মেঘলা, তাপমাত্রা ৩১.১ °C
 
২৩ আগস্ট ২০১৭, ৮ ভাদ্র ১৪২৪, বুধবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
সর্বশেষ

উচ্চমাধ্যমিক শ্রেণির পড়াশোনা

প্রকাশিত : ৭ জুলাই ২০১৫
  • তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি

প্রকৌশলী এস. এ. এহ্সান রাজন

প্রভাষক ক¤িপউটার বিজ্ঞান বিভাগ

খুলনা পাবলিক কলেজ, খুলনা।

ই-মেইলঃ ধযংধহ.ৎধলড়হ@মসধরষ.পড়স

ওয়েবঃ িি.িধযংধহৎধলড়হ.ড়িৎফঢ়ৎবংং.পড়স

ৃৃৃৃৃৃৃৃৃৃৃৃৃৃৃৃ.ৃৃৃৃৃ

সুপ্রিয় শিক্ষার্থী বন্ধুরা,

শুভেচ্ছা নিও। আজ আমরা তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিষয়ের পঞ্চম অধ্যায়ের ক¤িপউটার প্রোগ্রামিং স¤পর্কে আলোচনা করবো।

প্রোগ্রামের ধারণা

মানুষের পর¯পরের মধ্যে ভাব/তথ্যের বিনিময়, আদেশ-নির্দেশ প্রদানের জন্য যে সকল ধ্বনি ব্যবহৃত হয় তার লিখিত রূপকেই বলা হয় ভাষা। কোন মানুষকে কোন কাজ করার জন্য ভাষার মাধ্যমে মৌখিক/লিখিতভাবে যেমন নির্দেশনা প্রদান করার প্রয়োজন হয় এবং উক্ত নির্দেশ যেমন নির্দেশ পালনকারী যে ভাষা বুঝতে পারে সে ভাষায় প্রদান করার আবশ্যক; ঠিক তেমনি, ক¤িপউটারের মাধ্যমে কাজ করার জন্য ক¤িপউটারকে তার বোধগম্য ভাষায় বা পদ্ধতিতে নির্দেশ প্রদান করতে হয়। ক¤িপউটার বা এ ধরণের ইলেকট্রনিক যন্ত্রের মাধ্যমে সমস্যা সমাধানের জন্য উক্ত যন্ত্রকে নির্দেশ প্রদানের মাধ্যমই হল প্রোগ্রামিং ভাষা (চৎড়মৎধসসরহম খধহমঁধমব)। আমরা ক¤িপউটারকে আমাদের দৈনন্দিন বিভিন্ন কার্যক্রমে ব্যবহার করে থাকি। ক¤িপউটারকে এ সব নির্দেশ আমরা দিয়ে থাকি বিভিন্ন সফটওয়্যারের মাধ্যমে। প্রতিটি সফটওয়্যার আসলে এক বা একাধিক প্রোগ্রামের সমন্বয়ে গঠিত হয়। একটি প্রোগ্রাম হল কোন ইলেকট্রনিক যন্ত্রের মাধ্যমে কোন সুনির্দিষ্ট কাজ স¤পাদনের জন্য প্রদত্ত নির্দেশমালা। এই নির্দেশমালা হার্ডওয়্যারে নির্বাহ হবার মাধ্যমে ক¤িপউটার আমাদের কাঙ্খিত কার্যাবলী স¤পন্ন করে থাকে। মূলত এই নির্দেশগুলি যে ভাষায় প্রদান করা হয়, অর্থাৎ, সফটওয়্যারগুলি যে মাধ্যমে হার্ডওয়্যারের সাথে যোগাযোগ করে সেটিই হল প্রোগ্রামিং ভাষা। ক¤িপউটার মূলত ০ এবং ১ (বিদ্যুতের উপস্থিতিতি বা অনুপস্থিতি) তথা বাইনারী ব্যাতীত কোন কিছু সরাসরি বুঝতে পারে না, সে কারনে ক¤িপউটারকে নির্দেশ প্রদানের জন্য প্রাথমিকভাবে ০ এবং ১ ব্যবহৃত হত। ০ এবং ১ এর মাধ্যমে সরাসরি ক¤িপউটারকে নির্দেশ প্রদানের এই ভাষাকে মেশিন ল্যাংগুয়েজ বা যান্ত্রিক ভাষা বলা হয়। যান্ত্রিক ভাষায় প্রোগ্রাম লেখা যথেষ্ট কষ্টসাধ্য, সময়সাপেক্ষ এবং কঠিন। এই সমস্যা সমাধানের লক্ষ্যে উদ্ভব হয়েছে এসেম্বলী ভাষা এবং উচ্চস্তরের প্রোগ্রামিং ভাষার।

বিভিন্ন স্তরের প্রোগ্রামিং ভাষা (এবহবৎধঃরড়হ ড়ভ চৎড়মৎধসসরহম খধহমঁধমব)

পঞ্চাশের দশকে প্রোগ্রামিং ভাষার উদ্ভব থেকে শুরু করে অদ্যাবধি আবিষ্কৃত ভাষাগুলিকে আবিষ্কারের সময়ের প্রেক্ষিতে কতগুলি সময়ভিত্তিক পর্যায় বা স্তরে (খবাবষ) বা এবহবৎধঃরড়হ-এ বিভক্ত করা হয়ে থাকে। সময়ভিত্তিক এই শ্রেণিবিভাগকে প্রোগ্রামিং ভাষার বৈশিষ্ট্যের সাথেও স¤পর্কযুক্ত করা হয়ে থাকে। যথা-

 প্রথম প্রজন্মের ভাষা (ঋরৎংঃ এবহবৎধঃরড়হ খধহমঁধমব) (১৯৪৫): যান্ত্রিক ভাষা (গধপযরহব খধহমঁধমব)

 দ্বিতীয় প্রজন্মের ভাষা (ঝবপড়হফ এবহবৎধঃরড়হ খধহমঁধমব) (১৯৫০) : এসেম্বলী ভাষা (অংংবসনষু খধহমঁধমব)

 তৃতীয় প্রজন্মের ভাষা (ঞযরৎফ এবহবৎধঃরড়হ খধহমঁধমব) (১৯৬০) : উচ্চ স্তরের ভাষা (ঐরময খবাবষ খধহমঁধমব)

 চতুর্থ প্রজন্মের ভাষা (ঋড়ঁৎঃয এবহবৎধঃরড়হ খধহমঁধমব) (১৯৭০) : অতি-উচ্চ স্তরের ভাষা (ঠবৎু ঐরময খবাবষ খধহমঁধমব)

 পঞ্চম প্রজন্মের ভাষা (ঋরভঃয এবহবৎধঃরড়হ খধহমঁধমব) (১৯৮০) : স্বাভাবিক ভাষা (ঘধঃঁৎধষ খধহমঁধমব)

প্রথম ও দ্বিতীয় প্রজন্মের ভাষা তথা যান্ত্রিক ভাষা এবং এসেম্বলী ভাষাকে নিুস্তরের ভাষা বলা হয়। অপরদিকে তৃতীয় থেকে পরবর্তী স্তরের ভাষাগুলোকে সাধারণভাবে উচ্চ স্তরের ভাষা শ্রেণিতে আলোচনা করা হয়। অনেক ক্ষেত্রেই গবেষকবৃন্দ বিভিন্ন প্রজন্মের সময়ব্যপ্তির ব্যাপারে স্বীয় মতামত উপস্থাপন করেন।

 প্রথম প্রজন্মের ভাষা (ঋরৎংঃ এবহবৎধঃরড়হ খধহমঁধমব) (১৯৪৫): যান্ত্রিক ভাষা (গধপযরহব খধহমঁধমব)

বাইনারী সংখ্যা অর্থাৎ শুধুমাত্র ০ এবং ১ এর মাধ্যমে রচিত যে ক¤িপউটার প্রোগ্রাম সরাসরি প্রথম প্রজন্মের ভাষা বলতে যান্ত্রিক ভাষাকে বোঝানো হয়। সেন্ট্রাল প্রসেসিং ইউনিট কর্তৃক নির্বাহ (ঊীবপঁঃবফ) হতে পারে তাকে যান্ত্রিক ভাষা বলে। ক¤িপউটারে মৌলিক ভাষা বলতেই যান্ত্রিক ভাষাকে বোঝানো হয়। ক¤িপউটারকে প্রদত্ত যে কোন নির্দেশনা যান্ত্রিক ভাষায় পরিবর্তন ব্যতীত নির্বাহ সম্ভব নয়। এ প্রেক্ষিতে এসেম্বলী ভাষা অথবা যে কোন উচ্চতর ভাষায় রচিত ক¤িপউটার প্রোগ্রাম যান্ত্রিক ভাষায় রূপান্তরিত হবার মাধ্যমেই নির্বাহ করা হয়। যান্ত্রিক ভাষায় রচিত প্রোগ্রামকে অবজেক্ট প্রোগ্রাম (ঙনলবপঃ চৎড়মৎধস) এবং অন্যভাষায় রচিত প্রোগ্রামকে উৎস প্রোগ্রাম (ঝড়ঁৎপব চৎড়মৎধস) বলা হয়। ক¤িপউটারের প্রোগ্রামিং ভাষার সূচনাতে বাইনারী কোডের মাধ্যমে এই যান্ত্রিক ভাষায় ক¤িপউটারকে নির্দেশনা প্রদান করা হলেও এই প্রক্রিয়াটি ছিলো অত্যন্ত কষ্টকর, সময়সাপেক্ষ, ও ত্র“টিপূর্ণ। বাইনারী সংখ্যা মনে রাখা যেহেতু অনেকটা অসম্ভব, সেহেতু প্রোগ্রামিং এর ত্র“টির সম্ভাবনাও বেশি ছিল এবং ত্র“টি সনাক্তকরণও ছিলো প্রায় অসম্ভব। মেশিন ভাষা এবং এসেম্বলী ভাষা যন্ত্রনির্ভর। অর্থাৎ, এক কো¤পানির ক¤িপউটারের জন্য মেশিন ভাষা বা মেশিন নির্দেশ ও এসেম্বলী নির্দেশ এক নাও হতে পারে।

উদাহরণস্বরূপ, মেশিন কোড ০০০০০১০১ দ্বারা সিপিইউ এর নামের প্রসেসর রেজিস্টার এর মান একক হ্রাস করার নির্দেশনা প্রদান করা হয়, যেটি এসেম্বলী ভাষায় উঊঈ ই নির্দেশের মাধ্যমে নির্দেশিত হয়।

সাধারণত যান্ত্রিক ভাষার নির্দেশ অপারেশন কোড ফিল্ড, ঔ-ঃুঢ়ব (লঁসঢ়), ও-ঃুঢ়ব (রসসবফরধঃব), জ-ঃুঢ়ব (ৎবমরংঃবৎ) এবং ভঁহপঃরড়হ এর সমন্বয়ে গঠিত হতে পারে। গওচঝ (৩২ ইরঃ) আর্কিটেকচার অনুযায়ী ৎবমরংঃবৎ ১ এবং ৎবমরংঃবৎ ২ এ বিদ্যমান মান যোগ করে ৎবমরংঃবৎ ৬ এ স্থাপনের জন্য মেশিন ভাষায় ০০০০০০ ০০০০১ ০০০১০ ০০১১০ ০০০০০ ১০০০০০ নির্দেশ ব্যবহৃত হয়।

প্রকাশিত : ৭ জুলাই ২০১৫

০৭/০৭/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


শীর্ষ সংবাদ: