন।

ব্রিটিশ দৈনিক ডেইলি মেইলকে দেয়া এক সাক্ষাতকারে টাইগার বলেছেন, আমি সিরিয়ায় যুদ্ধক্ষেত্রে যা কিছু দেখেছি, তা আমি কখনও কল্পনাও করতে পারিনি। স্থলমাইন বিস্ফোরণে আহত এক ছোট মেয়েকে আমি বিনা চিকিৎসায় মারা যেতে দেখেছি। কারণ কুর্দিদের মেডিক্যাল প্রশিক্ষণ ও যন্ত্রপাতি নেই। তিনি বলেন, সাবেক মডেল হওয়া সত্ত্বেও তিনি সেখানে কখনও যৌন হয়রানির শিকার হননি। কারণ তাকে সেখানে ছেলে হিসেবেই দেখা হতো। যুদ্ধক্ষেত্রে নারী-পুরুষদের একই দৃষ্টিতে দেখা হয়। যখন কেউ ওয়াইপিজে বা ওয়াইপিজিতে যোগ দেয় তখন তারা এর প্রতি অঙ্গীকারাবদ্ধ থাকে। তাদের অন্য কিছু করার সময় থাকে না। ইয়াজিদি, আরব, কুর্দিরা আইএসের হাতে পরিবারের কাউকে না কাউকে হারিয়েছে। পরিবার হারিয়ে অনেকেই প্রতিশোধ নেয়ার জন্য ওয়াইপিজে বা ওয়াইপিজিতে যোগ দিয়েছে।

তারা তাদের শোককে আড়াল করে রাখতো। আমি তাদের খুব কমই কাঁদতে দেখেছি। টাইগার ১ মার্চ কানাডা থেকে ইরাক হয়ে সিরিয়া পৌঁছান। তিনি যুদ্ধক্ষেত্রে শত্রুপক্ষকে চিহ্নিত করার কাজ করতেন। যুদ্ধক্ষেত্রে ঠিকমতো খাবার না খেতে পেয়ে প্রায় ১৬ কেজি ওজন কমে যাওয়ায় তিনি অপুষ্টিতে ভুগছিলেন। তাই তিনি এক সপ্তাহ আগে কানাডায় ফিরে যেতে বাধ্য হন। সুস্থ হয়ে তিনি আবার সিরিয়ায় যাওয়ার কথা চিন্তা করছেন। আইএসের সঙ্গে যুদ্ধের সময় তিনি প্রতিদিনই মৃত্যু ও ধ্বংস দেখেছেন। তারপরও তিনি বলেন, আমি আইএসকে ভয় পাই না।

- ডেইলি মেইল