১৮ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

কারাগারে কয়েদি নির্যাতনের অভিযোগ তদন্তের নির্দেশ


অনলাইন রিপোর্টার ॥ ইফতার বেশি চাওয়ায় গাজীপুরের কাশিমপুর কারাগারে এক কয়েদিকে নির্যাতনের অভিযোগ তদন্ত করে রিপোর্ট দাখিলের নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট। এ বিষয়ে তদন্ত করে স্বরাষ্ট্রসচিব ও পুলিশের মহাপরিদর্শককে আগামী ৩০ দিনের মধ্যে প্রতিবেদন দাখিল করতে হবে।

জনস্বার্থে দায়ের করা এক রিটের প্রাথমিক শুনানি নিয়ে মঙ্গলবার বিচারপতি কাজী রেজা-উল হক ও বিচারপতি আবু তাহের মো. সাইফুর রহমানের হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

আদালতে আবেদনের পক্ষে শুনানি করেন অ্যাডভোকেট মনজিল মোরসেদ। তিনি সাংবাদিকদের জানান, তদন্তের নির্দেশের পাশাপাশি আদালত রুলও জারি করেন।

রুলে জেলখানায় নির্যাতন ও অমানবিক আচরণ বন্ধের নির্দেশ কেন দেওয়া হবে না তা জানতে চাওয়া হয়েছে এবং বিবাদীদের প্রতি জেলের বিধান (জেলকোড) পালনে কেন যথাযথ নির্দেশ দেওয়া হবে না তাও জানতে চাওয়া হয়েছে।

চার সপ্তাহের মধ্যে স্বরাষ্ট্র সচিব, আইজিপি, ডিআইজি (প্রিজন), কাশিমপুর কারাগারের জেল সুপারসহ সংশ্লিষ্টদের রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে।

২ জুলাই পত্রিকায় প্রকাশিত কয়েদি নির্যাতনের সংবাদ সংযুক্ত করে গত ৫ জুলাই মানবাধিকার সংগঠন কিউম্যান রাইটস অ্যান্ড পিস ফর বাংলাদেশের পক্ষে এ রিট দায়ের করা হয়।

পত্রিকার প্রতিবেদনে বলা হয়, ‘প্রথম রোজার দিন কাশিমপুর হাইসিকিউরিটি কারাগারে ইফতারের খাবারে আরেকটু বেশি ছোলা-মুড়ি চাওয়ায় মধ্যযুগীয় নির্যাতনের শিকার হয়েছেন এক কারাবন্দি।

‘হত্যা মামলার আসামি এই বন্দিকে পিসি টেবিলে (খাবার বিক্রির স্থান) নিয়ে দুই উরুর নিচ দিয়ে দু’হাত নিয়ে হ্যান্ডকাপ পরিয়ে বাঁশ ঢুকিয়ে পেটানো হয়। পিটিয়ে তার পিঠসহ বিভিন্ন স্থান ক্ষত-বিক্ষত করা হয়’।

‘নির্যাতনের শিকার কয়েদি (১৭২১/১৩নং) মো. জাবেদ প্রিন্স, তাকে এ বছরের ১ম রমজানে ও ৮ মার্চ দু’দফা নির্যাতন করা হয়’।